শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

নতুন এমপিওতে ঠাঁই পায়নি ফুলবাড়ীর ৭টি প্রতিষ্ঠান

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) সংবাদদাতা: সবজি ও ধানক্ষেত সংলগ্ন ফাঁকা মাঠে টিনসেডের কয়েকটি আধাপাকা ঘর কর্ম-দিবসেও মেলেনি কোন শিক্ষার্থী, তবে শিক্ষার্থী না থাকলেও ক্লাস রুমের সাথে বারান্দায় দেখা যায় বেশ কয়েকটি গরু বেঁধে রাখা। ফুলবাড়ী-ঢাকা মহাসড়কের পার্শ্বে স্থাপন করা হয়েছে কলেজের সাইনবোর্ড। নাম তার ফুলবাড়ী মহিলা বিএম কলেজ'। নেই শিক্ষার্থী, নেই শিক্ষক, তবুও সেই কলেজের নাম রয়েছে সম্প্রতি ঘোষিত এমপিওভুক্তির তালিকায়। ঘটনাটি ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউনিয়নে। সরেজমিনে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায় ফুলবাড়ী মহিলা বিএম কলেজের কোন কার্যক্রম নেই এই এলাকায়। তবে দুবছর আগে একদিন  পিকনিক খাওয়ার জন্য কিছু অন্য একটি প্রতিষ্ঠানের ছাত্র/ছাত্রী  আসে। এরপর থেকে কলেজের কোন কার্যক্রম স্থানটিতে ছিল না বলে নিশ্চিত করেছেন স্থানীয়রা। কাগজ কলমে পরিচালনা করা এ প্রতিষ্ঠানটি এমপিওভুক্তি তালিকায় কিভাবে গেল তা নিয়ে তৈরী হয়েছে রহস্য। ফুলবাড়ী  টেকনিক্যাল এন্ড বিএম ইনস্টিটিউট কলেজের অধ্যক্ষ সালাউদ্দিন এই কলেজটির নাম দিয়ে তার নিজ কলেজেই কার্যক্রম চালান বলে জানান এলাকাবাসী । মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি দাবি করেন, কলেজটির পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি তিনি। আর কলেজটির অধ্যক্ষ তার শ্যালক রবিউল আউয়াল।
ফুলবাড়ী মহিলা বিএম কলেজের এমপিও এর বিষয়ে বর্তমানে সভাপতির দায়িত্বে থাকা ফুলবাড়ী টেকনিক্যাল এন্ড বিএম ইনস্টিটিউট কলেজের অধ্যক্ষ সালাউদ্দিন জানান, ২০১৪ সালে একাডেমিক স্বীকৃতির পর ফুলবাড়ী মহিলা বিএম কলেজটির কার্যক্রম শুরু হয়। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটিতে দুইটি ট্রেডে ১৭০ জন ছাত্রী ও ৩ জন শিক্ষক রয়েছেন। চলতি এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয় ৩৯ জন শিক্ষার্থী এর মধ্যে পাশ করেছে ৩৫ জন। তবে কাগজে কলমে সব ঠিকঠাক থাকলেও প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম চলে ফুলবাড়ী শহরে স্থাপিত তার নিজ কলেজে বলেও তিনি নিশ্চিত করেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ