মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

১০ জন নিয়ে খেলছে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড

ক্রিকেটে বদলি খেলোয়াড় নামানোর নিয়ম চলে এসেছে। মাথায় আঘাত পেলে সে ক্রিকেটারের বদলি নামানো যায় এখন। ভারতের বিপক্ষে দিবারাত্রির টেস্টে বাংলাদেশ তো এ সুবিধা নিয়েছে দুই বার! কিন্তু অন্য চোটের ব্যাপারেও আলোচনার সময় এসেছে হয়তো। পার্থ টেস্ট যে গতকাল থেকে বিশজনের খেলায় রূপ নিয়েছে!

ঘরের মাঠের দিবারাত্রির টেস্টে আবারও দাপট দেখাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৪১৬ রান তুলেছে স্বাগতিকেরা। দ্বিতীয় দিনের খেয়াল শেষ হওয়ার আগে নিউজিল্যান্ডকে ৫ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১০৯ রান তুলতে দিয়েছে। তবে মাঠের পারফরম্যান্স আড়ালে পড়ে গেছে দুই দলের দুই পেসারের চোটে। প্রথম দিনেই টেস্ট অভিষিক্ত লকি ফার্গুসন ঊরুতে চোট পেয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন। ফলে এক বোলার কম নিয়ে খেলতে হয়েছে নিউজিল্যান্ডকে। কাল অস্ট্রেলিয়াও পড়েছে সে সমস্যা। শুরুতেই উইকেট তুলে নেওয়া জস হ্যাজলউড মাত্র ৮ বল করার পরই হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে মাঠ ছেড়েছেন। এর ফলে উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ম্যাথু ওয়েডকেও নতুন বলে সুইং করতে দেখার বিরল সৌভাগ্য হলো দর্শকের।

দুই বোলারই এ টেস্ট থেকে ছিটকে গেছেন। দ্বিতীয় ইনিংসেও বল করার কোনো সুযোগ নেই তাঁদের। তবু তাঁদের বদলি নেওয়ার সুযোগ নেই। কারণ আইসিসির বদলি খেলোয়াড় নেওয়ার নিয়ম শুধু মাথায় আঘাত পাওয়ার ক্ষেত্রে। গতকাল হ্যাজলউড চোট পাওয়ার আগেই এ ব্যাপারে টুইটারে আলোচনা শুরু করেছিলেন সাবেক ইংলিশ অধিনায়ক মাইকেল ভন। তাঁর দাবি, ম্যাচের শুরুতেই এভাবে একজন খেলোয়াড় ছিটকে গেলে তাঁর বদলি নেওয়ার সুযোগ দেওয়া উচিত। টুইটে লিখেছেন, ‘আমার ধারণা টেস্টে চোটের বদলির নিয়ম রাখা উচিত। একজন নিরপেক্ষ চিকিৎসক থাকবে। যে ফার্গুসনের মতো খেলোয়াড়দের পরীক্ষা করে মতামত দেবে। ফার্গুসনের চোট তো সত্য বলেই প্রমাণিত হয়েছে। একজন বদলি তো নামানো যায়ই। আপনাদের কী মনে হয়?’

হ্যাজলউড চোট পাওয়ার পর অবশ্য এ নিয়ে আর কোনো টুইট করেননি ভন। যুক্তরাজ্যের নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ততা অথবা অস্ট্রেলিয়ান পেসারের চোটে দুই দলের মাঝে সমতা এসে যাওয়ায় আর এ নিয়ে আলোচনা বাড়াননি। কিন্তু দুই দলেরই একজন মূল বোলার কমে যাওয়ায় এ টেস্টে বাকি বোলারদের ওপর যে প্রচণ্ড চাপ বাড়ছে তাতে সন্দেহ নেই। গতকাল মিচেল স্টার্ক (৩১/৪) একাই দায়িত্ব বুঝে নেওয়ায় রস টেলর (৬৬*) ছাড়া নিউজিল্যান্ডের অন্য কোনো ব্যাটসম্যান দাঁড়াতে পারেননি। কিন্তু পার্থের তীব্র গরম টেস্টের বাকি তিন দিনে স্টার্ক-কামিন্স-ওয়াগনার ও টিম সাউদিদের বড় পরীক্ষাই নেবে। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ