ঢাকা, বুধবার 15 July 2020, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ২৩ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

ব্রাজিলে মৃত্যু লাখ ছাড়াতে পারে

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: দক্ষিণ অ্যামেরিকায় দ্রুত ছড়াচ্ছে করোনা। ব্রাজিলের পাশাপাশি পেরু, চিলি, কলম্বিয়ায় একদিনে রেকর্ড সংক্রমণ ঘটেছে। অ্যামেরিকায় মৃত্যু এক লাখ পেরিয়ে গেলো।

ইউরোপ এবং অ্যামেরিকার চেয়েও দ্রুত হারে করোনা ছড়াচ্ছে দক্ষিণ অ্যামেরিকায়। সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে, এ ভাবে চলতে থাকলে অগাস্টের মধ্যে ব্রাজিলে মৃতের সংখ্যা ছাড়াতে পারে এক লাখ ২৫ হাজারের গণ্ডি। শুধু তাই নয়, গোটা দক্ষিণ অ্যামেরিকার চেহারাই আরও ভয়াবহ হতে পারে।

উত্তর অ্যামেরিকার পরিস্থিতিও ভালো নয়। দেশে মোট মৃতের সংখ্যা এক লাখ পার করেছে। তবে আশার কথা, শেষ তিন দিন দৈনিক মৃত্যু ৭০০ পার করেনি। গত কয়েক মাসে এমন ঘটনা ঘটেনি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, উত্তর অ্যামেরিকায় ধীরে ধীরে করোনার প্রকোপ কমার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তবে সতর্ক না থাকলে ফের এই সংখ্যার বৃদ্ধি ঘটতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা সতর্ক থাকতে বললেও প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এখনও অর্থনীতির স্বার্থে দেশে স্বাভাবিক জীবনযাপন ফিরিয়ে আনতে চাইছেন। শুধু তাই নয়, ৬ জুলাই স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান যথেষ্ট সমারোহে পালন করতে চাইছেন। যদিও কংগ্রেসের বহু নেতাই এর বিরোধিতা করেছেন। তাঁদের বক্তব্য, এই পরিস্থিতিতে ৬ জুলাইয়ের অনুষ্ঠান বড় করে না করাই ভালো। হোয়াইট হাউস অবশ্য জানিয়েছে, অনুষ্ঠানের আয়োজন হলেও করোনাকালীন সতর্কতা বজায় রাখা হবে।

ইউরোপের পরিস্থিতি এখন আগের চেয়ে অনেক ভালো। স্পেন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বুধবার থেকে ১০ দিনের শোক দিবস পালন করা হবে। করোনায় যাঁদের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের স্মরণে এই দশ দিনের শোক দিবস পালন করা হবে। দেশের পতাকাও থাকবে অর্ধনমিত। এ দিকে, করোনা পরিস্থিতি কাটিয়ে প্রায় স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার জনজীবন। তারই মধ্যে মঙ্গলবার দেশে করোনায় মৃত্যু ঘটেছে। বলা হচ্ছে, এখনও পর্যন্ত সে দেশে এটাই করোনায় সব চেয়ে কম বয়সীর মৃত্যু। ৩০ বছর বয়সের এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে কুইনসল্যান্ডে।

দৈনিক মৃত্যু হাজার ছাড়িয়েছে

ব্রাজিলে গত কয়েকদিন ধরে প্রতিদিনই এক হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হচ্ছে৷ মঙ্গলবার একদিনে রেকর্ড ১,১৭৯ জন মারা যান৷ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত মোট মৃত্যু ১৮ হাজার ৮৫৯জন৷

আর এক বার তাকানো যাক দক্ষিণ অ্যামেরিকার দিকে। গত ২৪ ঘণ্টায় ব্রাজিলের পাশাপাশি দক্ষিণ অ্যামেরিকার প্রায় প্রতিটি দেশেই করোনার রেকর্ড বৃদ্ধি ঘটেছে। কলম্বিয়ায় এক হাজার ২২ জনের নতুন করে করোনা ধরা পড়েছে। যার জেরে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২৩ হাজার ছাড়িয়ে গিয়েছে। পেরুতে গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচ হাজার ৮০০ জনের শরীরে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। মোট আক্রান্ত এক লাখ ৩০ হাজার। আর্জেন্টিনায় এক ধাক্কায় মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ থেকে ৪৯০। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বক্তব্য, ইউরোপ এবং অ্যামেরিকার চেয়েও বেশি হারে করোনা-মৃত্যু ঘটছে দক্ষিণ অ্যামেরিকায়।

ভারতের পরিস্থিতিও খুব ভালো নয়। ৩১ মে পর্যন্ত লকডাউন চললেও, গোটা দেশেই জনজীবন অনেকটা স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে। দোকান বাজার খুলতে শুরু করেছে। গাড়ি ঘোড়াও রাস্তায় নেমেছে। চালু হয়েছে দেশের ভিতরে বিমান পরিষেবা। চলছে ট্রেন। যার ফলে গত কয়েক দিনে করোনার সংক্রমণ রেকর্ড বৃদ্ধি পেয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গিয়েছে দেড় লাখ। বুধবার সকাল পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে চার হাজার ৩৪৪ জনের।

গোটা বিশ্বে এখনও পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৬ লাখ ৮৪ হাজার। মৃত্যু হয়েছে তিন লাখ ৫২ হাজার লোকের। সুস্থ হয়েছেন ২৪ লাখ ৩০ হাজার মানুষ।

সূত্র: ডিডব্লিউ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ