শনিবার ০৬ জুন ২০২০
Online Edition

পাকিস্তানের ফাস্ট বোলিংয়ের প্রশংসায় তামিম ইকবাল

স্পোর্টস রিপোর্টার: ধারাভাষ্যকার ও সাবেক পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান রমিজ অনেকদিন আগেই চালু করেছেন নিজের ইউটিউব চ্যানেল। ক্রিকেটের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রায়ই উপস্থিত হন অনলাইন অনুষ্ঠানে। অনেক ক্রিকেটারের সঙ্গে কথাও বলেছেন। তারই ধারাবাহিকতায় গত বৃহস্পতিবার অতিথি করেছিলেন বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালকে। অবশ্য তামিম ইকবাল নিজেও এখন জনপ্রিয় উপস্থাপক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ইউটিউব চ্যানেলে দেশ-বিদেশের নামি সব ক্রিকেটারকে নিয়ে আড্ডা দিচ্ছেন প্রায় প্রতিদিনই। এবার নিজেই অতিথি হয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন রমিজ রাজার ইউটিউব চ্যানেলে। সেখানে পাকিস্তানের ফাস্ট বোলিংয়ের প্রশংসা করেছেন তামিম ইকবাল। ফাস্ট বোলার তৈরিতে তাই বাংলাদেশের পাকিস্তানকে অনুসরণ করা উচিত বলে মনে করেন তামিম। কারণ বাংলাদেশ বিশ্বমানের স্পিনার পেলেও কিন্তু পেসার সেভাবে গড়ে ওঠেনি। ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল বলেন, ‘পাকিস্তান দলের কাছ থেকে আমাদের শেখার আছে। ঘরোয়া ম্যাচে আমরা পাকিস্তানের মতো উইকেটে খেলি, কিন্তু পাকিস্তান বরাবরই বিশ্বমানের ফাস্ট বোলার তৈরি করে। পাকিস্তান যেটা করছে, আমরা যদি এই পথ অনুসরণ করি, তাহলে আমার মনে হয় সেটি ফাস্ট বোলিংয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে সাহায্য করবে।’ পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজা বাংলাদেশের বাঁহাতি ওপেনার ও বর্তমান ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের ব্যাটিংয়ে তার স্বদেশী তারকা সাঈদ আনোয়ারের ছায়া দেখতে পান বলে জানান। সঞ্চালক হিসেবে রমিজই তামিমকে জিজ্ঞেস করেন, ‘তোমার পছন্দের বাঁহাতি ব্যাটসম্যান কে?’ উত্তরে তামিম বলেন, ‘ছোট থেকেই সনাৎ জয়াসুরিয়া ও সাঈদ আনোয়ারের ব্যাটিং দেখে বড় হয়েছি।’ ঠিক তখনই তামিমের ব্যাটিংয়ের প্রশংসায় রমিজ বলেন, ‘তোমার ব্যাটিংয়ে সাঈদ আনোয়ারের ধাঁচ আছে। তোমার ব্যাটিং আমাকে তাঁর কথা মনে করিয়ে দেয়। আমি তার সাথে অনেক  খেলেছি। সেও একজন প্রকৃতি প্রদত্ত ব্যাটসম্যান ছিল তোমার মত।’ বিনয়ী স্বরে আপত্তি জানিয়ে তামিম বলেন,‘আমি এমন মনে করি না।

সাঈদ আনোয়ার অন্য উচ্চতার ব্যাটসম্যান ছিলেন।’ এসময় শর্ট বল মোকাবিলা করার কৌশল রপ্ত করতে কুমার সাঙ্গাকারার সঙ্গে কথা বলেছেন জানিয়ে তামিম আরও বলেন, ‘আমাদের কন্ডিশনে ইংল্যান্ড বা দক্ষিণ আফ্রিকার মত বল এত বাউন্স করে না। প্রায় ৭-৮ বছর আগে আমি কুমার সাঙ্গাকারার সাথে কথা বলেছিলাম।’ ‘সাঙ্গাকারা বলেছিলেন, শর্ট বল খেলার উত্তম উপায় হল শরীরকে সামনে রাখা। শরীর সামনে রেখে তুমি শর্ট বল ভালো খেলতে পারবে। তাহলে তুমি শর্ট বলের বিপক্ষে টিকে থাকতে পারবে। বল ঠেকতে পারবে অথবা হুক বা পুল শর্ট খেলতে পারবে।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ