বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

কুমিল্লাকে পাঁচ উইকেটে হারালো ঢাকা

নুরুল আমিন মিন্টু, চট্টগ্রাম : কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে পাঁচ উইকেটে জিতেছে ঢাকা প্লাটুন। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৬০ রান করে কুমিল্লা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৯.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ১৬১ রান করে ঢাকা। ফলে ১ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় মাশরাফি বিন মুর্তজার দল। 

পাঁচ ম্যাচের মধ্যে তিনটি জিতেছে, চারটিতে হেরেছে। ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের তিন নম্বরে রয়েছে ঢাকা। পাঁচ ম্যাচের মধ্যে তিন হারে, দুই জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলের পাঁচ নম্বরে আছে কুমিল্লা। 

সোমবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বঙ্গবন্ধু বিপিএল’র ১৭তম আসরে টস জিতে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা প্লাটুন।

ব্যাটিংয়ে শুরু করেন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স এর দুই ওপেনার ভানুকা রাজাপাকাশে ও সৌম্য সরকার। ১.৩ ওভারে দলীয় ১৭ রানে প্রথম উইকেট হারায় কুমিল্লা। মেহেদি হাসানের বলে বোল্ড আউট হয়ে সাজঘরে ফিরে যায় সৌম্য সরকার। ৬ বলে ২ চারে ১০ রান করেন সৌম্য। স্কোর ১৬/১। 

৩.৪ ওভারে মেহেদি হাসানের বলে জাকের আলীর তালুবন্দি হয়ে গ্যালারিতে ফিরে যায় সাব্বির রহমান। ৭ বলে রানের খাতা খোলতে পারেনি সাব্বির। ২ উইকেটে রান ৩৩। 

৯.৩ ওভারে শাদাব খানের বলে শুভাগত হোমের ক্যাচ হয়ে বিদায় নেন ডেভিড মালান। ১৭ বলে ৯ রান নিয়েছেন মালান। ৩ উইকেটে রান ৫৭। 

ভানুকা রাজাপাকাশে ৬৫ বলে ৪টি চার ও ৭টি ছক্কায় ৯৬ রানে ও ইয়াসির আলী ২৭ বলে ৩০ রানে অপরাজিত ছিলেন। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ১৬০ রান করেছে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। 

ঢাকা প্লাটুন’র পক্ষে মেহেদি হাসান ২টি ও শাদাব খান ১টি উইকেট পেয়েছেন।

ঢাকা প্লাটুন’র পক্ষে ১৬১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নামে দলের দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও এনামুল হক। দলীয় ১ রানে ০.৬ ওভারে প্রথম উইকেট হারায় ঢাকা। রবিউল ইসলামের বলে সোম্য সরকারের ক্যাচে পরিণত হয়ে সাজঘরের সঙ্গি হন এনামুল। ২ বলে রানের খাতা খোলতে পারেননি এনামুল। স্কোর ১/১।

৮.৫ ওভারে মেহেদি হাসান আল আমিন হোসেনের বলে মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন তালুবন্দি হয়ে গ্যালানিতে ফিরে যায় মেহেদি হাসান। ২৯ বলে ২টির চার ও ৭টি ছক্কায় ৫৯ সংগ্রহ করে মেহেদি। ২ উইকেটে রান ৮৪। 

৯.৫ ওভারে মুজিব উর রহমানের বলে বোল্ড আউট হয়ে বিদায় নেয় আসিফ আলী। ৫ বলে রানের খাতা খোলতে পারেননি আসিফ। ৩ উইকেটে রান ৮৮। 

৯.৬ ওভারে মুজিব উর রহমানের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন জাকের আলী। ব্যক্তিগত ১ বলে রানের খাতা না খোলে আউট হন জাকের। ৪ উইকেটে রান ৮৮। 

১৫.৩ ওভারে সৌম্য সরকারের বলে ডেভিড মালানের গ্লাভসবন্দি হন তামিম ইকবাল। ৪০ বলে ৪টি চারে ৩৪ রান করেন তামিম। ৫ উইকেটে রান ১২২।  

২৬ বলে ১ চারে ২৮ রানে মুমিনুল হক ও ১৬ বলে ১ চার ও ২ ছক্কায় ২৬ রানে শহিদ আফ্রিদি অপরাজিত ছিলেন। নির্ধারিত ২০ ওভারের মধ্যে ১ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেটে ১৬১ রান করেছে ঢাকা। 

কুমিল্লার পক্ষে মুজিব উর রহমান ২টি, রবিউল ইসলাম রবি, আল আমিন হোসেন ও সৌম্য সরকার ১টি করে উইকেট পেয়েছেন। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স:  ২০ ওভারে ১৬০/৩ (রাজাপাকাশে ৯৬*, সৌম্য ১০, সাব্বির ০, মালান ৯, ইয়াসির ৩০*; মাশরাফি ৩-০-২১-০, মেহেদি ৪-০-৯-২, হাসান ৩-০-৩৪-০, ওয়াহাব ৪-০-৩২-০, শাদাব ৪-০-৩২-১, আফ্রিদি ২-০-২৩-০)।

ঢাকা প্লাটুন: ১৯.৫ ওভারে ১৬১/৫ (তামিম ৩৪, এনামুল ০, মেহেদি ৫৯, আসিফ ০, জাকের ০, মুমিনুল, আফ্রিদি; রবি ৪-০-৪৪-১, মুজিব ৪-১-২২-২, সুমন ৪-০-৩৪-০, আল আমিন ৪-০-২৯-১, সৌম্য ৩.৫-০-২৯-১)।

ফল: ঢাকা প্লাটুন ৫ উইকেটে জয়ী। ম্যাচ সেরা : মেহেদি হাসান।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ