বুধবার ০৩ জুন ২০২০
Online Edition

স্রোতের কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-পথে ফেরি চলাচল ব্যাহত

ঘিওর (মানিকগঞ্জ) সংবাদদাতা : পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌ-পথে গত কয়েকদিন ধরেই প্রচ- স্রোতের বিপরীতে ফেরি-লঞ্চ চলাচল করতে না পারায় রাজধানী ঢাকার সাথে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থায় অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ রুটের ১৬টি ফেরির মধ্যে ৬টি ফেরি দিয়ে চলছে মানুষ ও যানবাহন পারাপার। ফলে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র যানজট।
ইতমধ্যে সমাধানের পথ খুঁজতে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন সংস্থা বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর মাহবুব-উল ইসলামসহ ফেরি সংস্থা টিসি ও পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রকৌশল বিভাগের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা সরজমিন পরিদর্শন করেছেন।
জানা গেছে, পাটুরিয়া রুটের দৌলতদিয়া প্রান্তে পদ্মায় পানি কিছুটা কমলেও কমেনি স্রোতের তীব্রতা। এতে ফেরি-লঞ্চ চলাচলে যেমন বিঘ্ন ঘটছে তেমনি ঘাট এলাকার ভাঙ্গণ তীব্র হচ্ছে। ফেরি-লঞ্চ চলাচল বিঘ্ন ঘটায় উভয় প্রান্তে পারের অপেক্ষায় থাকা যানবাহনের সংখ্যা ক্রমশই বৃদ্ধি পাচ্ছে। লঞ্চ যাত্রীরা বাধ্য হয়ে ফেরিতে পারাপার হলেও অপেক্ষমাণ যানবাহন মালিক-শ্রমিকরা পড়েছে বিপাকে। ঘাট কর্তৃপক্ষ উদ্ভুদ পরিস্থিতিতে বিশেষ করে ট্রাক চালকদের বিকল্প পথ হিসেবে বঙ্গবন্ধু সেতু ব্যবহারের পরামর্শ দিলেও তা অনেকেই মানছেন না। ফলে, উভয় ঘাটে পারের অপেক্ষায় থাকা যানবাহনের সংখ্যা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে।
ফেরি কর্তৃপক্ষ জানান, নদীতে সৃষ্ট স্রোতের বিপরীতে অব্যাহতভাবে চলতে গিয়ে বহরের ছোট-বড় ১৬টি ফেরির অধিকাংশ যন্ত্রাংশে ত্রুটি দেখা দিয়েছে। যে কয়টি ফেরি সচল আছে তাও মূল চ্যানেলে চলতে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। তীব্র স্রোতে ফেরিগেুলোকে মূল চ্যানেল থেকে ভাটির দিকে ভাসিয়ে নেয়ায় গন্তব্যে পৌঁছতেও অতিরিক্ত প্রায় দ্বিগুন সময় ব্যয় হচ্ছে। যার ফলে, কাঙ্খিত যানবাহন পারাপার সম্ভব হচ্ছে না।
পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রকৌশলী বিভাগ সুত্র জানিয়েছেন, ভাঙ্গণ রোধ ও ঘাট সচল রাখতে বিভিন্ন পয়েন্টে জরুরি ভিত্তিতে বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলা হচ্ছে।
বিআইডব্লিউটিসি পাটুরিয়া ঘাটের (বাণিজ্য বিভাগ) সহকারী ব্যবস্থাপক মহিউদ্দিন রাসেল বলেন, পদ্মায় তীব্র স্রোতের কারণে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। দৌলতদিয়া পয়েন্টের দু’টি ঘাট পদ্মা নদীতে বিলিন হয়ে গেছে গত কয়েকদিন আগে এবং দৌলতদিয়া পয়েন্টে পদ্মার পানির ঘূর্ণি স্রোত সৃষ্টি হওয়ার কারণে ফেরিগুলো তীরে ভিড়তে সমস্যার সৃষ্টি হয় যার কারণে সিমিত আকারে এ নৌরুটে ফেরি চলাচল করছে। যার কারণে পাটুরিয়া ঘাটে দেড় শতাধিক যাত্রীবাহী পরিবহন ও তিন শতাধিক পণ্যবোঝাই ট্রাক পারের অপেক্ষায় রয়েছে। বর্তমানে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ১৬টি ফেরির মধ্যে ৬টি ফেরি দিয়ে মানুষ ও যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ