শনিবার ৩০ মে ২০২০
Online Edition

সড়কগুলোর অবস্থা বেহাল ১০ টিরও বেশি সেতু ঝুঁকিপূর্ণ

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা : প্রায় ৩ লাখ মানুষের বসবাস হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায়। ভৌগলিক ভাবে মাধবপুর উপজেলাটি উত্তরাঞ্চল, দক্ষিণাঞ্চল এবং পুর্বাঞ্চল এই ৩টি অঞ্চলে বিভক্ত। উপজেলার যোগাযোগ মাধ্যম টেম্পু, ম্যাক্সি ও রিকশা। তবে বেশ কিছু সড়কে পণ্যবাহী ট্রাক, ট্রাক্টর এবং বাসও চলাচল করে। উপজেলার অভ্যন্তরে প্রায় সবকটি রাস্তার অবস্থা বেহাল এবং অধিকাংশ সেতুই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। তন্মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন সড়কের প্রায় ১০টির সেতুর অবস্থা ঝুঁকিপূর্ণ। আর ঝুকিপূর্ণ এসব সেতু দিয়ে প্রতিদিন চলাচল করছে শত শত যানবাহন। ফলে প্রায়ই দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের। শাহজীবাজার-জগদীশপুর রাস্তায় বেশ কয়েকটি সেতু ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। এর মধ্যে নয়াপাড়া সায়হাম টেক্সাইল মিলের সন্নিকটে একটি সেতু আংশিক ধসে পড়লে উক্ত রাস্তাটি দিয়ে ইঞ্জিনচালিত যানবাহন চলাচল করতে পারছে না বহুদিন ধরেই। ফলে বিকল্প রাস্তা ব্যবহার করতে হচ্ছে গাড়ি চালকদের। বাঘাসুরা ইউপির সাহাপুর বাজার সংলগ্ন সেতুটির এক পাশের মাটি সরে গিয়ে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ফলে দুর্ঘটনার কবলে পড়ছে যানবাহন। শায়েস্তাগঞ্জ-ধর্মঘর রাস্তার হবিগঞ্জ গ্যাস ফিল্ড সংলগ্ন একটি সেতুর মধ্যভাগে ফাটল দিয়ে নিচের দিকে দেবে গেছে। মাধবপুর-মনতলা রাস্তায় শেউলিয়া সেতুটি অর্ধযুগ ধরেই ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে অথচ এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ সেতু। প্রতি দিন শত শত টেম্পো, ট্রাক ও ট্রাক্টর চলাচল করে এ রাস্তা দিয়ে। হরষপুর থেকে ঢাকাগামী একটি বাস প্রতিদিন দু'তিনবার ঝুঁকি নিয়ে পাড়ি দিচ্ছে উক্ত সেতুটি। এছাড়াও জগদীশপুর-নোয়াপাড়া রাস্তার সেতু, মাধবপুর পৌরসভা গঙ্গানগর এলাকার একটি সেতু ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। উক্ত ঝুঁকিপূর্ণ সেতুগুলো অচিরেই মেরামত না করা হলে যেকোন ধরনের দুর্ঘটনার আশংকা রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ