শুক্রবার ১৪ আগস্ট ২০২০
Online Edition

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় চাহিদা মিটিয়ে মাছ উদ্বৃত্ত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত অর্থ বছরে (২০১৮-২০১৯) চাহিদার চেয়ে বেশী মাছ উৎপাদন হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা মৎস্য অফিসার মোঃ মামুনুর রশীদ।

জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ (১৭-২৩ জুলাই) উপলক্ষে গতকাল বুধবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই তথ্য জানান। মৎস্য অধিদপ্তর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উদ্যোগে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্যে জেলা মৎস্য অফিসার মোঃ মামুনুর রশীদ আরো বলেন, গত অর্থ বছরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৫৩ হাজার ৯১৩ মেঃ টন মাছের চাহিদা ছিলো, উৎপাদন হয়েছে ৫৪ হাজার ১৬১ মেঃ টন। উদ্বৃত্ত হয়েছে ২৪৮ মেঃ টন। তিনি বলেন, রাজস্ব কার্যক্রম ও প্রকল্পের মাধ্যমে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৪৫৯টি প্রদর্শনী, ৭টি বিল নার্সারী, ৭টি অভয়াশ্রম এবং প্রাতিষ্ঠানিক ও মুক্ত জলাশয়ে ৩৪৭৫.৩৫ কেজি রুই জাতীয় পোনামাছ অবমুক্ত করা হয়েছে। চাহিদা সম্পন্ন মাছ চাষের সম্প্রসারণ ঘটনানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। শিং, কৈ, পাবদা ও গুলশা মাছের প্রদর্শনী প্রাথমিকভাবে শুরু হয়েছে। পরে তিনি জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে ৭দিনের কর্মসূচী ঘোষণা করেন। সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি খ.আ.ম. রশিদুল ইসলাম।

উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার (অঃ দাঃ) মোঃ শহিদুল হোসেন, বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা মৎস্য উন্নয়ন প্রকল্পের সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মোঃ সামছু উদ্দিন এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়ার রামরাইল মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারের ব্যবস্থাপক মোঃ আশরাফ উদ্দিন। সংবাদ সম্মেলনে জেলায় কর্মরত বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ