ঢাকা, বুধবার 3 June 2020, ২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১০ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী
Online Edition

করোনায় যুক্তরাষ্ট্রে ২৪ ঘণ্টায় ৪৪৯১ জনের মৃত্যুর রেকর্ড

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্র করোনাভাইরাসে মৃত্যু-আক্রান্তের সর্বোচ্চ শিখর পেরিয়ে এসেছে - ট্রাম্পের এমন দাবির পরের দিনই দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে  ৪ হাজার ৪৯১ জনের মৃত্যু হয়েছে, যা একদিনে সর্বাধিক। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে এ রোগে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩২ হাজার ৯১৭।এছাড়া দেশটিতে এই মুহূর্তে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৭১৪২৫। দেশটিতে এ মহামারির কেন্দ্র নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে মারা গেছেন ১২ হাজারেরও বেশি মানুষ।

জন্স হপকিন্স ইউনিভার্সিটির পরিসংখ্যানের বরাত দিয়ে শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) এসব তথ্য জানায় সংবাদমাধ্যম সিএনএ এবং এনডিটিভি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট আরো ঘোষণা করেছিলেন, মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যা কমে যাওয়ায় ধাপে ধাপে লকডাউন তুলে নেয়া হবে। কিন্তু মৃত্যুর এই পরিসংখ্যানের পরে হোয়াইট হাউসকে এ নিয়ে নতুন করে ভাবনা-চিন্তা করতে হতে পারে বলেই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

এর আগে নিউইয়র্ক সিটি জানায়, করোনা ভাইরাসে মৃতের সংখ্যায় আরও ৩ হাজার ৭৭৮ ‘সম্ভাব্য কোভিড-১৯’ মৃত্যু যোগ করছে তারা।

মার্কিন সময় অনুযায়ী বুধবার রাতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ঘোষণা করেছিলেন, মৃত্যু ও আক্রান্তের সংখ্যার সর্বোচ্চ শিখর পার করে আসার পর এ বার লকডাউন তোলার পালা। রাজ্যগুলির গভর্নরদের সঙ্গে কথা বলে ধাপে ধাপে লকডাউন তোলার প্রক্রিয়া শুরু হবে। শিথিল করা হবে লকডাউনের নিয়মকানুনও। কানেক্টিকাটের গভর্নর ইতিমধ্যেই লকডাউন তোলার ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু তার মধ্যে মৃত্যুর এই পরিসংখ্যান আসার পর নতুন করে উদ্বেগ বেড়েছে হোয়াইট হাউসের।

বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) রাত পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ এবং প্রতিরোধ কেন্দ্র জানায়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটিতে মারা গেছেন ৩১ হাজার ৭১ জন। তাদের মধ্যে ‘সম্ভাব্য কোভিড-১৯ রোগী’ রয়েছেন ৪ হাজার ১৪১ জন।

করোনা ভাইরাস মহামারিতে সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছেন যুক্তরাষ্ট্রে। এরপরেই রয়েছে যথাক্রমে ইতালি, স্পেন ও ফ্রান্স।

ডিএস/এএইচ

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ