বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধির পেছনে কারও চক্রান্ত আছে কি না খুঁজে দেখতে চাই -শেখ হাসিনা

গতকাল শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলন ২০১৯ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন -পিআইডি

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে, চিন্তার কারণ নেই। প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, পেঁয়াজের অস্বাভাবিক দাম বাড়ার পেছনে কোনো চক্রান্ত আছে কি-না, সরকার তা খুঁজে দেখতে চায়।
গতকাল শনিবার ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের তৃতীয় জাতীয় সম্মেলন উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন। স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে মোট ১ হাজার ৯৭৫ জন কাউন্সিলর ও প্রায় ১৮ হাজার প্রতিনিধি অংশ নিয়েছেন এবং প্রায় ১৫ হাজার অতিথি উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছে আয়োজকেরা।
শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পেঁয়াজের দাম এখন একটা সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে...এটা সত্য যে বিভিন্ন দেশে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি পেয়েছে, কিন্তু আমি জানি না আমাদের দেশে কেন অস্বাভাবিকভাবে মূল্যবৃদ্ধি পেয়েছে। আমরা এই মূল্যবৃদ্ধির পেছনে কারও চক্রান্ত আছে কি না, তা খুঁজে দেখতে চাই।’
প্রধানমন্ত্রী জানান, সরকার দেশে পেঁয়াজের দাম কমিয়ে আনতে বিদেশ থেকে কার্গো বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানি করছে। শেখ হাসিনা বলেন, ‘এ সমস্যার সমাধান করতে আমরা কার্গো বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানি করছি। পেঁয়াজভর্তি বিমান আগামীকাল বা তার পরের দিন দেশে এসে পৌঁছাতে পারে বলে আশা করা যাচ্ছে। পেঁয়াজ বিমানে উঠে গেছে, চিন্তার কারণ নেই।’
প্রসঙ্গত, গতকাল বাণিজ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মিসর থেকে কার্গো বিমানযোগে আমদানি করা পেঁয়াজের প্রথম চালান ঢাকায় পৌঁছাবে মঙ্গলবার। এস আলম গ্রুপ মিসর থেকে বিপুল পরিমাণে পেঁয়াজ আমদানি করছে, এটি তার প্রথম চালান। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য আমদানিকারকের আমদানি করা পেঁয়াজ কার্গো বিমানযোগে দেশে আসবে।
আবহাওয়ার কারণে পণ্যের উৎপাদন বাড়তে বা কমতে পারে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, কেউ কেউ আছেন, যাঁরা পেঁয়াজ মজুত করে দাম বাড়ানোর মাধ্যমে দ্রুত টাকা উপার্জন করতে চান। কিন্তু তাঁদের মাথায় রাখা উচিত পেঁয়াজ বেশি দিন মজুত রাখা যায় না, এগুলো পচে যায়।
প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করে বলেন, ‘দেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে ও মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে, তখন কিছু স্বার্থান্বেষী মহল সমস্যা তৈরি করে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে। আমি মানুষকে বিভ্রান্ত না হওয়ার ও আসল কারণ খুঁজে বের করার অনুরোধ জানাচ্ছি।’
শেখ হাসিনা বলেন, ভারতেও পেঁয়াজের দাম এখন খুব বেশি এবং বর্তমানে ১০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। তবে সে দেশে এমন একটি রাজ্য রয়েছে, যেখান থেকে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি নেই...সেই রাজ্যে পেঁয়াজের দাম কম।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পেঁয়াজের মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে জড়িত চক্রকে খুঁজে বের করা হবে। গতকাল শনিবার সকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।  প্রধানমন্ত্রী বলেন, পিয়াজের দাম বৃদ্ধিতে কারা জড়িত, খুঁজে বের করা হবে। এরইমধ্যে কার্গো বিমানে করে পিয়াজ আমদানি করছে সরকার।
প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, পেঁয়াজের দাম বিশ্বের অনেক দেশেই বেড়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম এতো লাফিয়ে লাফিয়ে কেন, কি কারণে বাড়ছে তা জানি না। এর পিছনে কোনো চক্রান্ত আছে কিনা দেখতে হবে। সাধারণ মানুষকে এতো কষ্ট দেয় ঠিক না। দেশে সবকিছু ঠিক থাকলে একটা ইস্যু তৈরি করে তাদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করা হয়।
তিনি বলেন, দুর্নীতি করে কেন টাকা কামাতে হবে? অসৎ পথে আয় করে বিরিয়ানির খাওয়ার চেয়ে সৎপথে নুন ভাত খাওয়া অনেক বেশি মর্যাদার। দুর্নীতি করে টাকা উপার্জন করে বিলাস ব্যাসন করা ব্যক্তিদের বাংলাদেশের সাধারণ মানুষ বরদাশত করবে না। দুর্নীতিদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখবো।
শেখ হাসিনা আরও বলেন, দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে হবে, তাহলেই উন্নয়ন সম্ভব। স্বাধীনতার সুফল প্রতি ঘরে ঘরে পৌঁছাবে। কেউ যেন অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হয়। আমরা জনগণের মাঝে আত্মবিশ্বাস সৃষ্টি করতে পেরেছে। দেশে কিছু ক্ষুদ্র মানসিকতার মানুষ আছে দেশে উন্নয়ন হলে যাদের আঁতে ঘা লাগে।
স্বেচ্ছাসেবক লীগের কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহের সভাপতিত্বে কাউন্সিলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে কাউন্সিলের উদ্বোধন করেন। এ সময় জাতীয় সংগীত বাজানো হয়। পরে পায়রা ও বেলুন ওড়ান প্রধানমন্ত্রী।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ