মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

করোনা আক্রান্তে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানে থাকাটা সম্মানের ----ট্রাম্প

 

 ২০ মে, বিবিসি : কোভিড-১৯ মহামারীতে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের আশপাশেও নেই কোনো দেশ।আর এ বিষয়টিকেই যুক্তরাষ্ট্রের জন্য মর‌্যাদার বিষয় হিসেবে দেখছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

করোনাভারাস প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর গত মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠক চলাকালে এ কথা বলেন ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউসের ইস্ট রুমে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠক চলাকালে সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, প্রসঙ্গক্রমে যখন আপনারা বলেন, আক্রান্তের সংখ্যায় আমরা শীর্ষে আছি, এর কারণ হল, অন্য যে কারো চেয়ে বেশি পরীক্ষা করছি আমরা।

‘আমি এটাকে নিশ্চিত সম্মানের বিষয় হিসেবে দেখি, ভালো ব্যাপার হিসেবে দেখি। কারণ এটা দিয়ে বোঝায়, আমাদের টেস্টিং কতটা ভালো।’

তিনি যোগ করেন, যাই হোক, আপনারা যখন জিজ্ঞেস করেন আমরা আক্রান্তের তালিকায় শীর্ষে। এর কারণ হলো- আমরা যে কারোর চেয়ে অনেক বেশি টেস্ট করছি। তাই আমাদের অনেক বেশি আক্রান্ত। আমি এটাকে খারাপ হিসেবে দেখি না।

‘আমি তো মনে করি, এটা সম্মানের একটা ব্যাজ। সত্যি, এটা সম্মানের একটা ব্যাজ। এটা ব্যাপক হারে টেস্টিংয়ের প্রতি অনেক প্রশংসা। আমাদের অগণিত পেশাদারি যারা এসব কাজ করেছে তাদের প্রতি প্রশংসা।’

গতকাল বুধবার সকালে জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর সিস্টেম সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (সিএসএসই) হালনাগাদ করা তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লাখ ২৮ হাজার ৫৬৮ জন এবং মৃতের সংখ্যা প্রায় ৯২ হাজার।

আর ওয়াল্ডওমিটারের তথ্যে বলা হয়েছে, গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টা পর‌্যন্ত কোভিড-১৯ এ যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৭০ হাজার ৫৮৩ জন। আর মারা গেছেন ৯৩ হাজার ৫৩৩ জন।সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লাখ ৬১ হাজার ১৮০ জন।আক্রান্তদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৪ লাখ ৫৪ হাজার ৭১৩ জন।

যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের (সিডিসি) তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র এক কোটি ২৬ লাখ করোনাভাইরাস পরীক্ষা সম্পন্ন করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস ছড়ানোয় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ব্যর্থতাকেই দায়ী করছেন অনেকে।এক টুইটে রিপাবলিকান এই প্রেসিডেন্টের সমালোচনা করে ডেমোক্রেটিক ন্যাশনাল কমিটি বলেছে, যুক্তরাষ্ট্রে ১৫ লাখ কোভিড-১৯ রোগী ‘নেতৃত্বের সম্পূর্ণ ব্যর্থতার’ নিদর্শন। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক বৈজ্ঞানিক প্রকাশনা ‘আওয়ার ওয়াল্ড ডাটা’ তথ্য অনুযায়ী, সংখ্যার হিসেবে অন্য যে কোনো দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বেশি পরীক্ষা হলেও মাথাপিছু পরীক্ষার হিসেবে দেশটি বিশ্বে শীর্ষে নেই, বরং ১৬তম স্থানে আছে। প্রতি হাজারে পরীক্ষার হিসাবে দক্ষিণ কোরিয়ার আগে থাকলেও যুক্তরাষ্ট্র আইসল্যান্ড, নিউ জিল্যান্ড, রাশিয়া ও কানাডার মতো বেশ কয়েকটি দেশের চেয়ে পিছিয়ে আছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ