শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

চিরিরবন্দরে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

মোহাম্মাদ মানিক হোসেন, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর): দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রকল্পকে পুঁজি করে একটি দালাল চক্র বিদ্যুৎ সংযোগ গ্রাহকদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ওই দালাল চক্রের সঙ্গে ঠিকাদার ও পল্লী বিদ্যুতের স্থানীয় অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজশ রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নশরতপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ নশরতপুর গ্রামে। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার সকালে টাকা উদ্ধার ও দালাল নিশিকান্ত গং এর শাস্তির দাবীতে ওই  এলাকায় একটি বিক্ষোভ মিছিল করেছে এলাকাবাসী। বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন, ডিজাইন, মিটার সরবরাহ ও তাড়াতাড়ি সংযোগ দেয়াসহ নানা কথা দিয়ে এ টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়েছে বলে জানাগেছে। দালাল নিশিকান্ত কর্তৃক বিদ্যুৎ সংযোগ গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা নেয়ার অভিযোগে গত ২৪ সেপ্টেম্বর সকালে পল্লী বিদুৎতায়ন বোর্ড চেয়ারম্যান ও দিনাজপুর জেলা প্রশাসক বরাবর নশরতপুর ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের কাকজি বাগান পাড়ার এলাকাবাসী দুটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। সরেজমিনে ওই গ্রামে গিয়ে দেখা যায় বৈদ্যুতিক খুঁটি ও তার, মিটারসহ আনুষঙ্গিক সব সরঞ্জাম স্থাপন করা হলেও  অতিরিক্ত টাকা ফেরত না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ এলাকবাসী ওই এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করছে। অভিযুক্ত নিশিকান্ত গং এর সাথে কথা হলে টাকা নেয়ার বিষয়টি তিনি স্বীকার করে বলেন, সংযোগের জন্য সম্পূন্ন কাজটি করতে সব টাকা ঠিকাদারসহ বিভিন্ন জায়গায় দিয়ে খরচ হয়ে গেছে। আমি কোথা থেকে টাকা ফেরত দেবো।এ বিষয়ে জনপ্রতিনিধি আব্দুল্লা-আল মামুন জানান, দীর্ঘদিন ধরে বিদ্যুৎ সংযোগের জন্য ২৫৩টি পরিবার হয়রানীর স্বীকার হয়ে আসতেছে। আমি জানতে পারলে জরাজীর্ণ বিদ্যুৎ সংযোগটি এলাকাবাসীকে সাথে নিয়ে বিভিন্œ জায়গায় যোগাযোগ করলে দ্রুত বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপনের জন্য কৃর্তপক্ষের কাছে আশ্বাস পাই। এ ব্যাপারে রাণীরবন্দর জোনাল অফিসের ডিপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মমিনুর রহমান বিশ্বাস জানান, ওই এলাকায় বিদ্যুতের সংযোগের জন্য সকল কাজ সম্পূন্ন করা হয়েছে । দু-একদিনে সংযোগ দেয়া হবে। তবে দালালকৃর্তক অতিরিক্ত টাকা নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে তদন্ত চলছে সত্যতা পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ