ঢাকা, শনিবার 30 May 2020, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৬ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

রাবি’র বন্ধ ক্যাম্পাসে মেইন গেটের গাছ কাটার ধুম, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

 

রাজশাহী অফিস: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি)বন্ধ ক্যাম্পাসে মেইন গেটের গাছ কাটার যেন ধুম পড়েছে। এতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।

রাবি’র প্রধান গেট থেকে শহীদ জোহা চত্বর পর্যন্ত নানা ধরনের গাছ শোভা পেতো। এতে ক্যাম্পাসের সৌন্দর্য ও পরিবেশ ভালো ছিল। এতে শিক্ষার্থীদের যেমন উপকার হতো, ঠিক তেমনি ক্যাম্পাস ছিল দৃষ্টিনন্দন। কিন্তু বন্ধ ক্যাম্পাসে গাছ কাটার যেন ধুম পড়েছে। চির চেনা সেই গাছগুলো কেটে ফেলা হয়েছে। এতে ক্যাম্পাসের সেই রূপ আর দেখা যাচ্ছে না। রাস্তার দুপাশের গাছ কেটে ফেলায় পরিবেশের সঙ্গে নষ্ট হচ্ছে এর সৌন্দর্য। তাই শিক্ষার্থীরা এর প্রতিবাদ জানিয়েছেন। সোমবার ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার’ ফেসবুক গ্রুপে এই ছবি পোস্ট করা হয়েছে। যেখানে দেখা গেছে কেটে সাবাড় করে ফেলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বে থাকা বর্তমান প্রশাসন এর আগেও ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানের গাছ কেটেছে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ সত্ত্বেও তারা গাছ কাটা থামায়নি। এভাবে চলতে থাকলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় তার আগের সৌন্দর্য হারিয়ে ফেলবে বলে মনে করছেন শিক্ষার্থীরা। প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের এ বিষয়ে জাবদিহিতার মধ্যে নিয়ে আসা প্রয়োজন বলেও মনে করেন তারা।

গাছ কাটায় শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ ও ক্ষোভ সালমান শান্ত নামের একজন ব্যাঙ্গ করে লিখেছেন, ‘সেপ্টেম্বর আসতে আসতে বৃক্ষহীন এক মরুভূমিতে পরিণত হবে রাবি ক্যাম্পাস। আসুন আমরা সকলে রাবি ক্যাম্পাসকে সাহারা মরুভূমিতে রূপান্তর করার জন্য প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানাই।’ মো. রোমিও হাসান ব্যাঙ্গ করে লিখেছেন, ‘নতুন রাবিতে সবাইকে স্বাগতম। বেশি বেশি গাছ কাটুন, করোনা রুখতে এগিয়ে আসুন। একজন প্রশ্ন রেখে বলেছেন, ‘মেইন গেট থেকে জোহা চত্বর পর্যন্ত এই গাছগুলো কেটে ফেলার কারণ কি?’ রাবি’র মনোবিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি প্রফেসর এনামুল হক ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন, “করোনার সহযোগিতায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গাছ কেটে উজাড়!!!!

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের ভিতরের গাছগুলো রাতারাতি কেটে ফেলেছে। আজ রাতে সেগুলি উধাও হয়ে যাবে ইনশাল্লাহ্! করোনায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় নির্বিঘ্নে মতিহারের সবুজ চত্বরকে মরুভূমি বানানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত প্রশাসন। আমি এর তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি । সামান্য কিছু টাকার বিনিময়ে গাছ কেটে রাবি'র ঐতিহাসিক সৌন্দর্য নষ্ট করা-----এখানে নিন্দা জ্ঞাপন করা ছাড়া অভিনন্দন জানাতে পারলাম না ! কয়টা গাছ লাগিয়েছে প্রশাসন? আমি আবারও এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে গাছ কাটা বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি রাবি প্রশাসনের কাছে।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ