ঢাকা, সোমবার 13 July 2020, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭, ২১ জিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

করোনায় বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়ালো, আক্রান্ত ২৮ লাখের বেশি

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ছাড়িয়েছে। 

জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৮ লাখের বেশি মানুষ। মারা গেছেন ২ লাখ ৬৯৮, সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ৩ হাজার জন।

গত ১১ জানুয়ারিতে করোনায় প্রথম মৃত্যু হয়েছিল। এর প্রায় তিন মাস পর গত ১১ এপ্রিল বিশ্বে মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ছাড়ায়। এর মাত্র ১৫ দিনের মধ্যেই আরও ১ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারালেন। 

শনিবার রাতে জন হপকিন্স ইউনিভার্সিটির প্রাপ্ত পরিসংখ্যান দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এর মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক প্রকোপ সহ্য হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রকে। এ নিয়ে দেশটিতে ৯ লাখ ৪৫ হাজার ২৪৯ জনের শরীরে ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে। এ সময় মারা গেছেন ৫৩ হাজার ২৪৩ জন মানুষ।

মৃতের সংখ্যায় আমেরিকার পরেই রয়েছে ইউরোপের দেশ ইতালি। নতুন ৪১৫ জনসহ দেশটিতে মারা গেছেন ২৬ হাজার ৩৮৪ জনের। দেশটিতে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে দুই হাজার ৩৫৭ জন।

মৃতের দিক থেকে তৃতীয় স্থানে থাকা স্পেনে অবশ্য ইতালির চেয়েও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। সেখানে আক্রান্ত হয়েছেন দুই লাখ ২৩ হাজার ৭৫৯ জন। আর মারা গেছেন ২২ হাজার ৯০২ জন। এছাড়া, ফ্রান্সে ২২ হাজার ৬১৪ জন, ব্রিটেনে ২০ হাজার ৩১৯, জার্মানিতে ৫ হাজার ৮০৫ মৃত্যুবরণ করেছেন।

গতবছর ডিসেম্বরের শেষদিকে চীনের উহান শহরে প্রথম কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাব দেখা যায়। মাত্র পাঁচ মাসের মধ্যেই বিশ্বের ১৮৫টি দেশে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে। একবিংশ শতাব্দীতে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় মহামারি কোভিড-১৯।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) জানায়, আগের দুই করোনাভাইরাস সার্স ও মার্সের তুলনায় কোভিড-১৯ সংক্রমণের দিক থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী।

ডব্লিউএইচও’র হিসাব অনুযায়ী, ২০০৩ সালে সার্স (সিভিয়ার অ্যাকুইটি রেসপিরেটরি সিনড্রোম) করোনাভাইরাসে মারা যান ৭৭৪ জন। মোট আক্রান্ত হয়েছিলেন ৮ হাজার ৯৮ জন।

অন্যদিকে, ২০১২ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত আরেক করোনাভাইরাস মার্সে (মিডল ইস্ট রেসপিরেটরি সিনড্রোম) মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ৪৯৪, মারা গেছেন ৮৫৮ জন।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ