বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০
Online Edition

তিন মাস বেকার থেকেও দুই বছরের চুক্তি করবেন জেমি ডে

স্পোর্টস রিপোর্টার: বাংলাদেশ দলের ইংলিশ কোচ জেমী ডের সাথে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) চুক্তির মেয়াদ একদিন আগে শেষ হয়েছে। বাফুফে ও জেমীর মধ্যে ইতোমধ্যেই চুক্তি নবায়নের বিষয়ে আলোচনা চুড়ান্ত হয়েছে। বাফুফে আবারো জেমীকে ২ বছরের জন্য নিয়োগ দিতে যাচ্ছে। কিন্তু তার আগে জেমীকে ৩ মাস থাকতে হচ্ছে বেকার। ১৬ মে থেকে ১৫ আগস্ট- এই তিন মাস ছাড়াছাড়ি বাফুফে ও জেমির।আবার বন্ধন শুরু হবে ১৬ আগস্ট- বাফুফে এই শর্তটা এমনই।অনেক ভেবেচিন্তে সেই শর্তে রাজি হয়েছেন কোচ ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে। তিন মাস বেকার থেকেও তিনি আরও দুই বছর বাংলাদেশে কাজ করার সম্মতি দিয়েছেন। এমন তথ্য দিলেন বাফুফে সেক্রটারী আবু নাইম সোহাগ।

তিন মাস বিরতির কারন এই সময়ে জাতীয় দলের কোন কার্যক্রম শুরুর সম্ভাবনা নেই। তাহলে বসিয়ে বসিয়ে একজন বিদেশি কোচকে মোটা অংকের বেতন কেন দিতে যাবে বাফুফে? তাই তো জেমিকে বলা হয়েছিল- তিন মাস পর থেকে কাজে লাগতে চাইলে বাফুফে চুক্তি করবে।কোচ জেমি ডে ইংল্যান্ড থেকে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘সব ঠিকঠাক। আমি এখন বাফুফের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায়।’ বাফুফেও ইতিমধ্যে কোচকে জানিয়ে দিয়েছে, ‘তুমি আছ আরও দুই বছর।’ তো এখন বাকি শুধু আনুষ্ঠানিকতা। সেটা কবে?

বাফুফে সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাঈম সোহাগ জানিয়েছেন, ‘কোচের সঙ্গে আমাদের সব আলোচনা শেষ। এখন আমরা ভার্চুুয়াল সভা করে আনুষ্ঠানিকতা সারবো। ন্যাশনাল টিমস কমিটির চেয়ারম্যান বাফুফে সহ-সভাপতি কাজী নাবিল আহমেদ, ডেপুটি চেয়ারম্যান আরেক সহ-সভাপতি তাবিথ আউয়াল, জেমি ডে ও তার এজেন্টকে নিয়ে আগামী সপ্তাহেই ভার্চুয়াল সভাটি করবো।’ এই তিন মাস কি করবেন জেমি ডে? তিনি কি সুযোগ পেলে অন্য কোন কাজ করতে পারবেন? ‘এই তিন মাস জেমি আমাদের কোচ নন। তিনি যদি এই সময়ে অন্য কোন কাজ করতে চান, করতে পারবেন। আমাদের কোন আপত্তি থাকার কারণ নেই’- বলছিলেন বাফুফের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাঈম সোহাগ।

উল্লেখ্য জেমি ডে বাংলাদেশ ফুটবলের প্রধান কোচের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ২০১৮ সালের ১৭ মে। গত বছর আরও এক বছরের জন্য তিনি চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন বাফুফের সঙ্গে। যে চুক্তির শেষদিন ছিল গত শুক্রবার। আগামী ১৬ আগস্ট থেকে বাংলাদেশের সঙ্গে আবার পথচলা শুরু হবে তার। গত দুই বছরে জেমি ডে’র অধীনে জাতীয় ফুটবল দল ১৯টি ম্যাচ খেলেছে। এর মধ্যে বাংলাদেশ জয় পায় ৮ ম্যাচে, ৯টি হেরেছে আর দুটি ম্যাচ ড্র করেছে। জয়ের হার ৪২.১১ শতাংশ। গত ২০ বছরে কোন কোচের অধীনেই বাংলাদেশ এত ম্যাচ খেলেনি।

আগামী দুই বছরের চুক্তি শেষ করলে জেমি ডে হবেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সবচেয়ে বেশিদিন দায়িত্ব পালন করা কোচ। বাংলাদেশ ফুটবলের প্রথম বিদেশি কোচ ছিলেন জার্মানীর ওয়ার্নার বেকেনহফট। ১৯৭৮ থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন বাংলাদেশের কোচ। জেমি ডে’র মতো ফর্টিস একাডেমির ৩ ইংলিশ কোচের সঙ্গেও তিন মাস বিরতি দিয়ে নতুন করে চুক্তির বিষয়টি ভাববে বাফুফে। রবার্ট মিমস, পিটার টার্নার, রবার্টস রাইলস নামের তিনজন ইংলিশ কোচ ছিলেন বাফুফের একাডেমির দায়িত্বে। তাদের সঙ্গে বাফুফের চুক্তি শেষ হয়েছে গত ২৭ এপ্রিল।নতুন চুক্তির বিষয়ে বাফুফের সঙ্গে যোগাযোগও করেছিলেন এই তিন ব্রিটিশ কোচ। কিন্তু জুনের আগে তাদের সঙ্গে আলোচনায় আগ্রহী নয় বাফুফে। যদি তারা আবার একাডেমির দায়িত্ব নিতে চান, তাহলে জেমির মতো তাদেরও আড়াই থেকে ৩ মাস বেকার থাকতে হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ