শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

একজন লেখকের সবচেয়ে ভালো বন্ধু হলেন তাঁর পাঠক  -কবি মোশাররফ হোসেন খান

০১. বইমেলায় আপনার কবিতাসমগ্র-২ প্রকাশিত হচ্ছে । এই সমগ্রের বৈশিষ্ট্য কি?

উত্তর : হ্যাঁ, পরিলেখ প্রকাশনী থেকে এবার বইমেলায় বেরুচ্ছে আমার কবিতাসমগ্রÑ২। প্রত্যেকটি কবিতা পৃথক পৃথক বৈশিষ্ট্যের অধিকারী। কবিতা মানেই তো এমনটিই হয়। আর যেহেতু এটা একটি “কবিতাসমগ্র”Ñ সুতরাং এর প্রতিটি কবিতাই ভিন্ন ভিন্ন বৈশিষ্ট্যে জারিত। সব মিলিয়ে এতোটুকু বলা যায় এই কবিতাসমগ্রটির মাঝে পাঠক কিছুটা হলেও একটি নতুন পাঠের স্বাদ অনুভব করবেন বলে আশা রাখি। তৃপ্তও হবেন বটে।  

০২. সমগ্র ছাড়া আপনার আর কোনো বই কি থাকছে মেলায়?

উত্তর : হ্যাঁ, থাকছে ইনশাআল্লাহ। এর ভেতর রয়েছে দেশজ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত আমার “শ্রেষ্ঠ গল্প”, কো-অপারেটিভ বুক সোসাইটি থেকে বেরুচ্ছেÑ “পদ্মে ভাসা পত্র” কিশোর উপন্যাস ও “সাহসী মানুষের গল্প”Ñ ৬ খন্ড। আরও দু একটি গ্রন্থ এবারের বইমেলায় হয়তো আসতে পারে।  

০৩. প্রথম কবে বইমেলায় গিয়েছেন-মনে পড়ে? 

উত্তর : ১৯৮৬ সালে। ঢাকায় আসার তিন মাস পরেই।  

০৪. সৃজনশীল লেখক তৈরিতে বইমেলার ভূমিকা কতোটুকু?

উত্তর : অবশ্য যারা সৃজনশীল লেখক তাঁরা কেবলমাত্র বইমেলার দিকে তাকিয়ে থাকেন না। বইমেলার চিন্তা করেও তাঁরা লেখেন না। তবুও যেহেতু এটা একটি গুরুত্বপূর্ণ বইমেলা, যেটা এখন বইকেন্দ্রিক একটা উৎসবে পরিণত হয়েছেÑ সে কারণে সৃজনশীল লেখকদের জন্যও একটি বাড়তি সুবিধার বিষয়-আশয় রয়ে যাওয়া স্বাভাবিক।  

০৫. পাঠকদের উদ্দেশ্যে কিছু বলুন। 

উত্তর : একজন লেখকের সবচেয়ে ভালো বন্ধু হলেন তাঁর পাঠক। সুতরাং পাঠকদের প্রতি আমার ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা চিরন্তন। আমি পাঠক বন্ধুদের প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।  

0 সাক্ষাৎকার গ্রহণ : রেদওয়ানুল হক

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ