বৃহস্পতিবার ০৬ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ঢাকা দক্ষিণের মেয়রের দায়িত্ব নিলেন তাপস ॥ কাজে পাঁচ অগ্রাধিকার

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপসের দায়িত্বভার গ্রহণ। ছবিটি গতকাল শনিবার নগর ভবন থেকে তোলা -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়রের দায়িত্বভার গ্রহণ করলেন শেখ ফজলে নূর তাপস। গতকাল শনিবার দুপুরে নগর ভবনে সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. ইমদাদুল হকের কাছ থেকে মেয়রের দায়িত্ব বুঝে নেন তিনি। এ সময় শেখ ফজলে নূর তাপসের স্ত্রী আফরিন তাপস, আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফী, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর, নগর আওয়ামী লীগ নেতা মোরশেদ কামাল, কাউন্সিলর ফরিদউদ্দিন আহমেদ রতন এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
গত ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দক্ষিণে মেয়র নির্বাচিত হন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। টানা তৃতীয় মেয়াদে ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত তাপস ওই আসনের দায়িত্ব ছেড়ে মেয়র নির্বাচনে লড়েছিলেন। চার লাখ ২৪ হাজার ৫৯৫ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হন তিনি। তার প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ইশরাক হোসেন ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছিলেন ২ লাখ ৩৬ হাজার ৫১২ ভোট।
এর আগে ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র হন মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। গত ১৬ মে তার মেয়াদ শেষ হয়। এবারের নির্বাচনে সাঈদ খোকনকে মনোনয়ন দেয়নি আওয়ামী লীগ।
নতুন মেয়রকে দায়িত্ব বুঝিয়ে কিংবা হস্তান্তর করতে আসেন নি সদ্য বিদায়ী মেয়র সাঈদ খোকন। প্রথা অনুসারে তিনি তার দায়িত্ব হস্তান্তর করেই আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নিতে পারতেন বলে সংশ্লিষ্টদেও অভিমত। কিন্তু তিনি তা না করেই গত বৃহস্পতিবার নগর ভবনে এসে কিছুটা সময় অতিবাহিত কওে চলে যান। এ সময় তিনি তার রুমে পূর্ব থেকেই রাখা জাতীয় পতাকায় চুমু খেয়ে অনানুষ্ঠানিক বিদায় নেন। তাতেই সবে বোঝেন হয়তো মেয়র সাঈদ খোকন দায়িত্ব হস্তান্তরে  হাজির হবেন না।

কাজে পাঁচ অগ্রাধিকার
পাঁচটি বিষয়কে অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ শুরু করবেন বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেনের সদ্য দায়িত্ব নেওয়া মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। গতকাল শনিবার (১৬ মে) তিনি বলেন, 'মহামারি করোনা, মশা, ময়লা-আবর্জনা, যানজট ও দুর্নীতি দমনকে প্রধান্য দেওয়া হবে।' এই কাজগুলো বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে পূর্বঘোষিত ইশতেহার অনুযায়ী নাগরিকদের মৌলিক চাহিদাগুলো পূরণ করবেন বলেও জানান তিনি। এছাড়াও বিদায়ী মেয়র যেসব উন্নয়ন কাজ রেখে গেছেন, সেগুলোর ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।
গতকাল দুপুরে দায়িত্ব গ্রহণের পর এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে আসেন মেয়র। এসময় তিনি বলেন, 'আইন অনুযায়ী ২৮টি প্রধান কাজসহ সিটি করপোরেশনের বেশ কিছু দায়িত্ব রয়েছে। ইশতেহার অনুযায়ী আগামী ৯০ দিনের মধ্যে সেই দায়িত্বগুলো কীভাবে পূরণ করতে পারি, সেদিকে নজর দেবো। যদিও করোনা ভাইরাসের এই দুর্যোগে তা অনেকটাই কঠিন।'
 মেয়র আরও বলেন, ' নির্বাচনি ইশতেহারে পাঁচটি বিষয়কে প্রধান্য দিয়েছি। সেই বিষয়গুলোকে আবার কয়েকভাবে ভাগ করেছি। এখন আমার অগ্রাধিকার কাজগুলো হবে- মহামারি করোনা মোকাবিলা, মশা নিধন, ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার, যানজট দূর করা ও দুর্নীতি রোধ। মেয়র হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী যে নির্দেশনা দিয়েছেন, তা বাস্তবায়ন করার জন্য সেদিকে নজর দেবো। গত বছরের মতো এবছরও যাতে মশার বিস্তার ভয়াবহ না হয়, সেদিক নজর রাখা হবে। আর নাগরিকদের সুবিধার্থে কোনও সিদ্ধান্ত গ্রহণ এবং সেটি বাস্তবায়নে কোনও বাধা মানা হবে না।'
এক প্রশ্নের জবাবে তাপস বলেন, 'ডিএসসিসিতে চলমান থাকা সব উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রাখা হবে।'
আসন্ন বর্ষায় জলাবদ্ধতার নিরসনের বিষয়ে তিনি বলেন, 'এটা আমাদের রাস্তাঘাট উন্নয়নের অংশ, তার মাধ্যমেই করা হবে।'
এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, 'বিভিন্ন মিডিয়া থেকে জানতে পেরেছি আমাদের অনেক দায়-দেনা রয়েছে। দায়-দেনা কতটুকু, তা নিয়ে আগামীকাল বসবো। দেনা নিয়েই তো আমাকে যাত্রা শুরু করতে হচ্ছে।'
নির্বাচিত হওয়ার পর করোনাকালে নিজের উপস্থিতি না থাকার বিষয়ে তাপস বলেন, 'এতো দিন তো দায়িত্বে ছিলাম না। আজ থেকে দেখতে পাবেন। আর ডিএসসিসির জনসংযোগ দফতর রয়েছে। সেখান থেকে তথ্য দেওয়া হবে।' এছাড়া সপ্তাহে একদিন গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে দেখা হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণের পর দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক ভিডিও সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন ফজলে নূর তাপস। এসময় আগামী পাঁচ বছর নিজ দায়িত্ব পালনের নানান পরিকল্পনা তুলে ধরেন তিনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ