মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য সবুজ পৃথিবী গড়তে সকলকে দৃশ্যমান কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে --------ড. শিরীণ আখতার

‘Movement for Climate Justice and Better World’-শীর্ষক প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ওশানোগ্রাফি বিভাগ ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাইন্টিফিক সোসাইটি (সিইউএসএস)-এর যৌথ উদ্যোগে জলবায়ু পরিবর্তন জনিত সংকট মোকাবিলায় নিরাপদ ভবিষ্যৎ নিশ্চিতকরণ ও প্যারিস চুক্তির বাস্তবায়নে সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থুনবার্গ ও বিশ্বের ১৫০টিরও বেশি দেশের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল র‌্যালি, মানববন্ধন, আলোচনা সভা, ক্লাইমেট ড্রামা, ক্লাইমেট ক্যারেক্টার শো, আবৃত্তি এবং প্রেজেন্টেশন। চবি বুদ্ধিজীবী চত্বরে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন চট্টগ্রাম বিশ^বিদ্যালয়ের ভিসি (দয়িত্বপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার। চবি ওশানোগ্রাফি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. এনামুল হক-এর সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উক্ত বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দীন, চবি জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড বায়োটেকনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. লায়লা খালেদা (আঁখি) এবং প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) প্রণব মিত্র চৌধুরী। 

প্রফেসর ড. শিরীন আখতার তাঁর ভাষণে সৌরজগতের একমাত্র সবুজ বাসযোগ্য গ্রহটিকে রক্ষার দাবিতে সারা বিশ্বব্যাপি পালিত ‘গ্লোবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক’ কে সমর্থন দিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিণ বিভিন্ন কর্মসূচির সাথে একাত্মতা ঘোষণা করেন এবং আয়োজকবৃন্দদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপি শিল্পায়ন, যানবাহনের সংখ্যাবৃদ্ধি, বনাঞ্চল উজাড়সহ নানা কারণে কার্বন ডাই অক্সাইড, নাইট্রাস অক্সাইড, মিথেনসহ অন্যন্য গ্রিনহাউস তথা উষ্ণায়নকারী গ্যাসের বৃদ্ধির ফলে ধীরে ধীরে পৃথিবীর উষ্ণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর এর প্রভাবে প্রকৃতি হারাতে বসেছে তার স্বাভাবিক ঋতুবৈচিত্র ও আচরণ। অনেক দেশের মতো বাংলাদশেও অধিক বৃষ্টিপাত, ব্যাপক বন্যা, ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড়, অতি খরা প্রভৃতি জলবায়ুগত পরিবর্তন সাধিত হচ্ছে। পৃথিবীর উষ্ণতা বৃদ্ধির প্রভাবে একদিকে জীববৈচিত্র্য দ্রুত ধ্বংস হচ্ছে অন্যদিকে মানবসভ্যতা পতিত হচ্ছে বিভিন্ন ধরণের স্বাস্থ্য সমস্যায়। তিনি বলেন, এভাবে চলতে থাকলে আমাদের বাসযোগ্য সবুজ সুন্দর এই ধরিত্রী অচিরেই বাসযোগ্যতা হারিয়ে ধ্বংসের দিকে অগ্রসর হবে। তিনি আরও বলেন, আমাদের অনাগত ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সুন্দর এই পৃথিবীকে বাসযোগ্য করার জন্য সকলকে দৃশ্যমান কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে। প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করেন। 

আলোচনা সভায় চবি বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন দিবস দেব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ