সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

বি-বাড়িয়ায় পারাবত এক্সপ্রেসে আগুন ॥ তদন্ত কমিটি গঠন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঢাকা থেকে সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনের পাওয়ার কারে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনে প্রবেশকালে এ ঘটনা ঘটে।
খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিটসহ স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে পৌছে আধঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। তবে পাওয়ার কারে  কোন যাত্রী না থাকায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এ ঘটনার তদন্তে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।
ট্রেনের যাত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাতলপাড়ের ইমদাদুল হক জানান, ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে ঢোকার সময় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। স্টেশনে নেমে দেখি ট্রেনের পাওয়ার কারে আগুন লেগেছে।  কিছুক্ষন পরই ফায়ার সার্ভিসের লোকেরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ শোয়েব হোসেন জানান, শুক্রবার সকাল ৮টা ৩৫ মিনিটে সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে প্রবেশ করার সময় ট্রেনের মাঝখানে থাকা পাওয়ার কারে হঠাৎ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে যাত্রা বিরতি দেয়ার পর ট্রেনের অন্যান্য বগিতে থাকা যাত্রীরা আতংকে  নেমে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌছে আধঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নেভায়। তিনি বলেন, পাওয়ার কারে  কোন যাত্রী না থাকায় হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
তিনি আরো বলেন, স্টেশনে একাধিক লাইন থাকায়  এ ঘটনায় ট্রেন চলাচলে কোন বিঘ্ন ঘটেনি। তিনি বলেন, সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পাওয়ার কারটি রেখে ট্রেনটি সিলেটের উদ্দেশ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশন ত্যাগ করে। ঘটনার তদন্তে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।  বিকেলে তদন্ত কমিটির লোকেরা স্টেশনে থাকা ক্ষতিগ্রস্ত পাওয়ার কারটি দেখে গেছে। তবে তিনি তদন্ত কমিটির সদস্যদের নাম জানাতে পারেন নি।
পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেনে দায়িত্বরত ফিগার এন্ড সুইচবোর্ড এটেনটেন্ড বেলায়েত হোসেন বলেন, ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে পৌছার আগেই ধোঁয়া দেখে আমরা মনে করেছিলাম এগুলো কুয়াশার ধোঁয়া। পরে ধোঁয়া বাড়তে থাকলে ট্রেনের যাত্রীদের মধ্যে আতংক দেখা দেয়। আমরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিসের সাথে যোগাযোগ করি। তিনি বলেন, ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া স্টেশনে পৌছার পরই ফায়ার সার্ভিসের লোকেরা আধঘন্টা চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র ষ্টেশন অফিসার জাকারিয়া হায়দার জানান, পারাবত ট্রেনের পাওয়ার কারে আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে  পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। তিনি বলেন, কি কারনে পাওয়ার কারে আগুন লেগেছে তা সঠিকভাবে এখনি বলা যাবেনা। তবে প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে  পাওয়ার কারের ডিজেল উত্তপ্ত হয়ে অগ্নিকান্ডে ঘটনা ঘটেছে। ট্রেনের গতি কম থাকায় আগুন অন্যান্য বগিতে ছড়াতে পারেনি।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসনের সহকারি কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, পাওয়ার কারের আগুন নিভানো হয়েছে। কিভাবে পাওয়ার কারে অগ্নিকান্ডের সৃষ্টি হয়েছে তা তদন্ত না করে বলা যাবেনা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ