বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২১
Online Edition

চলতি বাজেটের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী বিভিন্ন ধরনের আইন করতে যাচ্ছি -অর্থমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, চলতি বাজেটের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আমরা বিভিন্ন ধরনের আইন করতে যাচ্ছি। তবে আমরা করতে চাই একরকম; প্রচার হয় অন্যরকম। এতে মানুষের মাঝে দুশ্চিন্তা বাড়ে, জনগণ হাতাশাগ্রস্ত হয়। এদিকে যাত্রাবাড়ী থেকে ডেমরা মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করতে ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করেছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৩২ কোটি ১২ লাখ টাকা।
গতকাল বুধবার সচিবালয়ে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এদিন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে বৈঠকে এ সংক্রান্ত প্রস্তাবের অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকে কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
খেলাপি ঋণ আদায়ে কোনো করপোরেশন করা হচ্ছে কি না জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, এটা করবো বলে বাজেটে বলা হয়েছে। বাজেটে যেসব আইন করবো বলেছি সে আইনগুলো করা হবে। কিন্তু আমরা একরকম বলি, আপনারা আরেক রকম বলেন। এতে মানুষের মাঝে দুশ্চিন্তা বেড়ে যায় এবং আমার মনে হয় তারা অনেকেই হাতাশাগ্রস্ত হয়ে যায়।
গণমাধ্যমের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমার মনে হয়, আমাদের আরও চিন্তা করে সুচিন্তিত মতামতগুলো প্রচার করা উচিত। কারণ আপনারা যা প্রকাশ করেন সেগুলো জনগণের কাছে চলে যাচ্ছে। জনগণ যদি সঠিক তথ্য না জানে, সেটা সরকারের জন্য সমস্যা, দেশের মানুষের জন্য সমস্যা।
অর্থমন্ত্রী বলেন, বলে দেয়া হলো ব্যাংক কমিশন গঠন করা হয়ে গেছে। কমিশনের চেয়ারম্যানের নামও বলে দেয়া হলো, এগুলো তো ঠিক নয়। এভাবে একটার পর একটা জটিলতা চলছে। ব্যাংক কমিশন করব, অবশ্যই করব। তবে কবে করব সময় লাগবে।
তিনি বলেন, আমি বাজেটে বলেছি, এমন কিছু করব না যাতে কারও ওপর বাড়তি চাপ পড়ে। আমি এ-ও বলেছিলাম, যদি সম্ভব হয় টাক্সের আওতা বাড়াব কিন্তু ট্যাক্সের হারটা কমাব। যদি হার কমাতে না পারি তাহলে বাড়াব না অন্তত।
সাংবাদিকদের উদ্দেশে অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনারা কি ন্যায়বিচার চান? আইন-কানুন থাকুক- এটা চান তো? দীর্ঘদিন থেকে যেখানে যেখানে আমাদের সমস্য হচ্ছিল, ধীরে ধীরে আমরা এ থেকে বেরিয়ে আসতে চাচ্ছি। দেশের অর্থনীতি যতটা বড় হয়েছে, এখন আমাদের পেছনে তাকানোর সময় নেই। সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি করব। তার জন্য বিভিন্ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান, এমডিদের মতামত নিচ্ছি।
ব্যাংক খাতে লুটপাটের প্রতিবাদে বাম দলগুলো আজকে বাংলাদেশ ব্যাংক ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেছে। এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে ব্যাংকে বাম দল যাবে, বাম দলের তো টাকা-পয়সার দরকার নেই। কী মুশকিল! ওরা ওখানে যাবে কেন?
এদিকে যাত্রাবাড়ী থেকে ডেমরা মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করতে ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন করেছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৩২ কোটি ১২ লাখ টাকা।
মন্ত্রী বলেন, যাত্রাবাড়ী (মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার)-ডেমরা (সুলতানা কামাল সেতু) মহাসড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ প্রকল্পে পূর্তকাজ সম্পাদনের জন্য সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান তমা কন্সট্রাকশনকে অনুমোদন করা হয়েছে। এ কাজে ব্যয় হবে ৩৩২ কোটি ১২ লাখ ৬৩ হাজার টাকা।
সভায় ই-জিপি রিলেটেড ট্রেনিং কার্যক্রম বাস্তবায়নে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে দোহাটেক নিউ মিডিয়াকে নিয়োগের চুক্তি স্বাক্ষরের প্রস্তাবে সায় দেয়া হয়। এতে খরচ হবে ৪০ কোটি ১১ লাখ টাকা। সড়ক ও জনপদ অধিদফতরের আওতায় ধলেশ্বরী কম্পিউটারাইজড টোল প্লাজা করা হবে। এখানে আগে যা ছিল তার থেকে সামান্য কিছু (আট কোটি ১৯ লাখ ৯৫ হাজার টাকা) বাড়ানো হয়েছে। এটি ভেরিয়েশন প্রকল্প। সব মিলিয়ে মোট ব্যয় হবে ৩৬ কোটি ১০ লাখ টাকা। এ ছাড়া বৈঠকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পের ফিজিবিলিটি স্টাডি সম্পন্নকরণ, প্রকল্পের ড্রইং, ডিজাইন ও টেন্ডার ডকুমেন্ট প্রণয়ন কাজের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫০ কোটি ৯৩ লাখ ৮০ হাজার ৩৩০ টাকা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ