শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

আসলে টেস্ট খেলতে চান না সাকিব : বিসিবি সভাপতি 

স্পোর্টস রিপোর্টার : টেস্টে অধিনায়কত্ব নিয়ে অনীহা প্রকাশ করেন সাকিব আল হাসান। দলের বর্তমান অবস্থার কারণে অনেকটা বাধ্য হয়ে নেতৃত্ব দিতে হচ্ছে জানান তিনি। তার এই জায়গায় তরুণ কাউকে দেখতে চান বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। শ’দিনের ব্যবধানে এমন কথা দুইবার তুলেন সাকিব আল হাসান। সাকিব চান, তরুণ কাউকে যেন এখনই দলের নেতৃত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়। নেতৃত্বে না থাকলে নিজের খেলাটায় আরও মনোযোগ দিতে পারবেন, এমনটাও দাবি করেন দেশ ও বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। বাঁহাতি অলরাউন্ডারের এই বক্তব্যে বেশ বিরক্ত বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। জনাব নাজমুল হাসান পাপন মনে করছেন, সাকিব আসলে টেস্ট ফরমেটটাই খেলতে চান না। তাই নেতৃত্ব ছেড়ে দেয়ার কথা তুলছেন বার বার। গতকাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে পাপন বলেন, ‘টেস্ট খেলায় আগ্রহ নেই সাকিবের। এজন্য সে অধিনায়কত্ব নিয়ে এমন কথা বলছে।’ বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের নেতৃত্ব পেলে সহজে ছাড়তে চান না ক্রিকেটাররা। দলের ব্যর্থতার পরও অধিনায়কত্ব ধরে রাখার চেষ্টা করেন। সাকিব এই জায়গাটায় উল্টো, কারণটা কি? সাকিবের এখন টেস্ট খেলার মতো মানসিকতা নেই বলেই মনে করছেন নাজমুল হাসান পাপন। বার বার নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেয়ার কথা তোলায় তার ওপর কিছুটা যেন বিরক্ত বিসিবি সভাপতি। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের আগে ছয় মাসের ছুটি চেয়েছিলেন সাকিব। বিসিবি তিন মাসের ছুটি মঞ্জুর করে। বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘টেস্ট খেলার ইচ্ছা নেই বলেই হয়তো মাঝেমধ্যে টেস্টের সময় বিশ্রাম নিতো সে, আমাদের ধারণা তেমনই।’ অথচ এই টেস্ট ফরমেটে সাকিবের এমন অনেক রেকর্ড আছে, যেগুলো তাকে বিশ্বের সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডারদের তালিকায় জায়গা করে দিয়েছে। সাকিব যদি আসলেই টেস্ট থেকে সরে যেতে চান, সেটা বাংলাদেশের জন্য বড় দুঃসংবাদই হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ