বুধবার ১২ আগস্ট ২০২০
Online Edition

‘ফকির মজনু শাহ্ সেতু’তে রাতে অন্ধকার বাতি সংস্কারের দাবী

কাপাসিয়া (গাজীপুর) থেকে শামসুল হুদা লিটন : গাজীপুরের কাপাসিয়ায় শীতলক্ষ্যা নদীর উপর ণির্মিত ‘ফকির মজনু শাহ সেতু’র প্রায় সকল বৈদ্যুতিক বাতি দীর্ঘদিন যাবত অচল অবস্থায় রয়েছে। বাতির অভাবে অন্ধকার রাতে সেতু পারাপারে ভুতুড়ে পরিবেশ বিরাজ করছে। বিদ্যুৎ চলে গেলে সেতু’র আশপাশ এলাকায়ও অন্ধকার নেমে আসে। প্রতি বছর সেতু’র টোল আদায় হয় কয়েক কোটি টাকা। অথচ আদায়কারী ইজারাদার সেতুর সঠিক রক্ষনাবেক্ষন করছেন না বলে ব্যাপক অভিযোগ রয়েছে।
এ অবস্থায় গাড়ীর আলোবিহীন সেতু যেন গাঢ় আমাবস্যার গভীর রাত। রাতে যানবাহনের আলো ছাড়া পথচলাই যেন অসম্ভব। বাতি না থাকায় অন্ধকার রাতে চুরি, ছিনতাই ও নানা ধরনের অপরাধমূলক কর্মকা- সংঘটিত হচ্ছে বলে অনেকেই অভিযোগ করেছেন। ইতিপূর্বে সেতু থেকে নদীতে লাফিয়ে পড়ে আত্মহত্যার ঘটনাও ঘটেছে। গত কয়েকদিন আগে এক অন্ধকারে রাত সাড়ে নয়টায় কৃষকের একটি ষাঁড়গরু সেতু পারাপারের সময় বিদ্যুতায়িত লোহার পাতে সর্ট খেয়ে মারা যায়। এছাড়া টাকার বিনিময়ে সেতু’র পশ্চিম প্রান্তে বসানো চটপটি, ফুসকার দোকানে হয়েছে। ফলে সাধারণ মানুষের চলাচলে ব্যাঘাত সৃষ্টি হওয়ায় নানামূখি দূর্ঘটনাও ঘটছে।  ‘ফকির মজনু শাহ্ সেতু’ একটি জনগুরুত্বপূর্ণ সেতু। নরসিংদী ও কিশোরগঞ্জ অঞ্চলের ঢাকাগামী অধিকাংশ  পরিবহন এ সেতুর উপর দিয়ে চলাচল করে। কাপাসিয়া উপজেলার নদীর পূর্বপাড়ের ৮ ইউনিয়নের সাধারণ মানুষের চলাচলের পথ এই সেতু। সেতুর উপর বাতি না থাকায় সাধারণ মানুষকে পোহাতে হচ্ছে দুর্ভোগ। জনস্বার্থে সেতুর অচল বাতিগুলো দ্রুত সচল করা এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট নিয়মিত তদারকি করার দাবি জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মানুষ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ