বুধবার ৩০ নবেম্বর ২০২২
Online Edition

রাজনৈতিক কারণে খালেদা জিয়ার জামিন হচ্ছে না -মওদুদ আহমদ

গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে লেবার পার্টি ঢাকা মহানগর দক্ষিণ দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, আমি আশা করছি সুপ্রিম কোর্ট আগামী শুনানিতে বিএনপি চেয়ারপারসনকে জামিন দেবেন। যদি না দেন তাহলে মনে করতে হবে রাজনৈতিক কারণে তাকে জামিন দিচ্ছেন না। আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কর্মসূচি সময়মতো দেব। এখনও আন্দোলনের উপযুক্ত সময় আসেনি।
গতকাল শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ লেবার পার্টি আয়োজিত ‘বাংলাদেশ লেবার পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ লেবার পার্টির আহবায়ক মাওলানা আনোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে  উদ্বোধনী বক্তব্য দেন বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান। বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু। এ সময় লেবার পার্টির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
মওদুদ আহমদ বলেন, সংবিধান অনুযায়ী যে সরকার বলা হয়, বর্তমান আওয়ামী লীগ সেই সরকার না। তারা অনির্বাচিত সরকার। তাই প্রতিটি ক্ষেত্রে সরকারের নিয়ন্ত্রণ আস্তে আস্তে শিথিল হচ্ছে। দেশের মানুষ পরিবর্তন চায় মন্তব্য করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের ১১ বছর হয়ে গেছে। দেশের মানুষ এখন অতিষ্ঠ, তারা পরিবর্তন চায়। এই পরিবর্তন যতো শিগগিরই আসবে দেশের জন্য ততোই মঙ্গল হবে।
দুর্নীতিবিরোধী অভিযান প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে মন্তব্য করে মওদুদ আহমদ বলেন, দুর্নীতি প্রশাসনের প্রত্যেকটি শাখা-প্রশাখায় ঢুকে পড়েছে। তারা যতোই অভিযানের কথা বলুক, দুর্নীতির সমাধান করতে পারবে না। আপনারা দেখেছেন এই অভিযান এখনই প্রায় শেষ। সরকার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলেছে। বাংলাদেশের প্রতিটি ক্ষেত্রে আজকে দুর্নীতির চিত্র দেখতে পাই।
মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া উচিত মন্তব্য করে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, আমি আশা করছি সুপ্রিম কোর্ট আগামী শুনানিতে তাকে জামিন দেবেন। যদি না দেন তাহলে মনে করতে হবে রাজনৈতিক কারণে তাকে জামিন দিচ্ছেন না।
বিশ্ববিদ্যালয়ে দুর্নীতিবাজ ভিসিদের পদত্যাগের দাবি করে তিনি বলেন, আজকে ১১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ। তারা দলীয়ভাবে নির্বাচিত। তারা নিজেদের মেধা ও দক্ষতার ভিত্তিতে নির্বাচিত হননি। দলের কারণে তারা সেসব পদে আছেন এবং দুর্নীতি করছেন।
ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, দেশের মানুষ আন্দোলনের জন্য প্রচুর চাপ দিচ্ছে। কর্মসূচি সময়মত দেব। আমি মনে করি, এখনও আন্দোলনের উপযুক্ত সময় আসেনি।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ