শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

দুর্ঘটনা এখন সহনীয় হয়ে গেছে

বর্তমান বিশ্বে সড়ক ও রেল দুর্ঘটনায় বাংলাদেশ শীর্ষে অবস্থান করছে। যানবাহনে চলতে গিয়ে দুর্ঘটনায় মানুষ মারা যায় বিশ্বের সব দেশেই। কিন্তু এমন নিয়ন্ত্রণহীন দুর্ঘটনায় মৃত্যুর মিছিল বিশ্বের আর কোন দেশে নেই। বিগত ১২/১১/২০১৯ খ্রিঃ তারিখ মঙ্গলবার ভোর রাত পৌনে তিনটায় ব্রাহ্মনবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলওয়ে ষ্টেশনের কাছে চান্দখোলা নামক স্থানে সিলেট থেকে চট্টগ্রামগামী উদয়ন এক্সপ্রেক্স এবং চট্টগ্রাম থেকে ঢাকাগামী তুর্ণা-নিশিথা ট্রেনের সংঘর্ষে শিশু সন্তান ও স্বামী-স্ত্রী সহ ১৬ জন নিহত এবং অর্ধ শতাধিক যাত্রী আহত হয়েছেন। অতীতে আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতে রেল দুর্ঘটনায় রেলমন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন এমন দৃষ্টান্ত রয়েছে। অথচ আমাদের বাংলাদেশে সড়ক দুর্ঘটনা ও রেল দুর্ঘটনা যেন সহনীয় বিষয় হয়ে গিয়েছে। এ দেশের মানুষের জীবনের কোনো মূল্য আছে বলে দেশ পরিচালকদের ভাবসাব দেখে মনে হয়না। ১৪/১১/২০১৯ খ্রিঃ তারিখ সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় আন্তঃনগর রংপুর এক্সপ্রেক্স ট্রেনের ৯টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে ৬টিতে আগুন লেগে যায়। এতে চালক ও চালকের সহকারী সহ অর্ধ শতাধিক আহত হয়। রংপুর মিটার গেজের এই এক্সপ্রেক্সটি ঢাকা থেকে লালমনিরহাট যাচ্ছিলো। উল্লাপাড়া লেভেল ক্রসিং এর ৫০ মিটার দূরে রেলপথ পরিবর্তনের স্থানে ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন রেলপথে ত্রুটির কারণে এবং সিগন্যাল ভুলের কারণে ট্রেনটি দুর্ঘটনায় কবলিত হয়।
রেলপথে ভ্রমন করাটাকে সকলেই নিরাপদ ও আরামদায়ক মনে করেন। এজন্য ১৮৪৪ সালে “ইস্ট ইন্ডিয়া রেলওয়ে কোম্পানী” গঠন করে রেলপথ স্থাপনের পর থেকেই অদ্যাবধি রেলে ভ্রমনকে মানুষ প্রধান্য দিয়ে আসছে। Ministry of Railways বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চল এ দুটি অঞ্চলের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। এ উপ মহাদেশে ১৮৫৩ সালে রেলগাড়ী চালু হওয়ার পর থেকে দেশ ভাগ হয়েছে কয়েক বার। কিন্তু রেলপথের উন্নয়ন সুষমভাবে হয়নি সঙ্গত কারণেই। রেলে আমাদের বাংলাদেশ পিছনে আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্রগুলোর তুলনায়। এ ব্যাপারে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি দেয়া খুবই জরুরী বলে বিশিষ্টজনেরা মনে করেন। তাঁরা আরো প্রশ্ন করেন রেল-ই যেখানে চলতে এত দুর্ঘটনা সেখানে মেট্টো রেল চলবে কি করে? কবি আহসান হাবিব বুলবুল-এর লিখা ‘ট্রেনের যাত্রী’ কবিতার কয়েকটি লাইন দিয়েই লিখা শেষ করছি- “........ আমাদের জীবনটা যেন ট্রেনের যাত্রীর মতই / পৃথিবী নামের দীর্ঘ পথ পাড়ি দিচ্ছে / কেউ সুখে কেউ দুখে। / একদিন পৌঁছে যাবে গন্তব্যে / শুধু সত্য নিষ্টরাই পাবে / পরম প্রভুর সান্নিধ্য / স্বপ্নময় জান্নাতে / অন্তহীন সেই যাত্রায় / শুধুই স্বপ্নসুখ ...../তার কোনো শেষ নেই।”

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ