বৃহস্পতিবার ২৬ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের স্পন্সর ওয়ালটন

স্পোর্টস রিপোর্টার : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে তার নামেই মাঠে গড়াবে ঢাকা প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগের (ডিপিএল) এবারের আসর। আজ তিনটি ভেন্যুতে ছয়টি দল মাঠে নামবে। আগের আটবারই স্পনসর ছিল ওয়ালটন, এবারও লিগের পৃষ্ঠপোষক তারা। গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সকাল ৯টায় বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর সঙ্গে মুখোমুখি হবে প্রথম বিভাগ থেকে উঠে আসা পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাব। একইদিন প্রাইম  দোলেশ্বর স্পের্টিং ক্লাব খেলবে ব্রাদার্স ইউনিয়নের সঙ্গে। বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে লিজেন্ড অব রূপগঞ্জ লড়বে ওল্ডডিওএইচএসের বিপক্ষে। গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে বঙ্গবন্ধু ডিপিএলের স্পনসর হিসেবে ওয়ালটন গ্রুপের নাম ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী, ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক উদয় হাকিম, অতিরিক্তি পরিচালক মিলটন আহমেদ এবং সিসিডিএমের সমন্বয়ক আলী হোসেন। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে এ বছর আমাদের মূল ইভেন্টগুলো বঙ্গবন্ধুর নামে করছি। তাই এবারের ঢাকা লিগের নাম বঙ্গবন্ধুর নামে, যেটা ওয়ালটন গ্রুপ স্পনস করছে।’ ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক উদয় হাকিম বলেন, ‘মুজিববর্ষে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ বঙ্গবন্ধুর নামে করায় ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে বিসিবিকে ধন্যবাদ। 

বিষয়টি আমাদের কাছে অত্যন্ত সময় উপযোগী মনে হয়েছে। বরাবরের মতো এবারও ওয়ালটনকে টুর্নামেন্টের স্পনসর হিসেবে সুযোগ দেওয়ার জন্য ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ।’ আন্তর্জাতিক অনেক টুর্নামেন্ট বাতিল হলেও বিভিন্ন দেশ এখনও ঘরোয়া খেলাগুলো চালিয়ে যাচ্ছে। বিসিবিও ঢাকা লিগের মধ্য দিয়ে ঘরোয়া ক্রিকেট লিগ চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে খেলা চালিয়ে গেলেও করোনাভাইরাস নিয়ে সতর্ক বাংলাদেশ ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থার। গতকাল সন্ধ্যায় গুলশান ইয়ুথ ক্লাব মাঠে সংবাদমাধ্যমকে বোর্ড প্রধান নাজমুল হাসান বলেছেন, ‘ঘরোয়া ক্রিকেটের খেলা অনেক জায়গাতেই চলছে। আমাদেরও চলবে, তবে দর্শকশূন্য হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। ক্লাবগুলো  খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলে কোনও সমস্যা যদি মনে করে আর সরকার থেকে কোনও বাধা আসে তাহলে আমরাও নতুন করে সিদ্ধান্ত নেবো।’ বিসিবি সভাপতি একটি নতুন কথা বলেছেন। সরকার থেকে যদি লিগ চালানোয় কোনোরকম নিষেধাজ্ঞা চলে আসে, তখন অবশ্যই তা বন্ধ করে দেয়া হবে। পাপন বলেন,‘ঘরোয়া পর্যায়ের  খেলা অনেক জায়গায় চলছে। এটা কিন্তু দেশের বাইরেও চলছে। কারণ এটা দর্শকশূন্য হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। মূল চিন্তার জায়গা হচ্ছে দর্শক ও প্লেয়ারদের। তারপরেও ক্লাব ও প্লেয়ারদের সঙ্গে কথা বলে যদি কখনও আমাদের মনে হয়...এছাড়া সরকার থেকে কোনো নিষেধাজ্ঞা আসে, তাহলে আমরা সে মোতাবেক সিদ্ধান্ত নেবো।’ ক্রিকেটারদের দিয়ে করোনা সচেতনতার বার্তা দেয়া যায় কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে পাপন বলেন, ‘আমার ধারণা এটা হবে। যেহেতু এখন পর্যন্ত এটা সরকার করছে, কাজেই সরকারকে করতে দেই আমরা। এরপরে যখন যার সাহায্য সহযোগিতা লাগবে আমরা করব।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ