মঙ্গলবার ০৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ফিফার জরিমানার অর্থ পরিশোধ করবে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব

স্পোর্টস রিপোর্টার: ফিফার জরিমানার অর্থ পরিশোধ করবে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। তিন বিদেশি ফুটবলারের নালিশের প্রেক্ষিতে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের ওপর নতুন খেলোয়াড় রেজিস্ট্রেশনে ফিফা যে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে তা নিয়ে শঙ্কিত নয় ক্লাবটি।সাইফ পাওয়ারটেক লিমিটেডের মালিকানাধীন এ ক্লাবটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার নাসিরুদ্দিন চৌধুরী ফিফার নিষেধাজ্ঞার তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় গণমাধ্যমকে বলেছেন, ‘করোনার সমস্যা না হলে টাকাটা আমরা আগেই দিয়ে দিতাম। এখন ফিফার নির্দেশ অনুযায়ী আমরা অভিযোগকারী তিন ফুটবলারের টাকা পরিশোধ করবো। ওরা (তিন ফুটবলার) বাটপারি করেই টাকাটা নিচ্ছে। আমাদের একটা শিক্ষা হলো।’

স্লোভাকিয়ার ম্যাকো ভিলিয়াম,মন্টেনেগ্রোর সাভা গারদাসেভিচ ও সার্বিয়ার গোরান ওবরাদভিচ পুরোপুরি প্রহসন করেই এই টাকা দাবি করেছেন বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের এই শীর্ষ স্থানীয় কর্মকর্তা।তিনি বলেন, ‘আমরা যখন বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ থেকে প্রিমিয়ার লিগে উঠলাম তখন ওই সময়ের কোচ নিকোলাস কয়েকজন বিদেশি ফুটবলার এনেছিলেন ট্রয়ালে। ওই তিন খেলোয়াড়ের মান মোটেও ভালো ছিল না। তাদের আচার-আচরণও ছিল খারাপ। তারা তো একবার আমাদের এক টিম অফিসিয়ালের গায়ে হাতও তুলেছিল। ২০১৭ সালের প্রথম দিকে প্রাকমৌসুমে তারা ১ মাস ট্রেনিং করেছিল। ওদের বিষয়ে কাগজ-পত্র সই করেছিলেন ওই সময়ের কোচ নিকোলা। ওদের মান ভালো না হওয়ায় বিদায় করে দেয়া হয়। ওরা ফিফায় অভিযোগ করে।’

পুরো বিষয়টা বোঝার ভুলেই ফেঁসে গেছেন বলে উল্লেখ করেছেন ইনিঞ্জনিয়ার নাসিরুদ্দিন চৌধুরী, ‘ফিফার আইন-কানুনগুলো তখন ভালো করে ঘেঁটে দেখা হয়নি। আমরা মনে করেছিলাম অন্যান্য ক্লাব যেভাবে ট্রায়ালে খেলোয়াড় আনে, আবার বিদায় করে দেয় সেভাবেই সবকিছু হবে। কিন্তু আমরা ওদের সাথে ভালো ব্যবহার করে এই ফ্যাসাদে পড়েছি। এটা আমাদের জন্য চরম এক শিক্ষা হলো। ফিফার এক কথা-ওদের টাকা দাও। আমরা দিয়ে দেবো। আমরা জানি ওই তিন খেলোয়াড় বাটপারি করেই টাকাটা নিচ্ছে। কিন্তু কিছুই করার নেই। সবকিছু মিলিয়ে এক কোটি টাকার কিছু বেশি। ফিফা আদেশ দিয়েছে, আমরা টাকা পরিশোধ করবো। আমরা তো আর ফকির বা ভিখারি নই, তাই না? আমাদের টাকা আছে, দিয়ে দেবো।’ উল্লেখ্য, তিন ফুটবলারকে ফিফার নির্দেশনা অনুযায়ী দিতে হবে ১ লাখ ৫ হাজার ৫০০ মার্কিন ডলার। এর পাশাপাশি সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব জরিমানা গুনতে হবে ১৫০০০ সুইস ফ্রাঁ। জরিমানার অর্থটা যাবে ফিফার ফান্ডে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ