বুধবার ০৫ আগস্ট ২০২০
Online Edition

এসএসসির পরই টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং

মুস্তাফিজ আহমেদ : বাংলাদেশের বস্ত্র ও পোশাকশিল্প দেশের উন্নয়নের প্রধান শিল্পখাত হিসাবে অবস্থান পাকা করে নেওয়ার পাশাপাশি কৃষির পরে একমাত্র সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষকে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছে। এছাড়া বর্তমানে এই খাতটি বিশ্বের কাছ থেকে অন্যতম প্রধান প্রতিযোগী পোশাক উৎপাদক ও রপ্তানিকারক হয়ে ওঠার পাশাপাশি দেশের সর্বাধিক মুদ্রা আনয়নকারী খাত হিসাবে প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। এই খাতে বর্তমানে ৪৫ লক্ষ লোক সরাসরি কর্মরত আছেন। বিজিএমইএ -এর দেওয়া তথ্য মতে, যেখানে ১৯৭৮ সালে তৈরি পোশাক রপ্তানি খাত হতে আসে ১২ হাজার মার্কিন ডলার এবং ২০১৮ সাল বাংলাদেশ পোশাক শিল্পের জন্য উল্লেখযোগ্য ছিল যা বার্ষিক রপ্তানি ৮৪% অবদান রেখে অর্থনীতিতে ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের অবদান রেখেছিল এবং প্রায় ৪৫ লাখ মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে ছিল। অর্থ বছরে গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১৭.৯১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা গত বছরের তুলনায় ৪০ শতাংশ বেশি। বৃদ্ধির এই হার ধরে রাখতে পারলে ম্যাকিনজির ভবিষ্যদ্বাণী অনুযায়ী আগামী ২০২০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ প্রতিবছর ৪৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করবে।
বাংলাদেশ প্রচলিত শিক্ষা ব্যবস্থার চেয়ে একজন শিক্ষার্থী এসএসসি পাস করার পর ডিপ্লোমা-ইন টেক্সটাইল এবং গার্মেন্টস ডিজাইন অ্যান্ড প্যাটার্ন মেকিং বিষয়ে পাশ করার সঙ্গে সঙ্গেই কর্মজীবনে প্রবেশ নিশ্চিত।
ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট এর শিক্ষিকা রেবেকা মনসুর বলেন, ‘ডিপ্লোমা-ইন-টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং পাসের পরপরই টেক্সটাইলের বিভিন্ন বিভাগ যেমন স্পিনিং ফেব্রিকস, ওয়েট প্রসেস ও গার্মেন্টস ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে চাকরির করার সুয়োগ। তাছাড়া মাচেন্ডডাইজারসহ জুট মিলে কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে।
৫ হাজারের অধিক গার্মেন্টসে বিভিন্ন বিভাগ যেমন- কোয়ালিটি কন্ট্রোল, কাটিং, সূইং, স্যামপলিং, ফেব্রিক সেকশনসমূহ ও প্যাটার্ন ডিজাইন বিভাগে প্রচুর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা রয়েছে। তাছাড়া দেশি বিদেশে বায়িং হাউসগুলোতে কর্মক্ষেত্রের সুযোগ রয়েছে। টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে রয়েছে আর্থিক সুবিধাসহ সল্পতম সময়ে উচ্চশিক্ষার জন্য নিজস্ব বিশ্ববিদ্যালয় ডিআইইউতে পড়ার সুযোগ। বিস্তারিত জানতে কল করতে পারেন ০১৭১৩৪৯৩২৪৬ নম্বরে। টেক্সটাইলের স্পিনিং ফেব্রিক, ওয়েট প্রসেস গার্মেন্টসের আলাদা আলাদা ল্যাব আধুনিক CAD এবং CAM ল্যাব, সু-বিশাল সুইং ল্যাব। প্রযুক্তিনির্ভর চাকরি বাজারের জন্য তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার গড়ার লক্ষ্যে One Student One Laptop। আন্তর্জাতিক চাকরির বাজারে দক্ষলোকবলের জন্য রয়েছে Global Recruiting Agency। বিদেশে ভর্তি, ক্রেডিট ট্রান্সফার, মাইগ্রেশন ও ভর্তির সর্বোচ্চ সহযোগিতায় Admission.ac শিক্ষার্থীদের জন্যরয়েছে তরুণ উদ্যোক্তা ফান্ড বাংলাদেশ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল। চাকরি ও ইন্টার্নশিপ প্রাপ্তির নিশ্চয়তায় জব প্লেসমেন্ট সেল। ওয়ার্ক বেসড স্কলারশিপ, আর্থিক সহায়তায় বিশ্বব্যাংকের বৃত্তি। এছাড়াও রয়েছে দক্ষ ও অভিজ্ঞ শিক্ষকমন্ডলী, যারা র্সাবক্ষনীক শিক্ষার মান উন্নয়ন ও শিক্ষার্থীদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে ২০১৯-২০ শিক্ষা বর্ষে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ডিপ্লোমা-ইন টেক্সটাইল এবং গার্মেন্টস ডিজাইন অ্যান্ড প্যাটার্ন মেকিং প্রোগ্রামে ভর্তি চলছে। ভর্তি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে পারেন www.dpi.ac ঠিকানায়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ