মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০
Online Edition

গাজার খান ইউনিসে এক ফিলিস্তিনিকে হত্যার পর লাশ বুলডোজার দিয়ে পিষে দিয়েছে বর্বর ইসরাইলি বাহিনী

২৪ ফেব্রুয়ারি, রয়টার্স, ওয়াকা, আলজাজিরা : গাজার খান ইউনিসে এক ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যার পর মৃতদেহ বুলডোজার দিয়ে পিষে দিয়েছে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী। রোববার সকালে ফিলিস্তিনের গাজা-ইসরাইল সীমান্তে ফিলিস্তিনের কয়েক জন নাগরিকের ওপর গুলি করলে ওই ব্যক্তি শহীদ হন। এই ঘটনায় আরও কয়েক জন আহত হন।

এরপর ওই ফিলিস্তিনির মরদেহ বুলডোজার দিয়ে পিষে দিতে দেখা যায় এক ভিডিওতে।ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন ফিলিস্তিনের নাগরিক নিহত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করতে যায়। কিন্তু হঠাৎ করেই ইসরাইলি বাহিনী বুলডোজার নিয়ে গাজা উপত্যকার ভেতরে ঢুকে পড়ে। এরপর শহীদের মরদেহ বুলডোজার দিয়ে গুঁড়িয়ে দিতে থাকে।

ফিলিস্তিনিরা লাশ উদ্ধার করার চেষ্টা করলেও পারেন নি। তবে আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করেন তারা। আর লাশটি থেতলে দিয়ে সেটি বুলডোজারে তুলে নিয়ে চলে যায় ইসরাইলি বাহিনী। এসময় কয়েকজন ফিলিস্তিনিকে ঢিল ছুড়তে দেখা যায়।

বর্ণবাদী ইসরাইলি সেনাবাহিনী ওই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। গাজার প্রতিরোধ সংগঠন ‘ইসলামি জিহাদ’ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, শহীদের রক্তের বদলা নেওয়া হবে। চরম প্রতিশোধের হুমকি দিয়েছে সংগঠনটি।

হামাসের মুখপাত্র ফাওজি বারহুম বলেছেন, যাকে শহীদ করা হয়েছে তার হাতে কোনো অস্ত্র ছিল না। তাকে হত্যা করে জঘন্য অপরাধ করেছে ইসরাইলিরা। তার নাম মোহাম্মদ আকস আল নাইম (২৭) বলে জানায় তারা।

গাজা ও সিরিয়ায় ইসলামিক জিহাদের অবস্থানে ইসরাইয়েলি হামলা : রকেট নিক্ষেপের জবাবে গাজা ও সিরিয়ায় ফিলিস্তিনি জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক জিহাদের অবস্থানে বিমান হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী।

রোববার সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের দক্ষিণাংশে এবং গাজা ভূখ-ে ইসলামিক জিহাদের অবস্থানগুলোতে এসব হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে তারা।

বার্তা সংস্থা জানায়, সিরিয়ায় হামলা চালানো নিয়ে বিরল এক স্বীকারোক্তি দিয়ে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী বলেছে, “ইসলামিক জিহাদের তৎপরতার কেন্দ্রস্থলগুলোকে লক্ষ্যস্থল করা হয়েছে।”

সিরিয়া জানিয়েছে, তাদের বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনী অধিকাংশ ইসরায়েলি ক্ষেপণাস্ত্র গুলি করে নামিয়েছে।

ইসরায়েলের হামলার পর তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া না গেলেও গাজায় চার জন আহত হওয়ার কথা জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি ভূখ-টির স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা। গত রোববার সকালে গাজা ভূখ- থেকে ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলে অন্তত ২০টি রকেট নিক্ষেপ করার পর ইসরায়েল পাল্টা হামলা চালায় বলে বার্তা সংস্থাটি জানিয়েছে। রকেট হামলায় ইসরায়েলে কেউ হতাহত হয়েছে বলে কোনো খবর হয়নি।

ইসরায়েল গাজা ভূখ-ের সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ার কাছে ইসলামিক জিহাদের এক সদস্যকে হত্যা করার পর ঘটনার সূত্রপাত। ইসলামিক জিহাদের ওই সদস্য সীমান্তে বোমা পাতার উদ্যোগ নিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছে ইসরায়েল। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে শেয়ার হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, একটি ইসরায়েলি বুলডোজার দ্রুত ওই ব্যক্তির মৃতদেহ তুলে নিয়ে যাচ্ছে। ভিডিওটি ফিলিস্তিনিদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়ে দেয়।

এর বদলা নেওয়ার দাবি তুলে কিছু ফিলিস্তিনি আর এর কয়েক ঘণ্টা পরই গাজা থেকে ইসরায়েলের উদ্দেশ্যে রকেট ছোড়া হয়। এ সময় ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলে রকেট হামলার সতর্ক সংকেত বেজে ওঠে।  

রকেট হামলার দায় স্বীকার করে ইসলামিক জিহাদ জানায়, গাজা সীমান্তে তাদের এক যোদ্ধাকে হত্যার জবাবে রকেট হামলা চালানো হয়েছে।

ইরান সমর্থিত ইসলামিক জিহাদ গাজার অন্যতম শক্তিশালী সশস্ত্র গোষ্ঠী। সাম্প্রতিক দশকগুলোতে হামাসের এই মিত্র গোষ্ঠীটি ইসরায়েলের সঙ্গে বেশ কয়েকটি যুদ্ধে লড়াই করেছে। ইসরায়েল নভেম্বরে গাজায় বিমান হামলা চালিয়ে ইসলামিক জিহাদের এক জ্যেষ্ঠ কমান্ডারকে হত্যার পর থেকে দুপক্ষের মধ্যে সহিংসতা উস্কে উঠেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ