রবিবার ০৯ আগস্ট ২০২০
Online Edition

কুষ্টিয়ার শতাধিক আলেম পরিবার কষ্টে আছে

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা : করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মবিমুখ হয়ে পড়েছে কুষ্টিয়ার দরিদ্র শ্রেণির আলেম-ওলামারা। নিম্ন ও মধ্যবিত্ত আয়ের ওইসব আলেম ওলামারা একদিকে কর্মবিমুখ ও অপরদিকে কোন সহযোগিতা না পাওয়ায় অত্যান্ত মানবেতর অবস্থায় দিনাতিপাত করছে কুষ্টিয়ার ৬ উপজেলার শতাধিক আলেম পরিবার। সরকারী, বেসরকারী, কোন ব্যক্তি বিশেষেরও কোন সহযোগিতা না পাওয়ায় তারা হতাশা প্রকাশ করেছে।

জানা যায়, কুষ্টিয়ার ৬টি উপজেলার শতাধিক আলেম পরিবার করোনার শুরু থেকেই নিজ নিজ এলাকায় অবস্থান করে। অনেক আলেম, মুয়াজ্জিন, হাফেজগণ তারা মসজিদ-মাদাসায় দীনি প্রতিষ্ঠানে সেবার পাশাপাশি বাড়তি কাজ করেও আয় করতো। যে আয় দ্বারা তাদের সংসার চলতো। কিন্তু করোনার কারণে তাদের সব কর্ম বন্ধ হয়ে যায়।  কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলা, ভেড়ামারা, মিরপুর, কুষ্টিয়া সদর, কুমারখালী ও খোকসা উপজেলার শতাধিক আলেম পরিবারে চলছে চরম টানাপোড়ন।  দূর্বিসহ হয়ে উঠেছে কুষ্টিয়ার শতাধিক আলেমের পরিবার। চাকুরী ও কর্মবিমুখ ওইসব আলেমদের আয়ের পথ বন্ধ হওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে অত্যান্ত মানবেতর অবস্থায় দিনাতিপাত করছেন। সৃষ্ট পরিস্থিতির কারণে তারা না পারছে যেতে, না পারছে হাত পাততে। কারো কাছে সহযোগিতার জন্য মুখ দেখাতেও চরম কুন্ঠাবোধ ও লজ্জাবোধ করছেন। 

কুষ্টিয়ার ৬ উপজেলার ৬৬ ইউনিয়নের প্রায় শতাধিক আলেমের পরিবারে চরম দূর্দিন চলছে। শতাধিক আলেম পরিবারের তথ্য সংগ্রহ করেছেন একটি সামাজিক উন্নয়ন সংগঠন হক্কানী দরবার।   এ বিষয়ে হক্কানী দরবারের পরিচালক এম খালিদ হোসাইন সিপাহী বলেন, কুষ্টিয়ার শতাধিক আলেম উলামা পরিবারে চরম দূর্দিন চলছে। তারা অনেকেই আল্লাহর উপর ভরসা করে ঘরে বসে আছে। কর্মবিমুখ ওইসব আলেমরা কারো কাছে কোন করুনা ভিক্ষা করতে রাজী নয়। মানুষের কাছে হাত পাততেও চরম কুন্ঠাবোধ করছেন। ওইসব আলেমরা না খেয়ে মরছে তাও কারো কাছে হাত পাতছেন না। তাদের দিকে সকলেরই খেয়াল করা উচিত। ভুক্তভোগী দৌলতপুর উপজেলার এক আলেম জানান, আমরা অতিকষ্টে থাকলেও কারো চোখে পড়েনা। চারিদিকে লোকজনকে সহযোগিতা করলে আমরা তা েেক বঞ্চিত থাকি। কুমারখালীর জনৈক আলেম বলেন, আমরা লেবাসধারী হওয়ায় অনেকেই জামায়াত-শিবিরের আলেম মনে করে আমাদের সহযোগিতা করতেও ভয় পায়। অপরদিকে আলেম উলামাদের দূর্দিনের কথা তুলে ধরেছেন বাংলাদেশ জাতীয় মুফাস্সীর পরিষদের কুষ্টিয়া জেলা সভাপতি আলহাজ¦ মুফতি আব্দুল হান্নান। তিনি বলেন, এ করোনার দূর্দিনে দলমত নির্বিশেষে সকলেরই উচিত অসহায়দের সাহায্য করা। তাই তিনি দেশের বিত্তবানদের প্রতি আকুল আবেদন করেছেন সকলের যথাসাধ্য সহযোগিতা করার। করোনায় সৃষ্ট পরিস্থিতিতে কুষ্টিয়ার শতাধিক আলেম পরিবারের কষ্ট লাঘবে বিত্তবানসহ সরকারী ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ নজর দিবেন এ দাবী কুষ্টিয়ার সুশীল সমাজের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ