শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

ব্যারিস্টার মইনুলকে কারাগারে পাঠানো বিচারকের শাস্তি দাবি সুপ্রিম কোর্ট বারের

 

স্টাফ রিপোর্টার: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন বাতিলকারী বিচারক তফাজ্জল হোসেনের ক্ষমতা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। একই সঙ্গে ওই বিচারকের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন তারা।

গতকাল বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানান বারের সাধারণ সম্পাদক এ এম মাহবুব উদ্দিন খোকন। তিনি বলেন, ফরমায়েশি আদেশের কারণেই জামিনযোগ্য মামলায় জামিন দেয়া হয়নি। এ ছাড়া বিষয়টিকে সব আইনজীবীর জন্য লজ্জাজনক বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ সময় বারের বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাবেক এবং বর্তমান নেতারা উপস্থিত ছিলেন। তবে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ব্যানারে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হলেও সেখানে উপস্থিত ছিলেন না বর্তমান সভাপতি অ্যাডভোকেট এ এম আমিন উদ্দিন।

সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির দায়ের করা মানহানি মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করে গত ৩ সেপ্টেম্বর কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সব আইনজীবীর জন্য এটা লজ্জার ব্যাপার। আমরা অবিলম্বে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন বাতিলকারী বিচারক তফাজ্জল হোসেনের বিচারিক ক্ষমতা প্রত্যাহার এবং তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানাচ্ছি।

প্রধান বিচারপতির প্রতি আহ্বান জানিয়ে ব্যারিস্টার খোকন বলেন, রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গের অন্যতম হলো- বিচার বিভাগ। ফরমায়েশি আদেশের জন্য একদিন বিচার বিভাগকে কঠোর পরিণতি ভোগ করতে হবে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে ফরমায়েশি আদেশ থেকে দেশের জনগণকে মুক্তি দিন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন, সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, গণফোরাম নেতা অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার আফ্রিক, বারের সাবেক সহ-সভাপতি ওয়ালিউর রহমান, সদস্য মির্জা আল মাহমুদ, সহ-সম্পাদক শরীফ ইউ আহমেদ, ব্যারিস্টার এহসানুর রহমান ও অ্যাডভোকেট জামিউল হক ফয়সাল প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ