মঙ্গলবার ২৪ নবেম্বর ২০২০
Online Edition

প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে ‘হ্যান্ডশেক হাইফাইভ’ নিষিদ্ধ

স্পোর্টস রিপোর্টার: করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যে আজ থেকে মাঠে গড়াচ্ছে দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে প্রতিদ্বন্ধীতাপূর্ণ আসর ‘প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ।’ এ বছর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে লিগটির নামকরন করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ।’ লিগের উদ্বোধনী দিন মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন আবাহনী লিমিটেড মুখোমুখি হবে পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবের। বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে লড়বে লিজেন্ডস অব রুপগঞ্জ ও ওল্ড ডিওএইচএস। দিনের আরেক ম্যাচে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে প্রাইম দোলেশ্বরের প্রতিপক্ষ ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ইতিমধ্যে করোনাভাইরাসের প্রভাবে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন ক্রীড়া ইভেন্ট বন্ধ হয়ে গেছে। তবে আজ থেকে নির্ধারিত দিনেই শুরু হচ্ছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল)। ডিপিএলের ম্যাচগুলোতে খুব একটা দর্শক সমাগম হয় না বলে স্থগিতের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এদিকে, খেলা চালানোর জন্য যথাযথ পদক্ষেপও নেওয়া হয়েছে। তবে করোনাভাইরাসের কারণে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে হ্যান্ডশেক বা হাই-ফাইভের ব্যাপারে ক্রিকেটারদের নিরুৎসাহিত করা হয়েছে। গতকাল আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন জানিয়ে দিয়েছেন, প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগ আয়োজন করলেও বিসিবি ও সিসিডিএম করোনা ভাইরাস নিয়ে ভীষণ সতর্ক এবং ভাইরাস যাতে সংক্রমিত হতে না পারে সেজন্য সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগও নেয়া হয়েছে। এবং প্রতিটি ক্লাব এবং সকল ক্রিকেটারকে জানিয়ে দেয়ার কথাও বলেছেন। এর মধ্যে ক্রিকেটারদের খেলা চলাকালীন হ্যান্ডশেক, হাই ফাইভ-এর ব্যাপারে সরাসরি নিষেধাজ্ঞা জারি না হলেও সেগুলোকে নিরুৎসাহিত করার কথাও তিনি জোর দিয়ে বলেছেন। বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদদ্দীন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘আমাদের কিছু পরামর্শ আছে বিসিবি ও সিসিডিএম টিমগুলোর প্রতি। করোনা ভাইরাসকে বিবেচনায় রেখে সরকার যে সমস্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে ও মেডিক্যাল অ্যাডভাইজরি দিচ্ছে, সেগুলো আমরা অনুসরণ করব। আমরা এরই মধ্যে ক্লাবগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করেছি এবং আজ একটি টিম মিটিং আছে। বিসিবি থেকে এটা নিশ্চিত করা হবে যদি কোনো খেলোয়াড় বা অফিসিয়াল সামান্যতম অসুস্থ বা লক্ষণ দেখা যায়, তাৎক্ষণিক যেন বিসিবির মেডিক্যাল টিম এবং ক্লাবকে জানায়। ক্লাব যেন আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে। আমরা সেই অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।' বিসিবি সিইও যোগ করেন, ‘এর বাইরে হ্যান্ডশেকের যে রীতি আছে, সেটা কিভাবে মিনিমাইজ করা যায়, সে কথাও বলা হয়েছে। গতকালের সভায় তা আবারো বলা হবে। আমরা যেহেতু অভ্যস্ত হয়ে আছি, সেই বিষয়টি মাথায় রেখে এখন যেটা প্র্যাকটিস হচ্ছে সবদিক বিবেচনা করে আমরা নিরুৎসাহিত করব হ্যান্ডশেক। এ রকম বিষয়গুলো দলগুলোকে দিয়ে দেন যেন তারা মেনে চলে।’ নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন বোঝানোর চেষ্টা করেন, জাতীয় দলের বা আন্তর্জাতিক ম্যাচে এখন যত বেশী দর্শক মাঠে আসেন, ক্লাব ক্রিকেটে অত দর্শক হয় না। তাই তাদের চিন্তা তুলনামূলক কম। এ কারণেই মুখে এমন সংলাপ,‘দর্শকদের ব্যাপারে যেটা বলা হয়েছে সেটা আমাদের আন্তর্জাতিক ম্যাচে বিবেচনার বিষয় ছিল। এ ম্যাচে হয়তো ওত বাধ্যবোধকতার প্রয়োজন হবে না। তারপরও আমরা বিষয়টিকে গুরুত্ব সহকারে দেখব।’ প্রিমিয়ার লিগের ১০টি ক্লাব গতকাল অনুশীলন করেছে একাডেমি মাঠে। দুপুরের পর একাডেমিতে আসেন প্রাইম ব্যাংকের তামিম ইকবাল। দেশসেরা ওপেনার মাঠে ঢুকে কারো সাথে হ্যান্ডশেক করেননি। ডান কিংবা বামহাতের এলবো মিলিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। দলের সতীর্থ, বন্ধু, কোচিং স্টাফ কিংবা গণমাধ্যমকর্মী যার সঙ্গে দেখা হচ্ছে তার সঙ্গেই করছেন এলবোশেক। সরাসরি তার কাছেই জানতে চাওয়া হয়েছিল বিষয়টি নিয়ে। হাসিমুখে উত্তর দিয়েছেন তামিম। ‘হ্যান্ডশেক যত কম করা যায়। আমাদের সংস্কৃতিতে এটা শুনলে খুব বেশি  লোক হয়ত পছন্দ করবে না। কিন্তু পরিস্থিতিই এরকমৃ হ্যান্ডশেকের আরও অন্য উপায় আছে। এলবোশেক!’ বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিম ইকবাল এবার প্রাইম ব্যাংকের হয়ে খেলবেন। তিনি জানান, বিসিবির নির্দেশনা অনুযায়ী করমর্দন না করার সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন তারা।  তিনি বলেন, ‘এটি একটি স্বাভাবিক বিষয়, তবে এ বছর আমরা করমর্দন এড়িয়ে চলার চেষ্টা করবো।’ করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেও ক্রিকেটের দিকেই মনোযোগি হবার আভাস দিলেন তামিম। তিনি বলেন,‘বিসিবি আমাদের অভিভাবক এবং আমি নিশ্চিত, তারা আমাদের জন্য সর্বোত্তম পদক্ষেপই নিবে। আমাদের জন্য ক্ষতিকর এমন কোন সিদ্বান্ত তারা নিবে না।’ এবারের বঙ্গবন্ধু ডিপিএলের টাইটেল স্পন্সর শীর্ষস্থানীয় কর্পোরেট কোম্পানি ওয়ালটন। গতকালএক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষনা দেয় বিসিবি।   ওয়ালটনের নির্বাহি ডিরেক্টর উদয় হাকিম বলেন, ‘বিসিবি যেহেতু গ্যালারিতে জনসমাবেশ রাখছে না। তারপরও লিগটি সঠিক সময়ে শুরু হচ্ছে। কারন এসময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশের কোন খেলা নেই। তাই আমরা লিগে সকল তারকা ক্রিকেটারকেই পাচ্ছি।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ