বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

ডাকসুর নেতাকর্মীদের উপর হামলায় জড়িতদের শাস্তির দাবিতে রাবিতে মানববন্ধন

 

রাবি রিপোর্টার: ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নূরসহ অন্যান্য নেতাকর্মীর উপর হামলায় জড়িতদের শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। গতকাল সোমবার দুপুরে সন্ত্রাস ও নিপীড়ন বিরোধী মঞ্চের ব্যানারে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন থেকে তারা এ দাবি জানান।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে দায়ী করে কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ হলো সুষ্ঠুভাবে পঠন-পাঠন ও গবেষণা কার্যক্রমে ব্যস্ত থাকা। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতি ভিন্ন। শিক্ষার পরিবর্তে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে বিস্তার লাভ করেছে সন্ত্রাস। চলতি বছর ডাকসু কার্যকর হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্তবেশ কয়েকবার ডাকসুর নেতাকর্মীসহ সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালানো হয়েছে। এসব হামলার সঙ্গে সরাসরি ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠনগুলো জড়িত। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য অনিরাপদ ও আতঙ্কের জায়গা হিসেবে তৈরি করেছে ছাত্র নামধারী কতিপয় সন্ত্রাসীরা। অথচ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জড়িতদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। শিক্ষার্থী মুর্শেদুল আলমের সঞ্চালনায় কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. সালেহ হাসান নকীব, আরবী বিভাগের অধ্যাপক ড. ইফতিখারুল আলম মাসউদ প্রমুখ। শিক্ষার্থীদের মধ্যে মহব্বত হোসেন মিলন, আব্দুল মজিদ অন্তর, রিদম শাহরিয়ার, মাযহারুল ইসলাম, মাহমুদ সাকী প্রমুখ বক্তব্য দেন। কর্মসূচিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

ডাকসু ভিপি নুরের প্রতিবাদী কন্ঠকে 

স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার

-খেলাফত মজলিস

গত রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ-ডাকসু’র ভিপি নূরুল হক নূর এর উপর মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নামে ছাত্রলীগের হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, ছাত্রলীগ ক্যাম্পাসে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। সরকার ও ছাত্রলীগের অন্যায় ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী কন্ঠ ডাকসু ভিপি নূরের কন্ঠকে স্তব্ধ করে দিতে চায় সরকার। তাই ডাকসু ভিপি নূরসহ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের ছাত্রদের উপর বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে বহু ছাত্রকে মারাত্মকভাবে আহত করেছে ছাত্রলীগ। সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনসহ অনেককে মেরে ডাকসু ভবনের ছাদ থেকে ফেলে দেয়া হয়েছে। আহত অনেকে ঢাকা মেডিকেলের আইসিইউতে মৃত্যুর মুখোমুখি। এভাবে জঘন্য সন্ত্রাস ও জুলুম নির্যাতন চালিয়ে ছাত্র-জনতাকে বেশী দিন জিম্মি করে রাখা যাবে না। ছাত্র-জনতার ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন শুরু হলে দখলদার সন্ত্রাসীরা পালাবার পথ পাবে না। 

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় ডাকসু ভিপি নূরুল হক নূরসহ সাধারণ ছাত্রদের উপর মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নামে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জড়িত ছাত্রলীগ ক্যাডারদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

 

হামলার প্রতিবাদে শাবি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

সিলেট ব্যুরোঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরসহ অন্যান্যদের ওপর ডাকসু ভবনে হামলার প্রতিবাদ, বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন, সমাবেশ করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

গতকাল সোমবার দুপুর দেড়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তীতে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থান প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে সমাবেশের মাধ্যমে শেষ।

সমাবেশে রাসেল রানার সঞ্চালনায় শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকে বক্তব্য রাখেন- তানভীর আকন্দ, তৌহিদুজ্জামান জুয়েল, লুবনা সুলতানা প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, শিক্ষা এবং সন্ত্রাসী কার্যক্রম এক সাথে চলতে পারে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্ত্রাসী হামলা ঘটে। এই সকল সন্ত্রাসী হামলার বিরুদ্ধে প্রশাসনকে অবশ্যই ব্যবস্থা নিতে হবে। ভারতের এনআরসিকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরের নেতৃত্বে প্রতিবাদ করা হলে তাদের ওপর ‘মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ’ নামে একটি সংগঠন হামলা চালায়। মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ব্যবহার করে তারা শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের নাম দিলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধারণ করা যায় না।

মুক্তিযুদ্ধের নাম নিয়ে এই ধরনের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তারা। ঢাবি প্রশাসনকে দ্রুত এই ঘটনার বিচার করার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ