মঙ্গলবার ০২ জুন ২০২০
Online Edition

ঢাকা উত্তরে ডিএনসিসির ৮ বুথ ॥ শুরু আগামী সপ্তাহে

স্টাফ রিপোর্টার : করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মোকাবিলায় নিজস্ব আওতাধীন এলাকায় নমুনা সংগ্রহে ৮টি বুথ স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম। এসব বুথ আগামী সপ্তাহে চালু হবে বলে জানান তিনি। সেইসঙ্গে করোনা পরীক্ষায় ডিএনসিসির উদ্যোগে পিসিআর ল্যাব চালু যায় কি না সে বিষয়েও কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন ডিএনসিসির মেয়র পদে সদ্য দায়িত্ব নেওয়া আতিক।
গতকাল বুধবার দুপুরে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ডিএনসিসির মেয়র হিসেবে দায়িত্ব নেন আতিকুল ইসলাম। দায়িত্ব গ্রহণ পরবর্তী অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে নিজ প্রতিক্রিয়া জানান আতিক। এ সময় করোনা এবং ডেঙ্গু মোকাবিলায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করবেন বলে জানান তিনি।
করোনায় বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা জানিয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় ডিএনসিসির বিভিন্ন সড়কে পথচারীদের জন্য হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওয়াটার বাউজার দিয়ে পুরো শহরে রাজপথ, অলিগলিতে জীবাণুনাশক প্রয়োগ করা হচ্ছে। ব্র্যাকের সহায়তায় আটটি বুথ স্থাপনে কাজ করছি আমরা; যেখানে করোনার নমুনা সংগ্রহ করা হবে। আগামী সপ্তাহ নাগাদ এগুলো চালু হবে। এছাড়াও পিসিআর ল্যাব চালু করার একটি উদ্যোগ নিয়েও আমরা কাজ করছি। আমাদের মহাখালী মার্কেটটি আইসোলেশন সেন্টার হিসেবে দেওয়া হয়েছে।’
ডেঙ্গু নিয়ে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘ ডেঙ্গু মোকাবিলায় ১০ মে থেকে আমাদের ভ্রাম্যমাণ আদালত কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ১৬ মে থেকে মশক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে চিরুনি অভিযান পরিচালনা করা হবে। মহাখালী কমিউনিটি সেন্টারে গণমাধ্যমকর্মী এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের ডেঙ্গু পরীক্ষা করা হবে। এছাড়াও এই সময়ে ডিএনসিসির কোনো কর্মী দায়িত্বপালনকালে করোনায় আক্রান্ত হলে তাদের জন্য বিনামূল্যে স্বাস্থ্যবীমা সুবিধা দেব আমরা। সেইসঙ্গে এসব কার্যক্রমে কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ত করা হবে।’
শপিং সেন্টারগুলো বন্ধে ডিএনসিসির মেয়র হিসেবে কোনো উদ্যোগ নিবেন কী?- এমন প্রশ্নের জবাবে আতিক বলেন, ‘আগামী সপ্তাহে শপিং সেন্টারগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করব। শপিং সেন্টারগুলোতে গ্রাহক আসে কি না সেটাও দেখতে হবে। গ্রাহক না আসলে কেন তারা নিজেদের এবং অন্যদের স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে ফেলবেন? জীবন ও জীবিকা চলবে তবে তা স্বাস্থ্যবিধি মেনেই। যে কয়টি শপিং সেন্টার খোলা আছে সেখানে সেভাবে গ্রাহক আসছে না বলে জানতে পেরেছি। তাহলে তারা কেন করবে?
সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার পাশাপাশি মেয়রের নির্বাচনি ইশতেহার বাস্তবায়ন কার্যক্রমও চালিয়ে যাবেন বলে আশা প্রকাশ করেন আতিকুল ইসলাম।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ