মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

করোনায় আক্রান্ত ক্রিকেট কোচ আশিকুর ভালো আছেন

স্পোর্টস রিপোর্টা : প্রথম দিনে চেয়ে কিছুটা ভাল আছেন করোনা আক্রান্ত সাবেক ক্রিকেটার ও বর্তমানে বিসিবির ডেভেলপমেন্ট কোচ আশিকুর রহমান মজুমদার। গতকাল থেকে অক্সিজেনের প্রয়োজন হচ্ছে না আশিকুরের। নিশ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে না তেমন, কথাও বলছেন অনেকটা স্বাভাবিকভাবে। হাসপাতাল থেকে আশিক জানান,‘আছি ভাল। তবে কাশিটা একটু বাড়ছে। প্রথমদিন অক্সিজেন দিয়েছে। 

আজ (গতকাল) অক্সিজেন লাগেনি। অক্সিজেন লেভেল ৯৭ আছে। এখন শরীরে জ্বরও নেই। জ্বর আসলে পরশুদিন থেকেই নেই। তবে কাশির মাত্রা বাড়ায় চিকিৎসকরা অ্যান্টিবায়েটিক দিয়েছেন। চিকিৎসকরা বলেছেন, কাশি কমলে আবার করোনা টেস্ট করানো হবে। তবে কয়েক দিন থাকতে হবে হাসপাতালে।’ গত এক সপ্তাহ ধরে সর্দি, কাশি, জ্বরে ভুগতে থাকা আশিক বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি হন। শনিবার মুগদা হাসপাতালে আশিকের করোনা পরীক্ষা করানো হয়। রবিবার পরীক্ষার ফল পজিটিভ আসে। মঙ্গলবার বিকালে তাকে মুগদা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। আশিক লক ডাউনের শুরু থেকেই বাসাবোতে নিজের বাসায় অবস্থান করছিলেন। কিন্তু এলাকার দরিদ্র মানুষকে ত্রাণ বিতরণ করতে একাধিকবার বাইরে বের হয়েছিলেন। গত সপ্তাহে হঠাৎ বুকে ব্যথা অনুভব করেন। এছাড়া জ্বর ও কাশি থাকায় তিনি আতঙ্কিত হয়ে পড়েন, পরিবার থেকেও আলাদা হয়ে যান। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সাবেক এই পেসার বর্তমানে বিসিবির গেম ডেভেলপমেন্ট বিভাগে অস্থায়ী কোচ হিসেবে যুক্ত আছেন। 

জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সহকারী কোচও ছিলেন দীর্ঘ সময়। এছাড়া ঘরোয়া ক্রিকেটের বিভিন্ন টুর্নামেন্ট, বিসিএলে বিসিবি নর্থ জোন, ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ওল্ড ডিওএইচএস ও প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট দলের সহকারী কোচ হিসেবে যুক্ত আছেন। শেষ বিপিএলে রাজশাহী কিংসের সহকারী কোচ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০২ সালে যুব বিশ্বকাপে খেলা আশিক ১৫টি প্রথম  শ্রেণির ম্যাচও খেলেছেন। নামের পাশে আছে ১৮টি লিস্ট ‘এ’ ম্যাচ। লাল বলে ৩৬টি ও সাদা বলে ২১ উইকেট পেয়েছেন এই ডানহাতি পেসার।  খেলা ছাড়ার পর কোচিং পেশাকেই বেছে নিয়েছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ