মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

করোনা ভাইরাসের নতুন কেন্দ্রস্থল ইউরোপ

# ইতালিতে ২৪ ঘণ্টায় ২৫০ জনের মৃত্যু # করোনা ভাইরাসকে বিপর্যয় ঘোষণা ভারতের # ইরানে বিপ্লবী গার্ডের সিনিয়র কমান্ডারের মৃত্যু # ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় কারফিউ জারি
স্টাফ রিপোর্টার : বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের নতুন কেন্দ্রস্থল চীনকে ছাপিয়ে ইউরোপ হয়ে উঠেছে বলে মনে করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। মানুষের জীবন বাঁচাতে বিশ্বের দেশগুলোকে আরও কড়াকড়ি ব্যবস্থা নেয়া, সামাজিক পদক্ষেপ আর সামাজিকভাবে দূরত্ব তৈরির তাগিদ দিয়েছেন সংস্থাটির প্রধান টেড্রোস অ্যাধানম ঘেব্রেইয়েসাস। বেশ কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ এর মধ্যেই জানিয়েছে যে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। প্রতিদিনের সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত বা মৃত্যুর তালিকায় শীর্ষে রয়েছে ইতালি। সেখানে ২৪ ঘণ্টায় ২৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ইতালিতে সব মিলিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২৬৬ জন, আর আক্রান্ত হয়েছে ১৭৬৬০জন।
স্পেনে শুক্রবার মারা গেছেন ১২০জন আর আক্রান্ত হয়েছে ৪২৩১জন। শনিবার থেকে পরবর্তী দুই সপ্তাহের জন্য দেশ জুড়ে সতর্কাবস্থা জারি করতে যাচ্ছে দেশটি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, ১২৩টি দেশের মধ্যে ১৩২৫০০ ব্যক্তিকে কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত বলে শনাক্ত করা হয়েছে। মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজারের বেশি। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী ''রোগটির কেন্দ্রস্থল চীনে প্রতিদিন যত জন নতুন রোগী পাওয়া যাচ্ছে, তার চয়ে বেশি পাওয়া যাচ্ছে ইউরোপে।''
স্পেন ও ইতালির বাইরে ফ্রান্স জানিয়েছে, তাদের দেশে ২৮৭৬জন রোগী শনাক্ত হয়েছে এবং ৭৯ জন মারা গেছে। জার্মানিতে ৩০৬২ জন রোগী পাওয়া গেছে এবং পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। যুক্তরাজ্যে ৭৯৮জন রোগী শনাক্ত হয়েছে এবং ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিদেশিদের জন্য সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে ডেনমার্ক, চেক রিপাবলিক, শ্লোভাকিয়া, অস্ট্রিয়া, ইউক্রেন, হাঙ্গেরি এবং পোল্যান্ড। বেলজিয়াম, ফ্রান্স, সুইজারল্যান্ড ও জার্মানির একাংশে স্কুল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। অনেক দেশ সমাবেশ বন্ধের পাশাপাশি থিয়েটার, রেস্তোরা এবং বার বন্ধ করে দেয়ার মতো পদক্ষেপ নিচ্ছে। প্যারিসের লুভ জাদুঘর এবং আইফেল টাওয়ারে শুক্রবার থেকে দর্শনার্থী প্রবেশ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্তে হয়ে মারা গেছেন ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর (আইআরজিসি) জ্যেষ্ঠ কমান্ডার নাসের শাবানি। শুক্রবার ইরানের শীর্ষ এই কমান্ডার মারা গেছেন বলে আইআরসিজি নিশ্চিত করেছে। আইআরসিজির মুখপাত্র রামিজান শরিফ বলেছেন, এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশটির বিপ্লবী এই গার্ড বাহিনীর অন্তত পাঁচ সদস্য মারা গেছেন। এছাড়া করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত দেশটির সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের অন্তত ১৩ কর্মকর্তা প্রাণ হারিয়েছেন। শুক্রবার পর্যন্ত ইরানে করোনায় প্রাণ গেছে ৫১৪ জনের এবং সংক্রমিত হয়েছেন মোট ১১ হাজার ৩৬৪ জন। সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৫২৯ জন। গত ৩৭ বছর ধরে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীতে কর্মরত ছিলেন কমান্ডার নাসের শাবানি। এই সময়ে ইরানের সামরিক বাহিনীর অভিজাত এই শাখার বিভিন্ন উচ্চপদে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। ইরানে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে দেশটির বেশ কয়েকজন রাজনীতিক ও সরকারি কর্মকর্তা মারা গেছেন। দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির দু'জন উপদেষ্টা বর্তমানে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। এছাড়া দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির ফার্স্ট ডেপুটি এসহাক জাহাঙ্গীরি, একাধিক মন্ত্রী ও এমপি করোনা সংক্রমিত হয়েছেন।
এদিকে নভেল করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার ঘটনাকে ‘অবহিত বিপর্যয়’ ঘোষণা করেছে ভারত সরকার। ভাইরাসটিতে সংক্রমিত এবং আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারানো ব্যক্তিদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ এবং সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে এই পদক্ষেপকে ‘একটি বিশেষ এককালীন ব্যবস্থা’ বলা হয়।
ভাইরাসটির সংক্রমণ স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থা নয় এবং এটা নিয়ে আতঙ্ক ছড়ানোর ব্যাপারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয়র কর্মকর্তারা গণমামাধ্যমে ব্রিফিং করার পর এই ঘোষণা করা হলো। এখন এই ঘোষণার কারণে প্রত্যেকটি রাজ্যে দুর্যোগ মোকাবিলা তহবিল (এসডিআরএফ) থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের অর্থ বরাদ্দ করা হবে।
দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চিঠি অনুযায়ী, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারানো ব্যক্তিদের ৪ লাখ ভারতীয় রুপি প্রদান করা হবে। এছাড়া কোভিড-১৯ নামের এই রোগে আক্রান্ত হয়ে যারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তাদের চিকিৎসার জন্য কত করে বরাদ্দ করা হবে তা নির্ধারণ করবে রাজ্য সরকার।
এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও কোয়ারেন্টাইন শিবিরে থাকা ব্যক্তিদের অস্থায়ীভাবে থাকা, খাওয়া, পানি, পোশাক এবং চিকিৎসা সুবিধা প্রদান করবে সরকার। অতিরিক্ত পরীক্ষাকেন্দ্র এবং পুলিশ, চিকিৎসাকর্মী এবং নগর কর্তৃপক্ষের সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনতে তহবিল ব্যবহার হবে।
এছাড়া সরকারি হাসপাতালে থার্মাল স্ক্যানার এবং প্রয়োজনীয় অন্যান্য জিনিসপত্র কেনার অর্থও আসবে এই দুর্যোগ মোকাবিলা তহবিল থেকে। সরকার আরও জানিয়েছে, এসব ব্যয়ের জন্য অর্থ উত্তোলন করা হবে শুথু রাজ্যের তহবিল থেকে, জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা তহবিল থেকে নয়।
তবে তহবিলের বার্ষিক বরাদ্দের ১০ শতাংশের বেশি ব্যয় করে এসব সামগ্রী কেনা যাবে না। প্রসঙ্গত, চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে ভারতে এখন ৮৪ জন আক্রান্ত। আজ একজনসহ মৃত্যু হয়েছে দুজনের। ভাইরাসটির বিস্তার ঠেকাতে দেশটি আরও বেশ কিছু সতর্কতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।
করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলায় কারফিউ জারি করা হয়েছে। মেট্রো ম্যানিলার ১৬টি শহরে শনিবার রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। একই সঙ্গে বিভিন্ন শপিংমলগুলোকে এক মাসের জন্য বন্ধ রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে।
করোনাভাইরাসের প্রকোপ কমাতেই এমন ঘোষণা দেয়া হয়েছে। দেশটিতে নতুন করে ছয়জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ফলে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৬৪। অপরদিকে দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছে ছয়জন।
দেশের স্বাস্থ্যগত জরুরি অবস্থাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট রোদ্রিগো দুতের্তে। তিনি রাজধানীজুড়ে কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থা জারি করেছেন। ফিলিপাইনে বর্তমানে ১ কোটি ২০ লাখ মানুষের বসবাস।
এক সংবাদ সম্মেলনে মেট্রোপলিটন ম্যানিলা ডেভেলপমেন্ট অথরিটির মহাব্যবস্থাপক জোসে আরতুরো গার্সিয়া বলেন, ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে আমাদের লোকজনের চলাচলে সীমাবদ্ধতা আনতে হবে। মেট্রো ম্যানিলায় আমরা লোকজনের চলাচল কমিয়ে আনছি।
দেশটিতে রোববার থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি হচ্ছে। সে কারণে ইতোমধ্যেই রাজধানীর লোকজনকে বাস স্টেশন এবং বিমানবন্দরে ভিড় জমাতে দেখা গেছে। প্রেসিডেন্ট রোদ্রিগো দুতের্তে বৃহস্পতিবার স্থল ও আকাশপথে ভ্রমণের ওপর কড়াকড়ি আরোপ করেছেন। আগামী রোববার থেকে তা চালু হবে। একই সঙ্গে তিনি আগামী ১২ এপ্রিল পর্যন্ত সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছেন।
রাত্রিকালীন কারফিউ শুরু হবে রোববার এবং তা আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত জারি থাকবে। সব ধরনের মল এবং শপিং সেন্টার বন্ধ রাখার ঘোষণা দেবে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। তবে প্রয়োজনী জিনিস যেমন, মুদি দোকান, ব্যাংক এবং ফার্মেসি এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।
শনিবার নতুন করে আরও একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ফিলিপাইনের স্বাস্থ্য দফতর। ফলে দেশটিতে এখন পর্যন্ত ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ