শনিবার ৩০ মে ২০২০
Online Edition

পানির ফিল্টার কারখানায় সমস্যা

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা : খাবার পানিকে ঠান্ডা ও বিশুদ্ধ রাখার জন্য বেশ কার্যকর এই বিশেষ ধরনের ফিল্টার সিমেন্ট, বালু ও মোজাইক পাথর ইত্যাদির সমন্বয়ে তৈরি হলেও দামে তুলনামূলকভাবে বেশ সস্তা বলে খুব দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল এটি। মাধবপুরে উৎপাদনকৃত ফিল্টার একসময় রফতানি হত ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকাসহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে। আর দেশের মধ্যে সিলেট, টাংগাইল, কুষ্টিয়া, চাঁদপুর, গোপালগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে। কিন্তু বর্তমানে স্টিল ও এলুমিনিয়ামের জয়জয়কারে ফিল্টারের বাজার প্রায় উঠেই যেতে বসেছে। এ ছাড়া ফিল্টার তৈরির সামগ্রী সিমেন্ট, বালু, মোজাইক, মোজাইক পাথর ইত্যাদির দাম বৃদ্ধিতে উৎপাদন খরচ বহুগুণে বেড়ে যাওয়ায় অনেক ফিল্টার প্রস্তুতকারী ব্যবসায়ীরা বেছে নিচ্ছে রোজগারের ভিন্ন কোন পথ। ফলে দিনে দিনে একদিকে যেমন কমছে ফিল্টারের কদর আর ক্রমেই বিলুপ্তির পথে যাচ্ছে সম্ভাবনাময় এই ঐতিহ্যবাহী ফিল্টার শিল্প। একসময় যেখানে মাধবপুরে অহরহ চোখে পড়তো ফিল্টার কারখানা আর আজ সেখানে পুরো মাধবপুর উপজেলায় ছোট বড় মাত্র প্রায় ৩০টি ফিল্টার কারখানায় নামেমাত্র টিকে আছে। সরেজমিন দেখা যায়, এসব ফিল্টার কারখানায় কমপক্ষে পাঁচ শতাধিক লোক কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে। এদের বেশির ভাগই মহিলা শ্রমিক। কিন্তু ফিল্টারের বাজারের এই বেহাল অবস্থা দেখে তাদের অনেকেই আর আগ্রহ পাচ্ছেনা এই শিল্পের কাজের প্রতি। আর ফিল্টার তৈরির সামগ্রির মূল্যের ঊর্ধ্বগতি ও ফিল্টারের কদর দিন দিন হ্রাসের কারণে মালিকদের বেশির ভাগই এই পেশা ছেড়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে। অপরদিকে যারা এখানো জড়িত রয়েছে তারাও হিমশিম খাচ্ছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ