বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০
Online Edition

মাদারীপুরে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ২

মাদারীপুর সংবাদদাতা : মাদারীপুর সদর উপজেলার পাঁচখোলায় দুই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাসুদ মোড়ল (৩০) ও রুবেল মোল্লা (২০) নামে দুই যুবককে মঙ্গলবার সকালে আটক করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। ধর্ষণের শিকার ওই দুই কিশোরীকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ, হাসপাতাল ও ধর্ষিতার পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বেলা সাড়ে ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দুই কিশোরী ও ওই যুবক মাদারীপুর লেকেরপাড় ঘুরছিলো। রাত ৯টার দিকে তারা লঞ্চঘাটে যায়। এসময় পাঁচখোলা গ্রামের জলিল মোড়লের ছেলে মাসুদ মোড়ল ও একই গ্রামের নান্নু মোল্লার ছেলে রুবেল মোল্লা দুই কিশোরীকে পাঁচখোলার জাফরাবাদ বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে নৌকায় তুলে নেয়। পরে নদী পার হয়ে রুবেল মোল্লা এক কিশোরী (১৪)কে পাড়ে নামিয়ে একটি গরুর খামারের ভিতর নিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে ফেলে যায়। এদিকে মাসুদ মোড়ল অপর কিশোরী (১৯)কে নৌকার মধ্যে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। সদর থানার পুলিশ ধর্ষণের অভিযোগ পেয়ে রুবেল ও মাসুদকে মঙ্গলবার সকালে গ্রেফতার করে।
ধর্ষিতা কিশোরীদের দাবী, সোমবার সন্ধ্যায় শহরের ট্রলার ঘাট এলাকা থেকে গ্রামের বাড়ি জাফরাবাদ এলাকায় পৌছে দেয়ার কথা বলে তাদের নৌকায় তুলে নিয়ে যায়। রাতে এক কিশোরীকে নৌকায় এবং অপর কিশোরীকে নদীর পাড়ের একটি গরুর খামারে নিয়ে ধর্ষণ করে ফেলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে।  মাদারীপুর সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ শশাঙ্ক চন্দ্র ঘোষ বলেন, দুই কিশোরী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। দুই কিশোরীর আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।  পরবর্তীতে রিপোর্ট দেয়া হবে। মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বদরুল আলম মোল্লা বলেন, এই ঘটনায় দুইজনকে আটক করা হয়েছে। ধর্ষিতার পরিবার মামলা করলে মামলা নেয়া হবে এবং সকল ধরনের আইনগত সহযোগিতা প্রদান করা হবে।
বাসের চাপায় যাত্রীর মৃত্যু: মাদারীপুরের শিবচরের কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটে মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে সন্তানের জন্য পানি আনতে গিয়ে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে বাদশা হাওলাদার (৪০) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। 
কাঁঠালবাড়ী ঘাট সূত্রে জানা গেছে, বাগেরহাট থেকে সুন্দরবন পরিবহনে করে ঢাকা যাচ্ছিলেন বাদশা,  তার স্ত্রী ও দুই শিশুপুত্র। বাসটি কাঁঠালবাড়ী ৩ নং ফেরি ঘাট দিয়ে ফেরি উঠার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এসময় পুত্রের পানি পিপাসা লাগলে বাদশা হাওলাদার বাস থেকে নেমে দোকানে পানি আনতে যান। পানি নিয়ে বাসের কাছে আসলে, বাসটিও ফেরিতে উঠার জন্য সামনে অগ্রসর হয়। এ সময় বাসের নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান তিনি। নিহত বাদশা হাওলাদার বাগেরহাটের চিলা ইউনিয়নের জয়মনিরঘোল গ্রামের সালাম হাওলাদারের ছেলে। কাঁঠালবাড়ী ঘাটের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর উত্তম কুমার শর্মা জানান, বাসটি ফেরিতে উঠতে গেলে ওই বাসের যাত্রী বাসটির চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ