মঙ্গলবার ০৩ আগস্ট ২০২১
Online Edition

হাজীগণ কঠোর শৃংখলা, ধৈর্য্য, নিয়মানুবর্তিতা এবং একাগ্রতার মাধ্যমে হজ্বের ইবাদত সম্পন্ন করে থাকেন

চট্টগ্রাম ব্যুরো : চট্টগ্রামের  মেয়র হজ্ব কাফেলার হাজী যাএীদের এক প্রশিক্ষণ কর্মশালা  ১৩ জুলাই শনিবার বেলা ২.৩০ টায় জমিয়াতুল ফালাহ জাতীয় মসজিদের নীচ তলায় অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন সংস্থার নির্বাহী পরিচালক  খোরশেদ আলম সুজন।
হজ্বের করণীয়ের উপর গুরুত্বপূর্ণ বয়ান করেন গরীবউল্লাহ শাহ মসজিদের খতিব বিশিষ্ট ইসলামী গবেষক মাওলানা আনিসুজ্জামান এবং মাওলানা নূর মোহাম্মদ সিদ্দিকী। সভায় আলেমে দ্বীনগণ বলেন, মোহমায়া ত্যাগ করে পরম করুণাময়ের নৈকট্য লাভের আশায় যারা নিজেকে পুরোপুরি সমর্পন করতে পেরেছে তারাই হজ্বের পূর্নলাভ নিয়ে ঘরে ফিরতে পেরেছে। মেয়র হজ্ব কাফেলার হজ্ব যাত্রা পবিত্র মদিনা শরীফ দিয়ে শুরু করে হুজুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহিওয়াসাল্লামের দোয়া নিয়ে হজ্বের উদ্দেশ্যে মক্কা শরীফ যাত্রার মধ্যে এক মহান আধ্যাতিœকতা রয়েছে। হজ্বের সকল করণীয় পরিপূর্ণ আদায় করাই হবে প্রতিটি হাজীর মূল লক্ষ্য।
প্রশিক্ষণ কর্মশালায় হজ্বের করনীয়ের উপর গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখতে গিয়ে খোরশেদ আলম সুজন বলেন, হজ্ব ইবাদতের ক্যাম্প লাইফ। হাজীগন কঠোর শৃংখলা, ধৈর্য্য, নিয়মানুবর্তিতা এবং শারিরীক ও  মানসিক একাগ্রতার মাধ্যমে হজ্বের ইবাদত সম্পন্ন করে থাকেন। হাজীগন হজ্বব্রত পালনের মাধ্যমে যেমন আল্লাহপাক নির্ধারিত একটি ফরজ ইবাদত সম্পন্ন করেন অন্যদিকে হজ্বের সফরে আচার আচরনের মধ্য দিয়ে নিজ দেশের সামাজিক উৎকর্ষতাকেও তুলে ধরতে পারেন।
মনে রাখতে হবে হাজী সাহেবানরা হজ্ব করতে গিয়ে নিজ দেশের দূতের ভুমিকা পালন করতে হবে। কোন অবস্থাতেই ইবাদতের মগ্ন পরিবেশ যাতে ক্ষুন্ন না হয় সেদিকে খুবই সতর্ক থাকতে হবে। সফরের মূল শিক্ষা আপনি পরিবেশের সাথে নিজেকে মানিয়ে নিবেন। পরিবেশকে নিজের অনুকুলে আনতে গিয়ে ইবাদতের বিঘœ ঘটাবেন না। মনে রাখতে হবে দেশ থেকে সাড়ে পাঁচ হাজার মাইল দুরত্বে গিয়ে ভিন্নতর আবহাওয়া ও সামাজিক পরিবেশে হজ্বের কাজ সমাধা করতে হবে। হজ্বে এমন কোন কাজকে প্রাধান্য দেওয়া যাবে না যেটা হজ্বের মূল ইবাদত সমুহকে ব্যাহত করে। আরব দেশের আইন কানুন, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিবেশকে সম্মান করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, স্বল্পমুল্যে সুশৃঙ্খলভাবে সহজে হজ্বের করণীয় পালনে হাজীদের সেবাদানের জন্য চট্টগ্রামের প্রথম নির্বাচিত মেয়র আলহাজ্ব এ.বি.এম মহিউদ্দিন চৌধুরী সম্পূর্ণ অলাভজনক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কতিপয় ধর্মপ্রাণ মুসলমানগণকে নিয়ে মেয়র হজ্ব কাফেলা প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। মক্কা ও মদিনায় এবং জমারায় থেকে নির্বিঘেœ হজ্ব পালনে সহযোগিতা করাই এ প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্যে। হজ্ব ব্যবসা নয় আল্লাহর কাজে সহযোগিতা এ মনোভাব নিয়ে সংস্থাটি ছাব্বিশ বছরে পর্দাপন করেছে। এ দীর্ঘ পথচলায় সৌদি রাজকীয় সরকার বার বার এই সংস্থাকে সম্মাননা প্রদান করেছে। আমাদের ব্যবস্থাপনায় কোন ত্রুটি থাকলে দয়া করে আমাদের জানাবেন। আপনাদের দোয়াই আমাদের পাথেয়।
প্রশিক্ষণ কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন  হাসিনা মহিউদ্দিন, আবু তাহের, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন, আজম আলী, আব্দুল কাদের, মোঃ শাহাবুদ্দিন, শহিদুল ইসলাম,  সাজ্জাদ হোসেন, মুসা মিরদাদ এবং সংস্থার সিইও একেএম নুরুল আনোয়ার প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ