বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

বাংলাদেশ সিনিয়র সিটিজেনস সোসাইটির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

গতকাল শুক্রবার আদ্-দ্বীন মেডিকেল কলেজ অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ সিনিয়র সিটিজেনস সোসাইটির ৫ম বার্ষিক সাধারণ সভায় বক্তব্য রাখেন ডা. আব্দুস সালাম                           -সংগ্রাম

গতকাল শুক্রবার বাংলাদেশ সিনিয়র সিটিজেনস সোসাইটির ৫ম বার্ষিক সাধারণ সভা ঢাকাস্থ আদ দ্বীন মহিলা মেডিকেল হাসপাতাল অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সোসাইটির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. আবদুস সালাম। সোসাইটির জেনারেল সেক্রেটারি ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরের সঞ্চালনায় সভায় সোসাইটির ২০১৯ সালের রিপোর্ট ও ২০২০ সালের পরিকল্পনা পেশ করা হয়। সভায় ২০১৯ সালের আয়-ব্যয় ও ২০২০ সালের বাজেট পেশ করেন সহকারী জেনারেল সেক্রেটারি কবি খালীদ শাহাদাৎ হোসেন। সভায় তা সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়। সোসাইটির মাধ্যমে হাতে নেয়া বিভিন্ন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য যে ৫টি সাব কমিটি গঠন করা হয়েছে সভায় তাদেরকে পৃথকভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়।

অতপর সোসাইটির কার্যক্রম নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা পর্ব শুরু হয়। এ পর্যায়ে কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি বক্তব্য পেশ করেন। তারা হলেন- এডভোকেট আবদুস সালাম রাজা, ডা. মো. হাফিজুর রহমান, ডা. হারুনুর রশিদ, মো. মোস্তফা হোসাইন সরকার, মাওলানা জাফরুল্লাহ নূরী, আবদুল কাদের, ডা. আবদুল আউয়াল, রংপুর শাখার আহ্বায়ক ডা. সাইদুর রহমান, এডভোকেট আবদুস সালাম প্রমুখ। বক্তাগণ বয়ষ্কদের বিভিন্ন সমস্যার বিষয়াদি তুলে ধরেন এবং এসব সমস্যা সমাধানের জন্য দিকনির্দেশনামূলক পরামর্শ দেন।

সভায় প্রফেসর ডা. মো. তাহিরকে চেয়ারম্যান, কর্নেল (অব.) প্রফেসর মো. মো. জিহাদ খানকে সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান, ডা. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীরকে জেনারেল সেক্রেটারি করে ২০২০ সালের জন্য ২৮ সদস্যের কমিটি তৈরি করা হয়। এ কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান হলেন ডা. আবদুস সালাম, মো. মোস্তফা হোসাইন সরকার, হোসাইন আহমদ ভূঁইয়া, এডভোকেট আবদুস সালাম রাজা, সহকারী জেনারেল সেক্রেটারি কবি খালীদ শাহাদাৎ হোসেন ও ট্রেজারার মো. আতাউর রহমান। সভায় সবকটি কমিটির অনুমোদন নেয়া হয়।

সভাপতির বক্তব্যে ডা. আবদুস সালাম বলেন, হাঁটি হাঁটি পা পা করে এগিয়ে প্রতিষ্ঠানটি আজ এ পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে। ঢাকাসহ দূর দূরান্ত থেকে যারা সভায় এসেছেন তাদেরকে তিনি মোবারকবাদ জানান। তিনি আরো বলেন, সকলের সহযোগিতা পেলে সোসাইটি তার কাক্সিক্ষত লক্ষ্যে পৌঁছতে পারবে ইনশাআল্লাহ। এ ব্যাপারে তিনি প্রবীণদের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য প্রত্যেককে নিজ নিজ স্থান থেকে যথাযথ ভূমিকা পালন করণের আহ্বান জানান। তিনি বলেন, পৃথিবীর অধিকাংশ দেশই প্রবীণদের নিয়ন্ত্রনে। অথচ প্রবীণদের অধিকার আদায়ে তাদের ভূমিকা অতিনগণ্য। সবশেষে দোয়ার মাধ্যমে সভার কাজ শেষ হয়। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ