মঙ্গলবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

২০২৪ পর্যন্ত চুক্তি নবায়ন করলেন ক্লপ

লিভারপুলের সাথে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছেন কোচ জার্গেন ক্লপ। নতুন চুক্তি অনুযায়ী ২০২৪ সালের জুন পর্যন্ত তিনি রেডসদের সাথেই থাকবেন। ২০১৫ সালে লিভারপুলের ম্যানেজার হিসেবে যোগ দেয়ার পর এই চার বছরে তিনি লিভারপুলকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা উপহার দিয়েছেন। গত মৌসুমে মাত্র এক পয়েন্টে ব্যবধানে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে শিরোপা হাতছাড়া করলেও এবার স্ব-মহিমায় প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষ স্থানটি ধরে রেখেছে লিভারপুল। এই জার্মান কোচের বর্তমান  চুক্তিটি ২০২২ সালে শেষ হয়ে যাবার কথা ছিল। নতুন চুক্তিতে স্বাক্ষরের সময় ক্লপ জানিয়েছেন চুক্তির বিষয়টি তার কাছে কোন সময়ই মূখ্য ছিলনা। ট্রান্সফারের বিষয়টি সামনে আসলেই কেবল চুক্তির বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠে। দীর্ঘমেয়াদী চুক্তিতে যদি শেষ পর্যন্ত তিনি থাকেন তাহলে বব পেইসলির পর ক্লপই হতে যাচ্ছেন লিভারপুলের সবচেয়ে বেশী সময় কাজ করা কোচ। এক সংবাদ সম্মেলনে ক্লপ বলেছেন, ‘আমরা আগেই চুক্তি নবায়নের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেছি। আমি মনে করি পরিস্থিতি বিরুপ হবার আগেই এই বিষয়গুলো মিমাংসা করা উচিত। এখন আমি বেশ স্বস্তিতে আছি। কিন্তু হয়তোবা গ্রীষ্মের আগে আবারো ক্লাবের সাথে ট্রান্সফার বিষয়ে আমার মতবিরোধ হতে পারে। কোন নতুন খেলোয়াড় দলে আনার ব্যপারে কোচের সাথে সব সময়ই ক্লাবের কোন না কোন বিষয়ে বিরোধ হতে পারে। সেক্ষেত্রে কোচের মেয়াদ কতদিন আছে, সেটাও একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। আমরা সবাই সেই বিষয়টি এড়িয়ে যেতে চেয়েছি। নতুন চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত। আমি মনে করি পুরো বিষয়টি ক্লাবের জন্য একটি ইতিবাচক দিক হয়েই থাকবে। এখানে আমি আরো দীর্ঘদিন আছি, এটাই আমাকে স্বস্তি দিচ্ছে।’ এ্যানফিল্ডে আসার পর থেকে ৫২ বছর বয়সী ক্লপের অধীনে লিভারপুল তিলে তিলে নিজেদের গড়ে তুলেছে। ৩০ বছরের ইতিহাসে প্রিমিয়ার লিগে প্রথমবারের মত শিরোপা জয়ের অন্যতম দাবীদার এখন লিভারপুল। ক্লপ বলেন, ‘সাড়ে চার বছরের যাত্রাটা খুব একটা সহজ ছিলনা। ফুটবলে এটা অনেক লম্বা সময়। এখন সব মিলিয়ে নয় বছর আমি এখানে থাকবো। কোচ হিসেবে ক্লাবের জন্য যা সবচেয়ে দীর্ঘ সময়। পুরো সময়টা খুব একটা খারাপ কাটেনি।

কিন্তু আমরা মনে করি এর থেকেও ভাল কিছু আমাদের জন্য অপেক্ষা করছে। আশা করছি ক্লাবের সেরা সময়টা আমি সবাইকে উপহার দিতে পারবো। সমর্থকদেরও অনুরোধ করছি পুরো যাত্রাটাকে উপভোগ করতে।’ এ্যানফিল্ডে ক্লপের প্রথম বছরে লিভারপুল লিগ কাপ ও ইউরোপে লিগের ফাইনালে খেললেও খালি হাতে ঘরে ফিরেছিল। ২০১৮ সালের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ৩-১ গোলে পরাজিত হয়েছিল। তবে এ বছর টটেনহ্যামকে ২-০ গোলে পরাজিত করে ষষ্ঠবারের মত ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশীপের শ্রেষ্ঠত্ব নিজেদের করে নেয়। গত মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে মাত্র একটি ম্যাচে পরাজিত হয়ে ক্লাবের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৯৭ পয়েন্ট অর্জন করেছিল। এ বছর এখনো পর্যন্ত ১৬ ম্যাচে ১৫টিতেই জয় তুলে নিয়ে আট পয়েন্টের ব্যবধানে শীর্ষস্থানটি ধরে রেখেছে। মঙ্গলবার সালজাবার্গকে ২-০ গোলে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নক আউট পর্বে পৌঁছে গেছে রেডসরা। মাসের শেষে কাতারে ক্লাব বিশ্বকাপেও অংশ নিবে ক্লপ শিষ্যরা। ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ