বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

ফজলে হাসান আবেদ ছিলেন নীরব সফল সমাজ বিপ্লবী : নোমান

দরিদ্রগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে নিজের জীবনকে উৎসর্গ করেছিলেন মহৎপ্রাণ স্যার ফজলে হাসান আবেদ। অসাধারণ দায়িত্ববোধ, সহমর্মিতার গভীর জীবনদর্শন এবং নিরলস শ্রমের এক অবিস্মরণীয় ও অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব তিনি। এই নীরব ও সফল সমাজ বিপ্লবীর মহাপ্রস্থান পৃথিবীবাসীর জন্য এক অপূরণীয় শূন্যতা।

এক শোকবার্তায় এসব কথা বলেছেন, সাবেক মন্ত্রী ও চট্টগ্রামের ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির (ইডিইউ) প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, ইডিইউ উপাচার্য অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক মু. সিকান্দার খান এবং ইডিইউর প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান।

ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির পক্ষে এ বিবৃতিতে তারা আরো বলেন, স্যার ফজলে হাসান আবেদ তার কর্মগুণে হয়ে উঠেছিলেন নেতৃত্বের অন্যতম প্রতিভূ। তারই নেতৃত্বে ব্র্যাক বিশ্বের বৃহত্তম উন্নয়ন সংস্থায় পরিণত হয়েছে, যা আপামর বিশ্ববাসীকে বাঁচার প্রেরণা যোগায়। ফজলে হাসান আবেদের মতো সমাজে যথার্থ ভূমিকা রাখা নেতৃত্বের সমাদর করে ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি।

বিবৃতিদাতারা বলেন, শিক্ষাবিস্তারে তার ভূমিকা অবিস্মরণীয়। তিনি উপলব্ধি করেছিলেন পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর সামগ্রিক উন্নয়নে তাদের শিক্ষিত করে তোলার বিকল্প নেই। বাংলাদেশেই লক্ষাধিক লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে তার প্রতিষ্ঠানগুলোতে, একইভাবে বিদেশেও। সামগ্রিকভাবে তা বাংলাদেশের জীবনমানের উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে।

উল্লেখ, বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সমানভাবে প্রসিদ্ধ বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্রাকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদ ৮৩ বছর বয়সে শুক্রবার মৃত্যুবরণ করেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ