বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য ‘বিশেষ’ আবেদন করবে পরিবার

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার গুরুতর অবণতির আশঙ্কায় তার মুক্তির জন্য ‘বিশেষ’ আবেদনের কথা ভাবছে তার পরিবার। গতকাল শুক্রবার বিকেলে বিএসএমএমইউতে খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাতের পর তার সেজ বোন সেলিমা ইসলাম সাংবাদিকদের কাছে এই ভাবনার কথা বলেন। তবে বিশেষ আবেদনটি সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তিনি বলেননি।
খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে পরিবারের পক্ষ থেকে আপনারা তার মুক্তির জন্য বিশেষ আবেদন করবেন কিনা প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আমরা এখনো আবেদন করিনি। আমরা ভাবছি আবেদন করব। তবে এখনো ঠিক করিনি এটা। কারণ তার যে শরীরের অবস্থা। এভাবে চলতে গেলে বেশিদিন উনাকে জীবিত অবস্থায় আমরা বাসায় নিয়ে যেতে পারবো না। যেকোনো সময়ে দূর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে।
সেলিমা ইসলাম বলেন, উনার (খালেদা জিয়া) যে অবস্থা তার দ্রুত উন্নত চিকিৎসার বন্দোবস্ত করতে হবে। তার শরীর খুবই খারাপ। তার ডায়াবেটিস আজকে (শুক্রবার) ১৫ ফাস্টিং। এভাবে আর কত দিন চলবে? এখানে তো প্রায় এক বছরের কাছাকাছি হয়ে যাচ্ছে। এজন্য আমরা চাই উন্নত হসপিটালে নিয়ে উনার চিকিৎসা দেয়া আর উনার মুক্তির ব্যবস্থা করা।
খালেদা জিয়ার বর্তমান শারীরিক অবস্থা তুলে ধরে তিনি বলেন, তার (খালেদা জিয়া) অবস্থা খুবই খারাপ। খালি বমি করছে, গায়ের জ্বর আছে, ব্যথায় কোঁকড়াচ্ছে। বাম হাতটা একদম বেকে গেছে তার। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য কোথাও নিতে হবে। এই হাসপাতালে এটা সম্ভব না। তারা (বিএসএমএমইউর চিকিৎসকরা) দেখেছেন কিন্তু যে চিকিৎসা দিচ্ছেন তাতে উনার কাজ হচ্ছে না। এখানে যে চিকিৎসা দিচ্ছেন তার শরীরের তো কোনো উন্নতি হচ্ছে না। বরং দিন দিন অবণতি হচ্ছে।
বেগম খালেদা জিয়া কোনো বার্তা দেশবাসীর উদ্দেশ্যে জানিয়েছেন কিনা প্রশ্ন করা হলে সেলিমা বলেন, তার শরীর এতো খারাপ সে তো কথাই বলতে পারছে না। আর দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছে এটাই আরি কী।
গতকাল বিকেল তিনটার দিকে সেলিমা ইসলাম ছাড়া ছোট ভাই শামীম এস্কান্দার, তার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ও ছেলে অভিক এস্কান্দার, ভাই মরহুম সাঈদ এস্কান্দারের স্ত্রী নাসরিন এস্কান্দার বিএসএমএমইউতে কেবিন ব্লকে আসেন। কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে খালেদা জিয়ার সাথে তাদের ঘন্টাখানেক সাক্ষাত হয়। তবে, খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে আরাফাত রহমান কোকোর শাশুড়ি ফাতেমা রেজা এলেও সাক্ষাৎকারের তালিকায় নাম না থাকায় তিনি দেখা করতে পারেননি। দুর্নীতির মামলায় ঢাকার বিশেষ জজ আদালতের সাজা নিয়ে গত বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে খালেদা জিয়া বন্দি রয়েছেন। পুরনো ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে আদালতের নির্দেশে গত ১ এপ্রিল খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালের কেবিন ব্লকে তিনি ৬২৫ নং কক্ষে আছেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ