বৃহস্পতিবার ০১ অক্টোবর ২০২০
Online Edition

টাইগারদের দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ ড্র পেসাররা দ্রুতই উন্নতি করছে : ল্যাঙ্গেভেল্ট

 

স্পোর্টস রিপোর্টার : আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের আগে নিজেদের প্রস্তুত করতে মিরপুরে দু’দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে ক্রিকেটাররা। গতকাল শেষ দিন ড্র দিয়ে শেষ হয় ম্যাচটি। এর সাথেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টকে সামনে রেখে শেষ হয়েছে টাইগারদের অনুশীলন পর্ব। গতকাল মিরপুরে বাংলাদেশ লাল দলের হয়ে নেমেছিলেন বাংলাদেশ সবুজ দলের বিপক্ষে। নতুন বলে শুরুতেই আসেন বোলিং আক্রমণে। কিন্তু ১ ওভারের বেশি বোলিং করতে পারেননি। ওই ১ ওভারেই পেয়েছেন সৌম্য সরকারের উইকেট। নিজেদের মধ্যে আয়োজিত দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে শুক্রবার লাল দলের হয়ে ব্যাট হাতে দ্যুতি ছড়িয়ে  সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। গতকাল বল হাতে তার শিকার ৩ উইকেট। অলরাউন্ড পারফরম্যান্সে নিজের ফর্ম জানান দিয়ে রাখলেন মাহমুদউল্লাহ। বল হাতে আলো ছড়িয়েছেন পেসার আবু জায়েদ রাহীও।

সিলেটের এ পেসার পেয়েছেন ৩ উইকেট। এছাড়া টেস্ট স্কোয়াডের বাইরে থাকা মেহেদী হাসান, মিনহাজুল আবেদীন আফ্রিদি ও ইরফান আহমেদ পেয়েছেন ১টি করে উইকেট। সাকিব আল হাসান ১০ ওভার হাত ঘোরালেও ছিলেন উইকেটশূন্য। রান খরচ করেছেন ৪১।লাল দলের ভালো  বোলিংয়ে সবুজ দলের ব্যাটিং ছিল বাজে। টেস্ট স্কোয়াডে থাকা মোসাদ্দেক ও মুমিনুল বাদে কেউই নুন্যতম লড়াই করতে পারেনি। লাল দলের ২৬৮ রানের জবাবে সবুজ দল গুটিয়ে যায় ১২৫ রানে। দুই ওপেনার সৌম্য ও সাদমান আউট হয়েছেন শূন্য রানে। তিনে নামা মুমিনুলের ব্যাট থেকে আসে ৩৫ রান। মুশফিকুর রহিমের ব্যাট হাসেনি। ৬ রানের বেশি করতে পারেননি। সাদমান পরবর্তীতে আবার ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন। কিন্তু দ্বিতীয় সুযোগেও হাসেনি তার ব্যাট। মাহমুদউল্লাহর বলে এলবিডব্লিউ হন ১৩ রানে। টেস্ট স্কোয়াডে থাকা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে মাহমুদউল্লাহর প্রস্তুতি সবথেকে ভালো হল। বাকিরা থাকলেন আড়ালে। বোলিংয়ে তাসকিন, রাহী ও ইবাদত ভালো সময় কাটাচ্ছেন। এমন পারফরম্যান্স মূল মঞ্চে নিয়ে গেলে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভালো করার আশা থাকবে সাকিবের দলের। প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন টাইগারদের পেস বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গেভেল্ট। জানান পেসাররা খুব দ্রুতই উন্নতি করছেন। তিনি বলেন, ‘এটা খুই আশার কথা যে তারা দ্রুতই উন্নতি করছে। প্রথম দিন প্রতি বলেই তারা উইকেট নেওয়ার জন্য বল করছিল। কিন্তু টেস্ট ক্রিকেটে লাইন-লেন্থ ঠিক রেখে ধারাবাহিকভাবে বল করা বেশি জরুরি। টানা ডট বল করে ব্যাটসম্যানদের ওপর চাপ তৈরি করতে পারলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উইকেট পাওয়া সম্ভব। কিন্তু আমি জানি এই ধরনের কন্ডিশনে এটা পেসারদের জন্য বেশ কঠিন কাজ। কিন্তু আমি আশাবাদী কারণ তারা দ্রুত শিখতে পারছে।' পেসারদের জন্য সবসময় শিক্ষার দরজা খোলা রেখেছেন ল্যাঙ্গেভেল্ট। পেসারদের সংকোচ না করে শিক্ষার জন্য তাগিদ দেন। পেসাররাও এতে সাড়া দিয়েছেন বলে তিনি জানান।’ ল্যাঙ্গেভেল্ট বলেন, ‘ক্রিকেটারদের জন্য সমসময় আমার দুয়ার খোলা। আমিও আন্তরিকতার সাথে কাজ করতে পছন্দ করি। তাদের বলেছি, যখনই সময় পাবে আমার সঙ্গে কথা বলবে। আমি চাই না কোনো বোলার লজ্জা পাক। তাদের বলেছি যেকোনো সময় আমার কাছে এসে প্রশ্ন করবে, কি শিখতে চাও তোমরা। প্রশ্ন না করলে শিখতে পারবে না। এবং আমি খুশি যে তারা আমারা কাছে এপ্রেশ্ন করে।’ আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের জন্য দলে তিন পেসার (তাসকিন আহমেদ, আবু হায়দার রনি, ইবাদত হোসেন) রয়েছেন। তাদের পারফরম্যান্সও ল্যাঙ্গেভেল্টের ভালো লেগেছে। তবে তার মন্ত্রে দিক্ষিত পেসাররা নিজেদের কতটুকু কাজে লাগাতে পারেন সেটাই এখন দেখার বিষয়।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ