রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ভারতসহ ১৯ জেলার মানুষ ঢুকছে খুলনায় বাড়ছে করোনা ঝুঁকি

খুলনা অফিস : ভারত ও ঢাকাসহ ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা থেকে দলে দলে মানুষ প্রবেশ করছে খুলনায়। এ কারণে মহানগরীতে বাড়ছে করোনা ঝুঁকি। করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে খুলনা মহানগরীতে প্রবেশ ও ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হলেও বাস্তবে তার প্রতিফলন নেই। ভারত এবং দেশের ১৯টি জেলা থেকে গত ১৬ দিনে নগরীতে আসা ১৪৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।
সূত্র মতে, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য ৮ এপ্রিল মহানগরীতে প্রবেশ ও বের হওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)। নগরীর ১৬টি প্রবেশদ্বারে বসানো হয় চেকপোস্ট। এরপরও অবাধে নগরীতে প্রবেশ করছে মানুষ।
কেএমপি’র সূত্র আরো জানান, ঢাকা ছাড়াও নারায়ণগঞ্জ, মাদারীপুর, শরিয়তপুর, মানিকগঞ্জ, বরিশাল, মাগুরা, বাগেরহাট, যশোর, পিরোজপুর, রংপুর, নোয়াখালী, ময়মনসিংহ, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, টাঙ্গাইল, গাজীপুর, নড়াইলসহ খুলনা জেলার বিভিন্ন উপজেলা এমনকি ভারত থেকেও খুলনা মহানগরীতে প্রবেশ করছে মানুষ। বহিরাগতদের ইতোমধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।
এই সূত্র জানান, ২০ এপ্রিল থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত ১৭ দিনে ১৬০ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এসব ব্যক্তিদের বেশির ভাগই ঢাকা থেকে এসেছেন। আক্রান্তের দিক থেকে জেলাটি অতিমাত্রায় ঝুঁকিপূর্ণ। যার কারণে নগরীতেও দিন দিন ঝুঁকি বাড়ছে।
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শেখ মনিরুজ্জামান মিঠু জানান, করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধের জন্য ৮ এপ্রিল মহানগরীতে প্রবেশ ও বের হওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ। এরপরও অনেকে আসছেন। তারা যাতে জনসমাগম এবং এদিক-সেদিক ঘোরাফেরা করতে না পারে সে জন্য কেএমপির চেকপোস্টে চিহ্নিত করে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ