মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

করোনার মতো ভাইরাস বিএনপির ঘরে রাজনৈতিকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে -ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিএনপির উদ্দেশে বলেছেন, করোনার মতো ভাইরাস আপনাদের ঘরেও রাজনৈতিকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। তাই নিজেদের ঘরের করোনাকে আগে প্রতিরোধ করুন। এরপর সরকারের ওপর দোষ চাপান।
গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে দলের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস সম্পর্কিত সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রচারপত্র বিলির আগে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এরপর কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের আশেপাশে করোনাভাইরাস নিয়ে সচেতনতার লক্ষ্যে প্রচারপত্র বিলি করেন নেতারা।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দিপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সভাপতি আবু আহম্মেদ মান্নাফী, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচিসহ সহযোগী সংগঠনের নেতারা।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি গতকালও বলেছি যে, করোনা ইস্যুতে সতর্কতা বা প্রস্তুতিতে সরকারের পক্ষ থেকে সামান্য কোনো ঘাটতিও নেই। বিএনপি নালিশের খাতিরে, অভিযোগের খাতিরে কথা বলছে। সব কিছুতেই তারা রাজনৈতিক ইস্যু খোঁজার পায়তারা করছে। এটাই এখন তাদের রাজনীতি।’
সরকার যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন করে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমরা বিএনপিকে অনুরোধ করব, সরকারের ঘাড়ে দোষ চাপানোর আগে নিজেদের ঘর সামলান। আপন ঘরেই আপনাদের সমস্যা।’
তিনি আরও বলেন, ‘আপনার আজ কথায় কথায় বলছেন একনায়কতন্ত্র, স্বৈরতন্ত্র ও ফ্যাসিবাদ। আপনারাই দেশে একনায়কতন্ত্র ও ফ্যাসিবাদ কায়েম করতে চেয়েছিলেন বলে জনগণ আপনাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। জনগণ শেখ হাসিনার সরকারকে নেতৃত্বে এনে দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে দিয়েছে। এই দেশে আজ মুক্তিযুদ্ধের শক্তি সাংগঠনিকভাবে এগিয়ে যাবে।’
মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির সঙ্গে যারা পৃষ্ঠপোষকতা করছে, যারা জঙ্গিবাদকে পৃষ্ঠপোষকতা করছে, সেই শক্তি ক্রমেই সংকুচিত হচ্ছে। তারা দুর্বল হচ্ছে এবং নিজেরা হতাশার আবর্তে নিক্ষিপ্ত হচ্ছে বলে দাবি করেন ওবায়দুল কাদের।
মহামারি ঘোষণার পর সার্ক দেশগুলোর মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যৌথ উদ্যোগে একটা প্রস্তাব এসেছে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে- বিষয়টা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এরই মধ্যে আমাদের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে সাড়া দিয়েছে। যৌথ উদ্যোগে সাড়া দিতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। আমরা যতটুকু জানি পাকিস্তান এখনও সাড়া দেয়নি। সে কারণে এখনও বিষয়টি আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে। এখনও বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় যায়নি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ