ঢাকা, শনিবার 4 July 2020, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

সিলেট বিভাগে একদিনে আরও ৭৭ জন করোনা রোগী শনাক্ত

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: সিলেট বিভাগে একদিনে আরও ৭৭ জন মানুষের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার শনাক্তদের মধ্যে রয়েছে ৫১ জন সিলেট জেলার, সুনামগঞ্জে ১৮ জন, হবিগঞ্জে সাতজন ও মৌলভীবাজারের একজন। এনিয়ে সিলেট বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৮৩৬ জনে।

বৃহস্পতিবার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় ও তিন জেলার সিভিল সার্জনরা।

আক্রান্ত হওয়া ৭৭ জনের মধ্যে ৫১টি রিপোর্ট সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব, ১৮টি রিপোর্ট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ল্যাবে ও ৮টি প্রতিবেদন ঢাকার ন্যাশনাল ইনিস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার থেকে প্রকাশ করা হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, বৃহস্পতিবার ১৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৫১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এনিয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সিলেট জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৩৬ জনে।

এদিকে সুনামগঞ্জে দুই শিশু, চার পুলিশ সদস্য ও একজন চিকিৎসকসহ আরও ১৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. শামস উদ্দিন।

তিনি জানান, নতুন শনাক্ত হওয়া পুলিশের চার সদস্যের সকলেই জেলা পুলিশ লাইনসের সদস্য। এছাড়া যে চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত। এছাড়া সদরে দুইজন শিশু রয়েছে, যাদের একজনের বয়স ৩ বছর ও অন্যজনের ৫ বছর। 

এনিয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সুনামগঞ্জে করোনা আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩১ জনে। 

হবিগঞ্জে চিকিৎসকসহ নতুন করে আরও সাতজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন মখলিছুর রহমান উজ্জ্বল।

তিনি জানান, ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার থেকে এ সাতজনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজন চিকিৎসকও আছেন। এ নিয়ে হবিগঞ্জে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৭১ জনে।

মৌলভীবাজারে একজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তিনি মৌলভীবাজার সদরের বলে নিশ্চিত করেছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. তওহীদ আহমদ।

মৌলভীবাজারে নতুন আক্রান্ত এই ব্যক্তির প্রতিবেদনও ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার থেকে এসেছে বলে জানান তিনি। এ নিয়ে মৌলভীবাজার আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৯৮ জনে।

সব মিলিয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৩৬ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৪৩৬ জন, সুনামগঞ্জে ১৩১, হবিগঞ্জে ১৭১ ও মৌলভীবাজার জেলায় ৯৮ জন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সিলেট বিভাগে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ১৯০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৪০ জন, সুনামগঞ্জে ৫৯ জন, হবিগঞ্জে ৭৫ জন ও মৌলভীবাজারে ১৬ জন। 

এছাড়া এখন পর্যন্ত সিলেট বিভাগে ১৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ১১ জন, হবিগঞ্জে একজন ও মৌলভীবাজারে তিনজন।

-ইউএনবিসংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: সিলেট বিভাগে একদিনে আরও ৭৭ জন মানুষের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার শনাক্তদের মধ্যে রয়েছে ৫১ জন সিলেট জেলার, সুনামগঞ্জে ১৮ জন, হবিগঞ্জে সাতজন ও মৌলভীবাজারের একজন। এনিয়ে সিলেট বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৮৩৬ জনে।

বৃহস্পতিবার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় ও তিন জেলার সিভিল সার্জনরা।

আক্রান্ত হওয়া ৭৭ জনের মধ্যে ৫১টি রিপোর্ট সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব, ১৮টি রিপোর্ট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) ল্যাবে ও ৮টি প্রতিবেদন ঢাকার ন্যাশনাল ইনিস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার থেকে প্রকাশ করা হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়।

সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষায় ৫১ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় বলেন, বৃহস্পতিবার ১৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ৫১ জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এনিয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সিলেট জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৩৬ জনে।

এদিকে সুনামগঞ্জে দুই শিশু, চার পুলিশ সদস্য ও একজন চিকিৎসকসহ আরও ১৮ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. শামস উদ্দিন।

তিনি জানান, নতুন শনাক্ত হওয়া পুলিশের চার সদস্যের সকলেই জেলা পুলিশ লাইনসের সদস্য। এছাড়া যে চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিনি ছাতক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত। এছাড়া সদরে দুইজন শিশু রয়েছে, যাদের একজনের বয়স ৩ বছর ও অন্যজনের ৫ বছর। 

এনিয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সুনামগঞ্জে করোনা আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৩১ জনে। 

হবিগঞ্জে চিকিৎসকসহ নতুন করে আরও সাতজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন মখলিছুর রহমান উজ্জ্বল।

তিনি জানান, ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার থেকে এ সাতজনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। আক্রান্তদের মধ্যে একজন চিকিৎসকও আছেন। এ নিয়ে হবিগঞ্জে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১৭১ জনে।

মৌলভীবাজারে একজনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তিনি মৌলভীবাজার সদরের বলে নিশ্চিত করেছেন জেলার সিভিল সার্জন ডা. তওহীদ আহমদ।

মৌলভীবাজারে নতুন আক্রান্ত এই ব্যক্তির প্রতিবেদনও ঢাকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব ল্যাবরেটরি মেডিসিন অ্যান্ড রেফারেল সেন্টার থেকে এসেছে বলে জানান তিনি। এ নিয়ে মৌলভীবাজার আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৯৮ জনে।

সব মিলিয়ে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৩৬ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৪৩৬ জন, সুনামগঞ্জে ১৩১, হবিগঞ্জে ১৭১ ও মৌলভীবাজার জেলায় ৯৮ জন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, সিলেট বিভাগে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ১৯০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ৪০ জন, সুনামগঞ্জে ৫৯ জন, হবিগঞ্জে ৭৫ জন ও মৌলভীবাজারে ১৬ জন। 

এছাড়া এখন পর্যন্ত সিলেট বিভাগে ১৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী মারা গেছেন। এর মধ্যে সিলেট জেলায় ১১ জন, হবিগঞ্জে একজন ও মৌলভীবাজারে তিনজন।

-ইউএনবি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ