শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশকে হারাল জিম্বাবুয়ে

স্পোর্টস রিপোর্টার : ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরুর আগে জিম্বাবুয়ের কাছে হারল বিসিবি একাদশ। গতকাল ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবিকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে হ্যামিল্টন মাসাদাকদজার জিম্বাবুয়ে দল। মুশফিকুর রহীম, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দীন, আরিফুল হকের মতো জাতীয় দলের তারকাদের নিয়েও জিম্বাবুয়ের কাছে পাত্তা পেল না বিসিবি একাদশ। আগে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৪২ রান করেছিল বিসিবি একাদশ। ব্রেন্ডন টেলরের ফিফটিতে জিম্বাবুয়ে সেটি পেরিয়ে যায় ১৬ বল বাকি থাকতে। মুশফিক, সাব্বির, আফিফ ব্যাটিংয়ে ভালো শুরু করেও কেউ ত্রিশ পার করতে পারেননি। দুই পেসার সাইফউদ্দিন ও ইয়াসিন পাননি কোনো উইকেট। ১৯ বলে ২১ রান করেন সাইফ, নাইম করেন ১৪ বলে ২৩। তিন ও চারে খেলেছেন জাতীয় দলের দুই বড় তারকা সাব্বির রহমান আর মুশফিকুর রহীম। সাব্বির ৩১ বলে ১ ছক্কার সাহায্যে করেন মাত্র ৩০ রান। ২৬ বলে ২ বাউন্ডারিতে ২৬ রান আসে মুশফিকের ব্যাট থেকে। টস জিতে ব্যাট করতে নেমেছিলেন সাইফ হাসান ও মোহাম্মদ নাঈম।

 তৃতীয় ওভারে টেন্ডাই চাতারাকে পরপর চার-ছক্কা হাঁকিয়েছিলেন সাইফ। পরের ওভারেই নেভিল মাদজিভার বলে এলবিডব্লিউ হয়ে যান অধিনায়ক। ১৯ বলে একটি করে চার ও ছক্কায় ২১ রান আসে তার ব্যাট থেকে। নাঈম পাঁচটি চার মেরে বড় কিছুর আশা জাগালেও বেশিক্ষণ টেকেননি। বাঁহাতি স্পিনার শন উইলিয়ামসের বলে ক্যাচ দেয়ার আগে ১৪ বলে করেন ২৩ রান। তৃতীয় উইকেটে জুটি বাঁধেন সাব্বির ও মুশফিক। সাব্বির শুরুতে দেখেশুনে সিঙ্গেল নিয়ে খেলছিলেন। মুশফিকও ভালোই খেলছিলেন। দু’জন গড়ে ফেলেছিলেন ৫৩ রানের জুটি। এরপরই উইলিয়ামসের তিন বলের মধ্যে ফেরেন দু’জনই। স্টাম্পড হওয়ার আগে ৩১ বলে একটি ছক্কায় সাব্বির করেন ইনিংস সর্বোচ্চ ৩০ রান। উইলিয়ামসকে ফিরতি ক্যাচ দেয়ার আগে ২৬ বলে ২ চারে ঠিক ২৬ রান করেন মুশফিক। আফিফ একটি ছক্কা হাঁকালেও টিকতে পারেননি। কাইল জারভিসের বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৮ বলে করেন ১০ রান। শেষ দিকে ঝড় তুলতে পারেননি ইয়াসির আলী, তিনি ৬ রান আর আরিফুল হক ৯ রান করে আউট হয়েছেন। চার ওভারে ১৮ রানে ৩ উইকেট নিয়েছে জিম্বাবুয়ের সেরা বোলার উইলিয়ামস। মাদজিভা তিন ওভারে ৩৫ রানে নেন ২ উইকেট। জয়ের জন্য ব্যাট করতে নামা জিম্বাবুয়েকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন মাসাকাদজা ও টেলর। দু’জন উদ্বোধনী জুটিতে ৪.৫ ওভারে যোগ করেন ৪২ রান। ২৩ বলে ৬ চারে ৩১ রান করা মাসাকাদজাকে ফিরিয়ে এ জুটি ভাঙেন আফিফ। দ্রুত ক্রেইগ আরভিন আর শন উইলিয়ামসের উইকেটও তুলে নেন তিনি। জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ তখন ৩ উইকেটে ৬৬ রান। এরপর অবশ্য আর কোনো বিপদ হতে দেননি টেলর ও টিমাইসেন মারুমা। চতুর্থ উইকেটে এই দুজনের অবিচ্ছিন্ন ৭৮ রানের জুটিতে সহজেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় জিম্বাবুয়ে। টেলর ৪৪ বলে ২ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৭ ও মারুমা ২৮ বলে ৫ চার ও এক ছক্কায় ৪৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। আফিফ চার ওভারে ১৯ রানে নেন ৩ উইকেট। সাইফউদ্দিন তিন ওভারে ২০ রানে উইকেটশূন্য ছিলেন। টি-টোয়েন্টি দলে জায়গা পাওয়া নতুন মুখ ইয়াসিন দুই ওভারে খরচে দেন ২২ রান। কাল মিরপুরে ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। সিরিজের অন্য দল আফগানিস্তান।

বিসিবি একাদশ: সাইফ হাসান (অধিনায়ক), মোহাম্মদ নাঈম, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, ইয়াসির আলী, আফিফ হোসেন, আরিফুল হক, সাব্বির হোসেন, জাকের আলী, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, ইয়াসিন আরাফাত।

জিম্বাবুয়ে দল: হ্যামিল্টন মাসাকাদজা (অধিনায়ক), ব্রেন্ডন টেলর, রায়ান বার্ল, শন উইলিয়ামস, নেভিল মাদজিভা, টিনোটেন্ডা মুটুমবডজি, টনি মুনিয়োঙ্গা, কাইল জারভিস, টেন্ডাই চাতারা, ক্রেইগ আরভিন, টিমাইসেন মারুমা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ