ঢাকা, বুধবার 15 July 2020, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

সরকারি টেস্টেও ডা. জাফরুল্লাহ করোনা পজিটিভ

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: এবার সরকারের নির্ধারিত প্রতিষ্ঠানেও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সন্ধ্যায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এতথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী শারীরিকভাবে সুস্থ, স্থিতিশীল আছেন। এন্টিজেন, এন্টিবডি টেস্টের পর বুধবার তার আরটি-পিসিআর টেস্টের ফলাফলও পজেটিভ এসেছে।

ফেসবুকে পোস্টে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র জানিয়েছে, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন, স্বাভাবিক কাজকর্ম করছেন। তিনি দেশবাসীকে ভীত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন এবং উনার জন্য জন্য দোয়া করতে বলেছেন।

ওই ফেসবুক পোস্টে আরও বলা হয়েছে, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর স্বাস্থ্য বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী খোঁজখবর নিয়েছেন এবং রোগমুক্তি কামনা করেছেন বলে ডা. চৌধুরী জানিয়েছেন। এ জন্য তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াও তার স্বাস্থ্য বিষয়ে খোঁজ নিয়েছেন।

এর আগে গত সোমাবার ঈদের দিন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নভেল করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়।

ওইদিন তিনি বলেন, রোববার ইফতারের আগে বাইরে গিয়েছিলাম। তখন একটু জ্বর জ্বর লাগে এবং কাশি হয়। ডাক্তাররা বলেন আমার পরীক্ষা করা দরকার। পরে নমুনা দিয়ে সন্ধ্যায় জানতে পারি আমার পজিটিভ।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিটেই তার নমুনা পরীক্ষা হয় বলে জানান তিনি।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ছাড়াও বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত আছেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

জাতীয় ঐক্য ফ্রন্ট দফতরের কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু জানান, ২৪ মে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট দিয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর করোনাভাইরাসের নমুনা গ্রহণ করে প্রতিষ্ঠানের ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করা হয়। এই পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর থেকে তিনি বাসায় আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন আছেন। পরে ২৬ মে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর নমুনা পাঠানো হয়। বৃহস্পতিবার বিএসএমএমইউ হতেও করোনা পজিটিভ শনাক্ত হওয়ার রিপোর্ট আসে।

জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু বলেন, এতে প্রমাণিত হলো গণস্বাস্থ্য উদ্ভাবিত কিট করোনা শনাক্তকরণে শতভাগ কার্যকরী।

করোনাভাইরাসের মহামারির সময়ে দেশের জনগণকে আরও বেশি স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার স্বার্থে দ্রুত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের বৈজ্ঞানিকদের উদ্ভাবিত সহজলভ্য কিট উৎপাদনে সরকারকে অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ডিএস/এএইচ

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ