শুক্রবার ০৭ আগস্ট ২০২০
Online Edition

এ্যাপ’র কারণে খুলনায় ধান কেনা বন্ধ খাদ্য বিভাগের

 

খুলনা অফিস ; খুলনা জেলা প্রশাসনের উদ্ভাবিত এ্যাপে কৃষকের নিকট থেকে ধান কেনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে খাদ্য বিভাগ। অ্যাপ তৈরির কার্যক্রম শুরুও করা হয়। ২৬ এপ্রিল থেকে ধান কেনার নির্দেশনা থাকলেও এখনও পর্যন্ত এ্যাপ না পাওয়ায় কৃষকের নিকট থেকে ধান কেনা বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, চলতি বোরো মওসুমে দেশের ২২টি উপজেলা থেকে এ্যাপের মাধ্যমে কৃষকের কাছ থেকে বোরো ধান সংগ্রহ করছে সরকার। করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করে ২৬ এপ্রিল থেকে এই কার্যক্রম শুরু করার কথা। খাদ্য বিভাগের নির্ধারিত এ্যাপ না থাকায় খুলনায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উদ্ভাবিত অ্যাপের মাধ্যমে কৃষকের নিকট থেকে ধান কেনার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। কিন্তু এ্যাপ না পাওয়ায় এখনও খুলনায় কার্যক্রম শুরু করা হয়নি। গত আমন মওসুমে ধান সংগ্রহে প্রথমবারের মতো এ্যাপ পদ্ধতিতে কৃষকের নিকট থেকে ধান সংগ্রহ করে খাদ্য বিভাগ। বিভাগীয় শহর খুলনা প্রথমবারেই বঞ্চিত হয় এই সুবিধা থেকে। গত মওসুমের সফলতা নিয়ে ২০ এপ্রিল খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ্যাপে ধান সংগ্রহের জন্য অনুমোদনকৃত উপজেলাগুলোর তালিকায়ও বাদ পড়ে খুলনা জেলার নাম। এবার কৃষকদের কাছ থেকে ২৬ টাকা কেজি দরে ধান কেনা ২৬ এপ্রিল শুরু হয়ে আগামী ৩১ আগষ্ট শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। খুলনা জেলায় এবার বোরো মওসুমে ধান কেনার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭ হাজার ৯৫০ মেট্রিক টন। এ্যাপ চালু হওয়ার পর এর মাধ্যমে কৃষকদের ধান বিক্রির জন্য আবেদন করতে হবে। অ্যাপে প্রাপ্ত কৃষকদের আবেদনের তালিকা ধান সংগ্রহের উপজেলা কমিটি যাচাইবাছাই করে ধান সংগ্রহের জন্য কৃষক নির্ধারণ করবেন। নির্ধারিত কৃষকদের মোবাইল ফোনে সরকারি খাদ্য গুদামে ধান সরবরাহের জন্য এসএমএস (ক্ষুদে বার্তা) পাঠানো হবে। ক্ষুদে বার্তা পাওয়ার পরেই কৃষক তার ধান সরকারের নিকট বিক্রি করতে পারবেন। খুলনা জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মুহাম্মদ তানভীর রহমান বলেন, খুলনায় জেলা প্রশাসনের উদ্ভাবনী অ্যাপের মাধ্যমে কৃষকের নিকট থেকে ধান কেনা হবে। অ্যাপ না পাওয়ায় এখনও ধান কেনা শুরু করা হয়নি। আগামী শনিবার সম্ভবত এ্যাপ উদ্ভাবন করা হতে পারে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ