সোমবার ২৫ জানুয়ারি ২০২১
Online Edition

ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে এবার খুলনায় অভিনব প্রতিবাদ

খুলনা অফিস : ঘুষ-দুর্নীতি ও  নৈতিক অবক্ষয়ের বিরুদ্ধে অভিনব প্রতিবাদে নেমেছেন মো. হানিফ ওরফে হানিফ বাংলাদেশী নামের এক যুবক। দেশের বিভিন্ন জেলা ঘুরে ঘুষখোর ও দুর্নীতিবাজদের উদ্দেশ্যে প্রতীকী লালকার্ড প্রদর্শন করছেন তিনি। আর জেলা প্রশাসকদের দিচ্ছেন স্মারকলিপি। রোববার রাতে তিনি খুলনায় পৌছান। এরপর তিনি খুলনা প্রেসক্লাব ও দৈনিক সংগ্রামসহ বিভিন্ন জাতীয় এবং স্থানীয় পত্রিকা অফিসের কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। সোমবার সকালে হানিফ বাংলাদেশী খুলনা জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি দেন। তার এ স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) । এটি তাঁর সফরের ৪২তম জেলা। প্রতিবাদের বিষয় সংবলিত লেখা ফেস্টুন গলায় ঝুলিয়ে বিভাগীয় শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। সেই সঙ্গে ঘুষখোর ও দুর্নীতিবাজদের উদ্দেশ্যে প্রতীকী লালকার্ড প্রদর্শন করেন। এ ছাড়া সচেতনতা বিষয়ে বিলি করেন প্রচারপত্র।
স্মারকলিপিতে বলা হয়েছে, স্বাধীনতার পর থেকে যে দল যখন ক্ষমতায় এসেছে, সে দল তখন ঘুষ-দুর্নীতি নৈতিক অবক্ষয়ে নিমজ্জিত ছিল। যা আজ চরম আকার ধারণ করেছে। সমাজ, রাষ্ট্র সর্বত্রই ঘুষ-দুর্নীতি, সামাজিক, মানবিক ও পারিবারিক মূল্যবোধের অবক্ষয় চলছে। গুজব ছড়িয়ে নিরীহ মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একে অন্যকে কুপিয়ে হত্যা করছে। সবাই আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হলে এসব কর্মকা- নির্মূল সম্ভব।
নোয়াখালী জেলার সদর উপজেলার নিয়াজপুর ইউনিয়নের জাহানাবাদ গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুল মান্নানের একমাত্র ছেলে মো. হানিফ। গত ১২ মার্চ থেকে ১৪ এপ্রিল ভোটাধিকার ও নির্বাচনের সময় নিরপেক্ষ সরকারের দাবিতে টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া পদযাত্রা করেন তিনি। রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশের গুরুত্বপূর্ণ শহরে জনবহুল এলাকায় গণশৌচাগার স্থাপনের দাবিতে প্রচারাভিযান চালান এই প্রতিবাদী যুবক। গত ৬ মে নির্বাচন কমিশনের সংস্কার ও বর্তমান কমিশনারদের পদত্যাগের দাবিতে পচা আপেল নিয়ে ঢাকায় নির্বাচন কমিশনের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন হানিফ। সর্বশেষ উদ্যোগ হিসেবে গত ২ সেপ্টেম্বর সিলেটের জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি ও জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে লালকার্ড প্রদর্শনের মাধ্যমে ব্যতিক্রমী এই প্রতিবাদ কর্মসূচি শুরু করেছেন তিনি। এক জেলা থেকে অরেক জেলায় পরিবহনে যাচ্ছেন। আর জেলা শহরে পায়ে হেঁটে তাঁর কার্যক্রম চালাচ্ছেন। একের পর এক ইতিবাচক কাজের জন্য অনেকে তাঁকে ‘হানিফ বাংলাদেশী’ নামে ডাকেন।
মো. হানিফ ওরফে হানিফ বাংলাদেশী সাংবাদিকদের বলেন, নিজের সঞ্চিত অর্থে ও বন্ধুবান্ধবের সহযোগিতায় সারাদেশ ঘুরছেন তিনি। আগামী ২০ অক্টোবর ৬৪তম জেলা সফর শেষ হবে তাঁর ঢাকা। ইতিবাচক পরিবর্তনের এই লড়াইয়ে অনেকে উৎসাহ দেন। আবার অনেকেই কটূক্তি করেন। তিনি বলেন, ‘আমার বিশ্বাস, দেশের মানুষ একদিন সচেতন হবে, প্রতিবাদ করতে শিখবে। প্রতিবাদের মধ্য দিয়ে পরিবর্তন আসবেই।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ